আগরতলা: ফের খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক খুনের ঘটনা ঘটল ত্রিপুরায়। মাস দুয়েক আগেই উপজাতি সংগঠনের কর্মীদের হাতে খুন হয়েছিলেন সাংবাদিক শান্তনু ভৌমিক। এ বার ত্রিপুরা স্টেট রাইফেল্‌সের (টিএসআর) এক জওয়ানের গুলিতে খুন হলেন সুদীপ।

সুদীপ সান্দন পত্রিকা এবং নিউজ ভেন্ডার টিভি চ্যানেলে কর্মরত ছিলেন। ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে ওই পত্রিকার সম্পাদক সুবল দে বলেন, “আমার সহকর্মী সুদীপ দত্ত ভৌমিক এ দিন পূর্বনির্ধারিত সূচি মেনেই আরকে নগরে টিএসআরের দ্বিতীয় ব্যাটিলিয়নের কমান্ডান্টের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু কমান্ডান্টের অফিসে পৌঁছোনোর আগেই তাঁর সঙ্গে ওই কমান্ডান্টের পিএসও-এর বচসা হয়। এর পরেই সুদীপকে লক্ষ করে গুলি চালিয়ে দেয় ওই পিএসও। ঘটনাস্থলেই মারা যান সুদীপ।”

সুদীপের দেহ ইতিমধ্যেই আগরতলায় নিয়ে আসা হয়েছে। অভিযুক্ত ওই জওয়ানকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর খুন হন শান্তনু। সে সময় অভিযোগ উঠেছিল উপজাতি সংগঠন আইপিএফটি সমর্থকদের বিরুদ্ধে। খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে শান্তনুকে পিটিয়ে, কুপিয়ে খুন করে আইপিএফটি সমথর্করা।

ক্যালকাটা জার্নালিস্টস ক্লাবের নিন্দা।

ত্রিপুরায় সাংবাদিক খুনের তীব্র নিন্দা করেছে ক্যালকাটা জার্নালিস্টস ক্লাব। ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাহুল গোস্বামী এ দিন এক বিবৃতিতে অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে্ন। একই সঙ্গে নিহত সাংবাদিকের পরিবারকে পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য ত্রিপুরা সরকারের কাছে আর্জি জানানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here