রথযাত্রা স্পেশ্যাল: আলুর পাঁপড়

0
alupapad
আলু পাঁপড় প্রতীকী ছবি
ila-das
ইলা দাস

রথযাত্রা মানেই পাঁপড়ভাজা। আজকাল নানান রকমের পাঁপড় বাজারে পাওয়া যায়। তবে বাজার থেকে কিনে খাওয়ার থেকে এই বিশেষ দিনটিতে যদি পাঁপড় বাড়িতে বানিয়ে খাওয়া যায় তা হলে তার স্বাদ আর আনন্দ, দু’টিই অনেক বেড়ে যায়। তাই রথযাত্রা স্পেশ্যাল হিসাবে রইল বাড়িতে পাঁপড় বানানোর পদ্ধতি।

প্রথমেই উপকরণ –  ৫০০ গ্রাম আলু, অল্প পরিমাণ ময়দা, স্বাদমতো নুন, লঙ্কা গুঁড়ো সামান্য পরিমাণ অথবা গোলমরিচ গুঁড়ো, কালো জিরে, তেল।

এ বার পদ্ধতি – প্রথমেই আলুগুলি সেদ্ধ করে নিতে হবে। সেদ্ধ আলুর খোলা ছাড়িয়ে নিতে হবে। এর পর আলুসেদ্ধ মাখার মতো করে চটকে মেখে নিতে হবে। আলুতে নুন, লঙ্কা গুঁড়ো অথবা গোলমরিচ গুঁড়ো, কালো জিরে এবং সামান্য ময়দা দিয়ে মাখতে হবে। সামান্য আটাও দেওয়া যায়। তাতে বেশ আঠালো হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে মণ্ডটি খুব শক্ত বা খুব নরম যেন না হয়।

আরও পড়ুন – রমজান স্পেশাল রেসিপি: পাউরুটির গোলাপজাম বা ব্রেড গুলাবজামুন

এর পর হাতের তালুতে সামান্য তেল মেখে নিতে হবে। তার পর আলুর মণ্ড থেকে ছোটো ছোটো বলের আকারের লেচি কেটে রাখতে হবে। তার পরই আসল কাজ, তা হল নেচির বলগুলিকে বেলে পাঁপড় বানানো। তার জন্য ফয়েল বা পলিথিন ব্যবহার করা যেতে পারে। চাকির ওপর ফয়েল বা পলিথিন পেতে নিন। তার পর সামান্য তেল মাখিয়ে নিন। তবে লক্ষ করতে হবে যেন অতিরিক্ত তেল না হয়ে যায়। তার পর একটি বল নিয়ে তার ওপর আরও একটি তেল মাখানো ফয়েল বা পলিথিন চাপা দিয়ে হাতের তালুর চাপে তা চ্যাপটা করে নিতে হবে। তার পর বেলুন দিয়ে বেলে পাতলা লুচির মতো করে ফেলতে হবে। তবে এই লুচিগুলি খুবই পাতলা করে বেলতে হবে। যতটা সম্ভব। এই ভাবে সব ক’টি পাঁপড় বেলে নিতে হবে।

বেলার কাজ শেষ। এই বার শোকানোর পালা। তার জন্য রোদে দিতে হবে পাঁপড়গুলিকে। রোদে দেওয়ার সময় বড়ো থালা বা পলিথিন ব্যবহার করা যেতে পারে। তাতে অবশ্যই সামান্য তেল মাখিয়ে নিতে হবে যাতে করে আটকে না যায়। তার ওপর বেলাগুলি দিয়ে শুকোতে হবে। বেশ মড়মড়ে হয়ে দুই পিঠ শুকিয়ে গেলে তুলে রাখতে হবে।

তার পর গরম তেলে বাড়িতে বানানো পাঁপড় মুচমুচে করে ভেজে পরিবেশন করতে হবে। ব্যাস জমে যাবে রথযাত্রার খাওয়া দাওয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here