indo-sino

বেজিং: বৃহস্পতিবারই মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রস্তাবে বাধা দিয়েছিল চিন। তার পরের দিনই ভারতের উদ্দেশে বন্ধুত্বের বার্তা দিল তারা। ভারতকে ‘গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী’ আখ্যা দিয়ে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত করার কথা বলল চীন।

শুক্রবার একটি সাংবাদিক সম্মেলনে চিনের বিদেশনীতি নিয়ে বক্তব্য রাখছিলেন সে দেশের সহকারী বিদেশমন্ত্রী চেন ঝিয়াডং। সেখানে তিনি বলেন, “ভারত, চিনের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী। ভারতের সঙ্গে চিনের সম্পর্ক অনেক দৃঢ়। এই সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।”

বিদেশনীতি নিয়ে বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন যে দু’দেশের মধ্যে বন্ধুত্ব, আন্তরিকতা এবং সহযোগিতাকে গুরুত্ব দেয় চিন। তাঁর কথায়, “বেশ কয়েক বছর ধরেই প্রতিবেশীদের সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার জন্য আমরা এই নীতি মেনেই চলি। এর ফলে আমাদের মধ্যে বিশ্বাসের বাতাবরণ আরও গভীর হয়।”

উল্লেখ্য বৃহস্পতিবারই মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে যে প্রস্তাব পেশ করেছিল রাষ্ট্রপুঞ্জ, তার ওপর ভেটো দেয় চিন। তবে বাধা দেওয়ার যুক্তি হিসেবে পাকিস্তানের সঙ্গে সুসম্পর্ক নয়, বরং ‘প্রমাণের অভাব’-এর কথাই বলে বেজিং। গত এক বছরে আজহারকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাবে বারবার বাধা দিয়েছে চিন।

চিনের এই পদক্ষেপে হতাশা প্রকাশ করেন ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রভিশ কুমার। তিনি বলেন, “আমরা আবার হতাশ হয়ে গেলাম। মাত্র একটা দেশের জন্য একজন জঙ্গিকে নিষিদ্ধ করা গেল না।”

কখনও ডকলাম, তো কখনও মাসুদ আজহার, এর মধ্যেই বন্ধুত্বের বার্তা। এর থেকে এটাই প্রমাণিত হয় যে ভারত এবং চিনের মধ্যে সম্পর্ক নরমে-গরমেই এগিয়ে যাবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here