নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: প্রচলিত শক্তির ব্যবহারের পরিবর্তে এবার সৌর বিদ্যুতেই হবে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় পঠনপাঠন। ইতিমধ্যেই তার কাজ প্রায় শেষ করেছে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অপ্রচলিত শক্তি বিষয়ক দফতরের(WBREDA) সহায়তায় এই সৌর বিদ্যুৎ পরিষেবা পাচ্ছে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলাপবাগ ক্যাম্পাস। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে  এর জন্য মোট ৮৪.৫ লক্ষ টাকা খরচ করা হয়েছে। আপাতত বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পসিট বিল্ডিং, ইংরেজি, সমাজবিজ্ঞান, বাংলা সহ একাধিক বিভাগ সম্পুর্ণ সৌর বিদ্যুতেই পঠন পাঠন চালাবে।  সেই কাজ শেষ পর্যায়। এখানে মোট ১০০ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ  উৎপন্ন হবে। যার জন্য দুটি বিল্ডিংয়ের ছাদে সোলার প্যানেল বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য ষোড়সিমোহন দাঁ বলেন, “এটা খুবই ভালো একটা প্রজেক্ট, এর মাধ্যমে আমরা ১০০ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ বাঁচাতে পারবো, পরিবেশের উপর চাপ কমবে”।

পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীরাও খুশি। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক নন্দী বলেন, “অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের একটা আলদা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রয়েছে। এই প্রজেক্টের দ্বারা আমরা ইকো ফ্রেন্ডলি ক্যাম্পাস পাবো । পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে সক্ষম হব। এই বছরের মধ্যেই এই বিদ্যুৎ আমরা ব্যবহার করতে পাড়ব। আশা করি আগামী দিনে সমগ্র বিশ্ববিদ্যালয়ই অপ্রচলিত বা অচিরাচরিত সৌর বিদ্যুতে সচল হবে”।

আরও পড়ুন: সৌরশক্তি, বায়ুশক্তিতে জ্বলছে আলো, পথ দেখাল চালতাবাগানের পুজো

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here