Connect with us

কলকাতা

ঐতিহ্যের হৈমন্তীপর্ব: বটকৃষ্ণ পাল পরিবারের জগদ্ধাত্রীপুজোর ১২১ বছর

পাল পরিবারের জগদ্ধাত্রী প্রতিমার বিশেষত্ব হল, বাহন সিংহের পিঠে মা দু’ পা মুড়ে বাবু হয়ে বসে আছেন। মায়ের সঙ্গে রয়েছেন তাঁর চার সখী।

Published

on

পালবাড়িতে জগদ্ধাত্রী পুজো।

শুভদীপ রায় চৌধুরী

কলকাতার বেনিয়াটোলা স্ট্রিটে পাল পরিবারের জগদ্ধাত্রীপুজো ১২১ বছরে পড়ল। ১৩০৭ বঙ্গাব্দে তথা ১৯০০ খ্রিস্টাব্দে এই পুজো শুরু করেছিলেন এই পরিবারের বিখ্যাত মানুষ বটকৃষ্ণ পাল।      

পাল পরিবারের আদি নিবাস হাওড়া শিবপুরে। ১৮৩৫ খ্রিস্টাব্দে বটকৃষ্ণ পাল সেখানে জন্মগ্রহণ করেন। পরবর্তী কালের প্রথিতযশা এই পুরুষটি ১২ বছর বয়সে কলকাতায় মামার বাড়িতে চলে আসেন। একটু বড়ো হয়ে ব্যবসা শুরু করেন। কালক্রমে সেই ব্যবসা বৃহৎ মহীরুহের আকার ধারণ করে। প্রখ্যাত ওষুধ ব্যবসায়ী ও প্রস্তুতকারক হিসাবে তাঁর নাম ও যশ দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ে। তিনি প্রতিষ্ঠা করেন ‘বটকৃষ্ণ পাল অ্যান্ড কোং’।

Loading videos...
পালবাড়িতে চলছে পুজোর আয়োজন।

বটকৃষ্ণ পাল মহাশয় ১৮৯৩ খ্রিস্টাব্দে ৭৭ বেনিয়াটোলা স্ট্রিটে জমি কিনে তাঁর সুবৃহৎ বসতবাড়ি নির্মাণ করেন। ওই বাড়িতে এক সুরম্য সুন্দর কারুকার্যখচিত ঠাকুরদালান তৈরি করেন। এই ঠাকুরদালানেই ১৩০৭ বঙ্গাব্দে মহাসমারোহে জগদ্ধাত্রীমাতার পুজো শুরু হয়।

এই পুজো করার আগে শিবপুরে বটকৃষ্ণ পালের পরিবারে অভয়া দুর্গামাতার পুজো হত। বটকৃষ্ণবাবুর ইচ্ছা ছিল বেনিয়াটোলার বসতবাড়িতে শিবপুরের অভয়া মায়েরই পুজো করার। কিন্তু তাঁর উত্তরপুরুষদের মুখে জানা যায়, বটকৃষ্ণ পালের স্ত্রীকে মা স্বপ্নাদেশে জানান, তিনি শিবপুরের আদি বাড়িতেই পুজো পেতে চান এবং আদেশ করেন বেনিয়াটোলার বাড়িতে মা দুর্গার আরও এক রূপ পদ্মাসীনা জগদ্ধাত্রীর পুজো করতে।

মায়ের আদেশে বটকৃষ্ণ পাল মহাশয় আজীবন ৭৭ বেনিয়াটোলা স্ট্রিটের বসতবাড়িতে জগদ্ধাত্রীপুজো করে গেছেন। পরবর্তী প্রজন্মও নিষ্ঠাভরে সেই ঐতিহ্য ধরে রেখে পুজো করে আসছে। এ বছর এই পুজো ১২১ বছরে পদার্পণ করল।

