পোর্ট এলিজাবেথ: একটা সময়ে মনে হচ্ছিল খুব সহজেই তিনশো পেরিয়ে যাবে ভারত। ৩৫ ওভারে দুশো পেরিয়ে ভারতের স্কোর এগোচ্ছিলও ঝড়ের গতিতে। দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে তাঁর প্রথম শতরান করে ভারতের স্কোরকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন রোহিত শর্মা। কিন্তু রোহিত আউট হতেই ব্রেক কষে গেল ভারতের ইনিংসে। শেষ পনেরো ওভারে এল মাত্র ৭৪।

ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিশতরান করে দক্ষিণ আফ্রিকায় এসেই মুখ থুবড়ে পড়েছিলেন রোহিত। টেস্ট সিরিজে পর একদিনের সিরিজে প্রথম চারটে ম্যাচেও রান আসেনি তাঁর ব্যাটে। শুরু হয়ে গিয়েছিল সমালোচনা। সমালোচকদের বক্তব্য একটাই, দেশের বাইরে ব্যাট চলে না রোহিতের। এই সব সমালোচনার জবাব রোহিত দিলেন এদিন।

মঙ্গলবার টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। শুরু থেকেই সাবলীল ছিলেন রোহিত। তাঁকে ঘিরেই রান করেন ধাওয়ান এবং বিরাট। নিজের চিরাচরিত চার-ছক্কা মেরে ক্রমে নিজের ফর্মে ফিরে আসছিলেন রোহিত। এই ভাবেই পেরিয়ে গেলেন তাঁর কেরিয়ারের ১৭তম শতরান। ভারত তখন বিশাল স্কোরের দিকে এগোচ্ছে।

কিন্তু রোহিত আউট হতেই হঠাৎ করে স্লথ হয়ে গেল ভারতের রানের গতি। লুঙ্গি নগিডির স্পেলের মায়াজাল ভেদ করতে পারেনি ভারত। শ্রেয়স আয়ার, ধোনি, ভুবনেশ্বর কুমাররা চেষ্টা করেও বাড়াতে পারেনি ভারতের রান।

তবে পোর্ট এলিজাবেথের রেকর্ড বলে ভারত যে স্কোরটা বোর্ডে তুলেছে সেটাও যথেষ্ট ভালো। এই স্কোরেও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানো যেতে পারে। এখন দেখার দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করতে পারে কি না ভারত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here