ওয়েলিংটন: ওয়াঙ্গানুই একটি নদীর নাম। না, শুধু নদী নয়। এখন থেকে এটা একজন মানুষেরও নাম। নিউজিল্যান্ড সংসদে পাস হয়ে গেল বিল। নর্থ আইল্যান্ডের ওয়াঙ্গানুই নদীকে দেওয়া হল একজন মানুষের সমান আইনি অধিকার। শুধু অধিকার নয় সঙ্গে দায়িত্বও। যে কোনো মানুষের যেমন থাকে বা থাকা উচিৎ। ওয়াঙ্গানুই সে দেশের তৃতীয় দীর্ঘতম নদী। পৃথিবীতে প্রথম, কোনো নদীকে জীবন্ত মানুষের সমান আইনি মর্যাদা দেওয়া হল।

সে দেশের মাওরি জনজাতির কাছে অত্যন্ত সম্মাননীয় এই নদীটি। গত ১৬০ বছর ধরে তাঁদের নদীর আইনি মর্যাদা আদায়ের জন্য লড়েছেন ওই জনজাতির মানুষ। এতদিনে তার স্বীকৃতি মিলল।

 

আদালতে কোনো মামলায় পক্ষ হতে পারবে ওয়াঙ্গানুই। এই নদীর প্রতিনিধিত্ব করবেন দুজন। একজন মাওরি জনজাতির পক্ষ থেকে, অন্যজন সরকারের পক্ষ থেকে। 

নিউজিল্যান্ডের চুক্তি বোঝাপড়া মন্ত্রী ক্রিস ফিনলেসন বলেছেন, “আমি জানি, অনেকের কাছেই প্রাথমিক ভাবে কোনো প্রাকৃতিক সম্পদকে আইনি ব্যক্তির মর্যাদা দেওয়ার ব্যাপারটা অদ্ভুত ঠেকবে”।

“কিন্তু এটা পারিবারিক ট্রাস্ট, কর্পোরেট সোসাইটি বা সংস্থার থেকে বাড়তি অদ্ভুত কিছু নয়”।

 

“ওই নদীকে ঘিরে যারা বেঁচে আছেন, তাঁদের কাছে নদীটি অসম্ভব গুরুত্বপূর্ণ”, বলেছেন নিউজিল্যান্ডের এক সাংসদ, আদ্রিয়ান রুরহে। তিনি মাওরি জনজাতির প্রতিনিধি।

“ওয়াঙ্গানুইয়ের দিক থেকে দেখলে, একটি নদীর ভালমন্দ, তাঁকে ঘিরে বেঁচে থাকা মানুষের ভালমন্দের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। তাই ওই নদীর পরিচয়ের স্বীকৃতি মেলাটা অত্যন্ত জরুরি বিষয়”, বলেছেন রুরহে।

 

এদিন নিউজিল্যান্ডের সংসদে, চোখের জল ও সঙ্গীতে, ওয়াঙ্গানুই-এর আইনি স্বীকৃতি মেলার উদ্‌যাপন করেন মাওরি জনজাতির প্রতিনিধিরা। 

এই বিল পাসের মধ্য দিয়ে সে দেশের সবচেয়ে বেশি দিন ধরে চলা মামলার অবসান হল।

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন