protest at jantar mantar

নয়াদিল্লি: রাজধানী দিল্লির প্রাণকেন্দ্র যন্তর মন্তর এলাকায় সব রকমের সভা, সমাবেশ, প্রতিবাদ বিক্ষোভ ধরনা ইত্যাদি নিষিদ্ধ করার জন্য দিল্লি সরকারকে নির্দেশ দিল ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনাল (এনজিটি) তথা জাতীয় পরিবেশ আদালত।

কনট প্লেসের কাছ থেকে পুরো যন্তর মন্তর রোড জুড়ে যে সব অস্থায়ী কাঠামো আছে তা সরিয়ে ফেলার জন্য এনজিটি-র চেয়ারপার্সন বিচারপতি আর এস রাঠোরের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ নয়াদিল্লি মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলকে (এনডিএমসি) নির্দেশ দিয়েছে। ট্রাইব্যুনাল বলেছে ওই অঞ্চল থেকে সব রকম লাউড স্পিকার, পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেম সরিয়ে ফেলতে হবে।

বেঞ্চ বলেছে, “যন্তর মন্তর রোডে ধরনা, প্রতিবাদ, আন্দোলন, সমাবেশ, বক্তৃতা, লাউড স্পিকার ব্যবহারের মতো সব রকম ক্রিয়াকলাপ অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য দিল্লি সরকার, দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিল এবং দিল্লির পুলিশ কমিশনারকে বলা হল।” যারা ওই অঞ্চলে ধরনা, অবস্থান বিক্ষোভ, প্রতিবাদ সভা চালাচ্ছেন তাঁদের ‘এখনই’ আজমিরি গেটে রামলীলা গ্রাউন্ডের বিকল্প জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে পরিবেশ আদালত।

আরও পড়ুন : চিনের নোনা সাগর রঙ পালটে এখন গোলাপি, ভিড় করছে কৌতূহলী পর্যটকের দল 

আদালত বলেছে, প্রতিবাদকারীরা যন্তর মন্তর এলাকা ব্যবহার করে ১৯৮১ সালের বায়ু (দূষণ নিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) আইন ভাঙছেন। আদালত আরও বলেছে, ওই এলাকা ও তার আশেপাশের অঞ্চলের অধিবাসীদের তাদের নিজেদের বাড়িতে শান্তিতে, দূষণমুক্ত ও আরামদায়ক পরিবেশে বাস করার অধিকার আছে।

বরুণ শেঠ নামক এক ব্যক্তির পেশ করা এক আর্জির পরিপ্রেক্ষিতে পরিবেশ আদালত এই রায় দে। বরুণবাবু তাঁর আর্জিতে বলেন, ওই এলাকায় শব্দদূষণের বড়ো উৎস হল যন্তর মন্তর রোডে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন সামাজিক গোষ্ঠী, রাজনৈতিক দল, এনজিও-দের মিছিল-সমাবেশ।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here