পাল পরিবারের জগদ্ধাত্রী প্রতিমার বিশেষত্ব হল, বাহন সিংহের পিঠে মা দু’ পা মুড়ে বাবু হয়ে বসে আছেন। মায়ের সঙ্গে রয়েছেন তাঁর চার সখী। মাকে স্বর্ণালংকারে ভূষিত করা হয়। মায়ের সাজসজ্জা আগে ঢাকা থেকে শিল্পী এনে তৈরি করানো হত। এখন কলকাতার শিল্পীরাই তৈরি করেন। আকন্দ তুলোর ছোটো ছোটো আঁশ বের করে মায়ের বাহন সিংহের সর্বাঙ্গে আঠা দিয়ে গায়ের লোম হিসাবে লাগানো হয়, যা শৈল্পিক সুষমামণ্ডিত। ঠাকুরের পিছনে থাকে ধাতুনির্মিত বাহারি পাতা ও দৃষ্টিনন্দন ফল-শোভিত এক অনন্য চালচিত্র।

চার সখী পরিবৃতা মা জগদ্ধাত্রী সিংহের পিঠে দু’ পা মুড়ে বাবু হয়ে বসে।

দিনে তিন বার পুজো ছাড়াও হয় সন্ধিপুজো। তাতে আধ মণ চালের নৈবেদ্য, গোটা ফল, ১০৮ পদ্ম ও প্রদীপ নিবেদন করা হয়। দেবীর নিরঞ্জনের সময় লরিতে চৌকির ওপর চালচিত্র সমেত সখী-সহ মাকে অধিষ্ঠিত করা হয়। বিসর্জনের সময় শোভাযাত্রা আরও এক ঐতিহ্য। এই ভাবে পালবাড়িতে প্রাচীন ধারামতেই আজও পুজো পেয়ে আসছেন মা জগদ্ধাত্রী ।

তবে এ বছর করোনা ভাইরাসের কারণে সাধারণ দর্শনার্থী থেকে শুরু করে আত্মীয়স্বজনকেও আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে না। এ বছর দেবীপ্রতিমার উচ্চতাও কমানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্য অভিরূপ পাল। এমনকি কুমারীপুজোয় যিনি সংকল্প করবেন তিনিই কেবলমাত্র পুজোর নিয়ম পালন করবেন।

ঠাকুরদালানে দূরত্ববিধি মেনে চলতে হবে এবং মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। মহামারির কারণে এ বছর সিঁদুরখেলা ও দশমীর শোভাযাত্রা বন্ধ থাকছে। মায়ের পুজোর সামগ্রী এবং ফুল-সহ সমস্ত দ্রব্য জীবাণুমুক্ত করা হবে। তবে সব প্রাচীন রীতিনীতি মেনেই পুজোর আয়োজন করা হবে জানিয়েছেন পালবাড়ির সদস্যরা।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

ঐতিহ্যের হৈমন্তীপর্ব: শান্তিপুরের ব্রহ্মচারী পরিবারের সোয়া শ’ বছরের জগদ্ধাত্রীপুজো

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

কলকাতা

মাঝেরহাটে সেতুর জন্য রাজ্যের কাছ থেকে ৩৪ কোটি টাকা নিয়েছে রেল, পারলে ফেরত দিক: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রায় দু’বছর তিন মাস পরে উদ্বোধন হল নতুন করে তৈরি এই চার লেনের ব্রিজের।

Published

on

কলকাতা: মাঝেরহাটে রাজ্যের প্রথম কেবল স্টেড রেল ওভার ব্রিজের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার নতুন এই ‘জয় হিন্দ’ ব্রিজের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী জানান, রেল ‘নাটক’ না করলে আরও ন’মাস আগেই কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যেত।

২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর মাঝেরহাট ব্রিজের (Majherhat bridge) একাংশ ভেঙে পড়ে। প্রায় দু’বছর তিন মাস পরে উদ্বোধন হল নতুন করে তৈরি এই চার লেনের ব্রিজের। বিপর্যয়ের ঘটনার স্মৃতি তুলে ধরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “মাঝেরহাটের ব্রিজ বিপর্যয়ের কথা এখনও মনে পড়ে। সে দিন আমি দার্জিলিংয়ে ছিলাম। তৈরির সময় ভুল পরিকল্পনার ফলে ব্রিজ ভেঙেছিল। আমরা দ্রুত গতিতে কাজ শুরু করেছিলাম। উদ্ধারকাজে এখানকার স্থানীয় মানুষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন, তাঁদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ”।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এই ব্রিজটা আগের থেকেও আরও বেশি ভালো হয়েছে”। ব্রিজ সংক্রান্ত কমিটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বাংলায় প্রচুর ব্রিজ রয়েছে। কিন্তু আমরা যখন ক্ষমতায় এলাম, তখন দেখলাম, ব্রিজগুলির কোনো অডিট করানো হয়নি। সেগুলোর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে হয়। মাটির উপর মাটি চাপা দিয়ে কয়েকটা দিন চলতে পারে। কিন্তু এক দিন তা ভেঙে পড়ে যায়। আমরা সমস্ত দিক বিবেচনা করে সমস্ত ব্রিজের স্বাস্থ্য দেখভাল করতে একটি কমিটি গড়েছি। এর আগে হাওড়ায় বিবেকানন্দ সেতু ভেঙে পড়ে গিয়েছিল। টালা ব্রিজেও অনেক দিন আগের। ওই ব্রিজ নিয়ে আমরা আগাম ব্যবস্থা নিয়েছি”।

Loading videos...
[উদ্বোধনী ভাষণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়]

পাশাপাশি নতুন ব্রিজ তৈরির অনুমোদন দিতে রেলের গড়িমসি নিয়ে অভিযোগ করেন মমতা। তিনি বলেন, “করোনাভাইরাস মহামারির জন্য তিন মাস কাজ হয়নি। কিন্তু আরও ন’মাস আগে এই ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যেত। রেলের নাটকের জন্য কাজে বিলম্ব হয়েছে। রেল অনুমতি দিলে আরও ন’মাস আগেই ব্রিজে যান চলাচল শুরু হয়ে যেত”।

নাম না করে বিজেপি নেতৃত্বকে নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, “রেলের অফিসারদের দোষ দেব না। দিল্লিতে বসে যে সব নেতারা কলকাঠি নেড়ে ব্রিজের অনুমোদন দিতে দেরি করেছেন, এই দোষ তাঁদের”।

ব্রিজের অনুমোদন দেওয়ার জন্য রাজ্যের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে রেল। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, “এই ব্রিজের অনুমতি দেওয়ার জন্য রেল আমাদের কাছ থেকে ৩৪ কোটি টাকা নিয়েছে। কেন নিয়েছে, তার জবাব কে দেবে? রাজ্যের টাকায় এই ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। ৩১১.৭৬ কোটি টাকা খরচ করেছে রাজ্য সরকার। রেল কার নির্দেশে টাকা নিয়েছে। খরচ করব আমরা, নাম কিনবে ওরা। পারলে সেই টাকা ফেরত দিক। ওই টাকায় রাজ্যের উন্নয়ন হবে”।

আরও পড়তে পারেন: দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য ট্যাব-সহ একগুচ্ছ ঘোষণা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Continue Reading

কলকাতা

আজ মাঝেরহাট ব্রিজের উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রায় দু’বছর তিন মাস পরে উদ্বোধন হচ্ছে নতুন করে তৈরি এই চার লেনের ব্রিজের।

Published

on

মাঝেরহাটের নির্মীয়মান সেতু। ফাইল ছবি

কলকাতা: বৃহস্পতিবার নতুন করে তৈরি মাঝেরহাট ব্রিজের উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। নতুন ব্রিজের নামকরণ হয়েছে ‘জয়হিন্দ ব্রিজ’ (Jai Hind bridge)।

২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর মাঝেরহাট ব্রিজের (Majherhat bridge) একাংশ ভেঙে পড়ে। প্রায় দু’বছর তিন মাস পরে উদ্বোধন হচ্ছে নতুন করে তৈরি এই চার লেনের ব্রিজের। নতুন এই ব্রিজ তৈরি করতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ২৫০ কোটি টাকা।

পূর্ত দফতর সূত্রে খবর, এর দৈর্ঘ্য প্রায় ৬৫০ মিটার। সেতুর ২২৭ মিটার অংশ ধাতব কেবলের সাহায্যে ঝুলন্ত। নতুন ব্রিজ ভার নিতে পারবে ৩৮৫ টন। সেতুর ভার কখন কেমন, তা পরিমাপের জন্য বসানো হয়েছে বিশেষ ধরনের সেন্সর। গাড়ি চলাচলের সময় অতিরিক্ত ভার হলেই সেন্সর জানান দেবে।

Loading videos...

প্রসঙ্গত, বছর দুয়েক আগে আচমকাই ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ। ভেঙে পড়ার নতুন ব্রিজ নির্মাণ শুরু হয়। তবে মাঝখানে রেল-রাজ্য চাপানউতোর এবং করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ হতে বাড়তি সময় লেগেছে বলে ঘটনায় প্রকাশ।

আজ বিকেলেই ব্রিজের উদ্বোধন হয়ে যাওয়ার পর চালু হতে পারে যান চলাচল। ফলে দক্ষিণ কলকাতার একটা বড়ো অংশের মানুষকে গত দু’বছর ধরে যে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছিল, তার অবসান হবে।

গত মঙ্গলবার নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, “আগামী ৩ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার), বিকেল ৫টায় উদ্বোধন হবে নতুন করে তৈরি মাঝেরহাট ব্রিজের। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মাঝেরহাট ব্রিজের নাম পাল্টে হচ্ছে ‘জয়হিন্দ ব্রিজ”।

একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আপনারা জানেন, কলকাতা পুরসভার প্রত্যেকটি কমিউনিটি সেন্টারের নাম রাখা হয়েছে ‘জয়হিন্দ’। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর চিন্তাধারায় আমরা এই স্লোগানকে এগিয়ে নিয়ে যাব”।

আরও পড়তে পারেন: ‘ভাইপো’কে কেন ভয়?

Continue Reading

কলকাতা

বদলাচ্ছে কলকাতা মেট্রোর সময়সূচি, ই-পাসের নিয়মেও পরিবর্তন

৭ ডিসেম্বর থেকে বাড়ছে কলকাতা মেট্রো চলাচলের সময়সীমা!

Published

on

কলকাতা মেট্রো। ফাইল ছবি

কলকাতা: আগামী সোমবার (৭ ডিসেম্বর) থেকে বদলে যাচ্ছে কলকাতা মেট্রোর (Kolkata metro) সময়সূচি, একই সঙ্গে পরিবর্তন হচ্ছে ই-পাসের (e-pass) নিয়মেও।

মেট্রো সূত্রে খবর, আগামী সোমবার থেকে দু’টি প্রান্তিক স্টেশন কবি সুভাষ এবং নোয়াপাড়া থেকে সকাল ৭টায় ছাড়বে প্রথম মেট্রো। পাশাপাশি পরিবর্তন হচ্ছে শেষ মেট্রো ছাড়ার সময়েও। নোয়াপাড়া অথবা দমদম স্টেশন থেকে শেষ মেট্রো ছাড়বে রাত ৯.২৫টায়।

কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) কারণে এখন শুধুমাত্র ই-পাসের মাধ্যমেই মেট্রোয় যাতায়াত করতে পারেন সাধারণ যাত্রীরা। মেট্রোয় যাতায়াতের সম্ভাব্য সময় দিয়ে আগে থেকেই অনলাইনে স্লট বুকিং করতে মেট্রোর ই-পাস সংগ্রহ করতে হয়। স্টেশনের প্রবেশপথে যেটি দেখানো বাধ্যতামূলক। যা নিয়ে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

Loading videos...

প্রবীণ এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি শিথিল করা হয়েছে। যে কোনো সময়েই তাঁদের ই-পাস লাগবে না। ১৫ বছরের কম বয়সিদের জন্য ই-পাস লাগবে না। আবার স্কুলের পরিচয়পত্র দেখিয়েও মেট্রোয় চড়তে পারবে পড়ুয়ারা। সকাল ৭টা থেকে ৮টা ও রাত ৮টার পরে মেট্রোতে উঠলে কোনো যাত্রীরই ই-পাসের প্রয়োজন পড়বে না।

শুধু তাই নয়, ওই দিন থেকেই রেকের সংখ্যাও বাড়ছে। অতিরিক্ত ১৪টি রেককে কাজে লাগানো হবে ওই দিন থেকে। ফলে এখন যেখানে সারা দিনে ১৯০টি মেট্রো চলছে, সোমবার থেকে তা বেড়ে দাঁড়াবে ২০৪।

আরও পড়তে পারেন: ‘প্রাণ গেলেও কিছু যায়-আসে না’, ভ্যাকসিন নিয়ে বললেন ফিরহাদ হাকিম

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল8 hours ago

মরশুমের প্রথম জয় বেঙ্গালুরুর, প্রথম হার চেন্নাইয়ের

রাজ্য10 hours ago

দুয়ারে সরকার: চার দিনেই ৭৫৮টি ক্যাম্পে ১৪ লক্ষ উপস্থিতি

রাজ্য10 hours ago

কলকাতায় সক্রিয় রোগী ৬ হাজারের নীচে, রাজ্যে নতুন সংক্রমণে ব্যাপক পতন

Vijay Mallya
বিদেশ11 hours ago

ফ্রান্সে বিজয় মাল্যের ১৪ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি

দেশ11 hours ago

হায়দরাবাদে উত্থান বিজেপির, ইস্তফা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির!

দেশ12 hours ago

হায়দরাবাদ পুরভোটে টিআরএস বৃহত্তম দল হলেও পোক্ত বিজেপির ভিত!

দঃ ২৪ পরগনা12 hours ago

সুন্দরবনের মৎস্যজীবীদের বিকল্প কাজ-সহ একাধিক দাবিতে চিতুরি বন দফতরে ডেপুটেশন

দেশ13 hours ago

মঙ্গলবার ভারত বন্‌ধের ডাক দিলেন আন্দোলনরত কৃষকরা

কেনাকাটা

কেনাকাটা21 hours ago

পোর্টেবল গিজারের ওপর বিশেষ ছাড় বেশ কয়েকটি মডেলে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীতকাল মানেই কনকনে ঠান্ডায় উষ্ণ জলের প্রয়োজন। সেই গরম জলের প্রয়োজন মেটাতে পারে গিজার। অ্যামাজনে কয়েক ধরনের...

কেনাকাটা4 days ago

ব্র্যান্ডেড কোম্পানির ইমারশন রডে ২ বছর পর্যন্ত ওয়ার‍্যান্টি পাওয়া যাচ্ছে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীতকালে গরম জলে স্নান করার মজাই আলাদা। জল গরম করার জন্য কি ওয়াটার হিটার খুঁজছেন? কিনতে পারেন...

কেনাকাটা1 week ago

৫০০ টাকার মধ্যে অত্যাধুনিক হেডফোন

খবর অনলাইন ডেস্ক: হেডফোন খারাপ হয়ে গেছে? সস্তায় নতুন ধরনের হেডফোন খুঁজছেন? হেডফোনের কয়েকটি অত্যাধুনিক কালেকশন রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা1 week ago

শীতের নতুন কিছু আইটেম, দাম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীত এসে গিয়েছে। সোয়েটার জ্যাকেট কেনার দরকার। কিন্তু বাইরে বেরিয়ে কিনতে যাওয়া মানেই বাড়ি এসে এই ঠান্ডায়...

কেনাকাটা1 week ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা2 weeks ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা1 month ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

নজরে