কোচবিহার: গত বছর মোট ব্যবসা হয়েছিল ৫০ কোটি টাকার। বছর ঘুরতেই সেই ব্যবসার অঙ্ক দ্বিগুণ। কোচবিহারের রাসমেলায় এ বার প্রায় একশো কোটি টাকার বিক্রিবাটা হয়েছে। ২০৬ বছরের পুরোনো রাসমেলায় এটা সর্বকালীন রেকর্ড। এর ফলে খুশি মেলার উদ্যোক্তারা। রবিবার মেলার শেষ দিনই বিক্রি হয়েছে দশ কোটি টাকার মতো।

প্রত্যেক বছরই মেলায় ব্যবসা-বাণিজ্য কিছুটা হলেও বাড়ে। কিন্তু গত বছরের থেকে এ বছর ব্যবসা দ্বিগুণ হয়ে গেল কী ভাবে? প্রথম দিন থেকেই এ বার মেলায় থিকথিকে ভিড় ছিল, সেই কারণেই ব্যবসা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। এই প্রসঙ্গে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “এ বারে রাসমেলা প্রথম দিন থেকেই জমে উঠেছে। প্রচুর মানুষও ভিড় করে। তাই বিক্রি অনেক হয়েছে। মানুষ আনন্দ উপভোগ করতেও পেরেছেন।”

আরও পড়ুন বসে আঁকো প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে বেজে গেল জয়পুর পর্যটন উৎসবের দামামা

২২ নভেম্বর শুরু হয়েছিল রাসমেলা। এ বার আড়াই হাজার স্টল ছিল মেলায়। বাংলাদেশ থেকেও মেলামাইন, শাড়ির পসরা নিয়ে হাজির হয়েছিলেন দোকানিরা। জামাকাপাড় ও খাবারের দোকানে বিক্রি সব থেকে বেশি হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

কোচবিহারের রাসমেলা নিয়ে উন্মাদনা বরাবর। জেলা তো বটেই, বাইরের থেকে বহু মানুষও মেলা দেখতে এই সময় কোচবিহারে হাজির হন। এই মেলাকে ঘিরেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন কোচবিহারের সাধারণ মানুষ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here