টরন্টো: নিউফাউন্ডল্যান্ড ও ল্যাব্রাডর উপকূলে কানাডার ছোট্টো ফেরিল্যান্ডের তেমন কোনো নামডাক নেই। শ’ পাঁচেক লোকের বাস। অধিকাংশেরই জীবন জড়িয়ে মাছ ধরার সঙ্গে। শহরের তেমন কোনো আকর্ষণ নেই যে ট্যুরিস্টদের পা পড়বে এখানে। কিন্তু এ হেন ফেরিল্যান্ডে ট্যুরিস্টদের ঢল নেমেছে। কারণ একটা বিশাল হিমশৈল। একটা বিশাল হিমশৈল ভাসতে ভাসতে এই শহরের সৈকতের কাছে এসে ঠেকেছে। এই হিমশৈলের সব চেয়ে উঁচু জায়গাটির উচ্চতা ৪৫ মিটারের মতো। এই হিমশৈলের কাছে ছোট্টো ফেরিল্যান্ডে শহর যেন বামন হয়ে গিয়েছে।

কানাডার নিউফাউন্ডল্যান্ড ও ল্যাব্রাডর উপকূলের এই অঞ্চলকে বলা হয় ‘হিমশৈলের গলি’ (আইসবার্গ অ্যালি)। এখানে হিমশৈল ভেসে আসা কোনো বিচিত্র ঘটনা নয়। বসন্ত ঋতুতে সুমেরু অঞ্চল থেকে বিভিন্ন আকারের হিমশৈল এখানে ভেসে আসে। কিন্তু এত বড়ো হিমশৈল আগে কখনও দেখা যায়নি। শহরের মেয়র আদ্রিয়ান কাভানাঘ বলেন, তিনি তাঁর জীবনে যত হিমশৈল দেখেছেন, এটা সব চেয়ে বড়ো। মনে হচ্ছে, এই হিমশৈল এখানে বসে গিয়েছে। এখানেই এটি থাকবে।   সিএনএন জানিয়েছে, এই হিমশৈলটিকে ‘বৃহৎ’ (লার্জ) বলে বর্ণনা করা হয়েছে। ‘বৃহৎ’ মানে উচ্চতায় ১৫১ ফুট থেকে ২০০ ফুট।

স্থানীয় মানুষজন এবং ট্যুরিস্টরা এখানে ভিড় জমাচ্ছেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় এই অভূতপূর্ব দৃশ্যের ছবি পোস্ট করছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here