lord ganesh
শস্য গণপতি।

বেঙ্গালুরু: গণেশপুজোর আনন্দের পর দূষণের হাত থেকে পরিবেশ বাঁচাতে এক নতুন ধরনের ব্যবস্থা নিয়ে এল বেঙ্গালুরুর চার বন্ধু। ব্যবস্থাটা হল গণেশের একটা প্যাকেজ বা কিট। এঁরা এই কিটের নাম দিয়েছেন ‘গ্রিন কিট’। আর গণেশের নাম দিয়েছেন ‘শস্য গণপতি’।

ভাবছেন তো সেটা আবার কেমন ব্যাপার? এঁরা এতে দিচ্ছেন সম্পূর্ণ মাটির তৈরি একটা সুন্দর গণেশ ঠাকুর। এই গণেশ ঠাকুরের গায়ে থাকছে প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি রঙ, একটা সুদৃশ্য প্ল্যাস্টিকের টব, সঙ্গে প্রাকৃতিক সার আর বেশ কিছু পরিমাণ সবজি-বীজ। এর মধ্যে রয়েছে ঢেঁড়স, টমেটো, তুলসী ইত্যাদি। সঙ্গে একটি ম্যানুয়াল। উদ্দেশ্য গণেশকে গাছে পরিণত করে পরিবেশের দূষণরোধ।

এই চার মূর্তিমানের নাম সুধাকর, ভরত, পুনিত, বিবেক। সকলেই স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের পড়ুয়া। এঁদের সখ বৃক্ষরোপন। তার সঙ্গেই মিলিয়ে পরিবেশরক্ষার কথা মাথায় রেখে সখ আর সচেতনতাটাকে মিলিয়ে মিশিয়ে এই পথ বার করেছেন। তৈরি করেছেন পরিবেশ-বান্ধব গণেশ।

two of four friends
চার বন্ধুর দু’ জন।

সুধাকর বলেন, ধুমধাম করে পুজো করে বিসর্জন দিন এই গণেশকেও। তবে এই বিসর্জন হবে ঘরেই। গ্রিন কিটের সঙ্গে দেওয়া টবে জল ভরে রেখে তাতেই প্রথা মেনে গণপতি বাপ্পাকে ডুবিয়ে দিন। এক রাত ডুবে থাকার পর দেখা যাবে মূর্তির মাটি গলে সবটা টবেই রয়ে গিয়েছে। তৈরি হয়েছে টবের মাটি। তাতে এই কিটের মধ্যে দেওয়া সার ছড়িয়ে দিয়ে মাটি গাছ লাগানোর উপযুক্ত করে নিতে হবে। তার পর যে বীজ দেওয়া রয়েছে কিটে তা টবের ওই মাটিতে এক ইঞ্চি গভীরে পুঁতে দিতে হবে। তার পর তাতে নিয়ম করে জল দিলেই ব্যাস বীজ থেকে গাছ, গাছ থেকে সবজি।

প্রায় এক বছরের গবেষণা আর পরিকল্পনার পর সাফল্য। ২০১৭ সালের ১ জুন তাঁরা এই গ্রিন কিট বাজারে আনেন। দেখতে দেখতে এক বছর কেটে গিয়েছে। নয় নয় করে এই এক বছরে ১০০০টি কিট বিক্রি হয়ে গিয়েছে। তাঁরা আশা করছেন, এর প্রচার আর বিক্রি আরও বাড়বে।

এই বার আসি এঁদের এই শস্য গণপতির গ্রিন কিটের দামের বিষয়ে। তাঁরা বলেন, মাত্র ১৫০১ টাকা। এই কিট পাওয়া যাচ্ছে তাঁদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

সুধাকরদের মন্ত্র প্রত্যেক নাগরিককে গ্রহণ করার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। যাতে গণেশকে সবুজে বিলীন করা যায়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন