পান্ডারা বাঁচলে ঠেকানো যাবে জলবায়ু পরিবর্তন, বলছে গবেষণা

0
734

নিউ ইয়র্ক: পান্ডাদের রক্ষা করা মানে যে শুধু তাদেরই সুরক্ষা তা নয়।  এতে সুরক্ষিত হবে অন্য প্রজাতিরাও। পান্ডারা জৈববৈচিত্র্য রক্ষা করতে আর জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে। এমনই বলছে একটি সাম্প্রতিক গবেষণা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মিচিগান স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক জিয়াংউও লিউ বলেছেন, কখনও কখনও অপ্রত্যাশিত ফলাফল আরও ভালো কিছু করতে উৎসাহ জোগায়। পান্ডাদের ব্যাপারেও তেমনই বলা যায়। গবেষণায় দেখা গেছে, গাছপালা, প্রকৃতি আর মানুষের সুরক্ষার জন্য উন্নত পথের দিশা দেখাচ্ছে পান্ডারা।

গবেষকরা বলছেন, বেশ কিছু দশক ধরে চিন কৃষি ক্ষেত্রকে বনাঞ্চলে পরিবর্তন করার কাজ শুরু করেছে। তাঁরা কাঠ কাটা ও সংগ্রহ করা নিষিদ্ধ করেছে। গাছ লাগানোর প্রকল্পও শুরু করেছে। তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এই পদ্ধতি বনাঞ্চলের বৃদ্ধির ক্ষেত্রে দারুণ উপকারী।

গবেষক আন্দ্রে ভিনা বলেন, গবেষণায় দেখা গেছে সংরক্ষিত অরণ্যের বাইরে গাছপালা অনেক বেশি তাড়াতাড়ি বেড়ে ওঠে। তবে এটা কোনো খারাপ দিক না। বা তাতে সংরক্ষণ কম গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যায় না। এটা একটা শুরু ধরা যেতে পারে। তবে অনেক ক্ষেত্রেই এই সংরক্ষিত অরণ্য ভাবনার থেকেও বেশি ঘন বেশি গভীর হয়ে উঠেছে। এটা একটা ভালো দিক।

গবেষকরা জানিয়েছেন, সব অরণ্য একই প্রয়োজন পূরণের জন্য গড়ে ওঠেনি। কোনোটা জৈব বৈচিত্র্য বজায় রাখতে, কোনোটা মাটি আর জলের প্রয়োজনে, কোনোটা আবার পান্ডাদের প্রয়োজনে গড়ে তোলা হয়েছে। যেগুলো পান্ডাদের প্রয়োজনে গড়ে তোলা হয়েছে সেই অরণ্যগুলো বাঁশ জাতীয় গাছে পূর্ণ। এই বাঁশ জাতীয় গাছের অরণ্য নানা কারণে পরিবেশের জন্যও খুবই উপকারী। মাটি ধরে থাকতে, জলের অভাব পূরণের ক্ষেত্রে আর জৈব বৈচিত্র্য সংরক্ষণের ক্ষেত্রেও।

গবেষক ভিনা বলেন, গবেষণা করার সময় তাঁরা দেখেছেন এই প্রচেষ্টা একদম ঠিক দিকেই এগিয়ে চলেছে, তা পরিবেশ আর মানবসভ্যতা সব ক্ষেত্রেই ভালো ফল দিচ্ছে। আরও বেশি সুফল পাওয়ার জন্য তাই এই জাতীয় প্রকল্পের কাজ আরও বেশি করে করা দরকার ।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here