karni sena ahmedabad padmavat

অমদাবাদ: ঠিক এ রকম যে কিছু একটা হতে পারে সেটা আন্দাজ করা গিয়েছিল। সেটা আন্দাজ করেই রাজ্যগুলিকে নিরাপত্তাব্যবস্থা আরও আঁটোসাঁটো করারও নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। কিন্তু আটকানো গেল না। ‘পদ্মাবত’ মুক্তি পাওয়ার আগে অমদাবাদের তাণ্ডব চালালো কর্নি সেনা। অগ্নিসংযোগ করা হল শপিং মলে, জ্বালিয়ে দেওয়া হল গাড়ি।

মঙ্গলবার রাত ৮টার পর থেকেই তাণ্ডব শুরু করে কর্নি সেনা। শহরের পশ্চিমাংশে করা এই তাণ্ডবে তাদের প্রধান লক্ষ্য ছিল তিনটে শপিং মল এবং একমাত্র সিনেমাহলটি। তাণ্ডবের আশঙ্কা করেই শপিং মল এবং সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিল, ‘পদ্মাবত’ দেখানো হবে না। তবে তাণ্ডবকারীরা সেই সব কানে তোলেনি। তারা তাণ্ডব চালিয়ে মানুষের মধ্যে ভয় ঢুকিয়ে দেওয়াকেই শ্রেয় মনে করেছে।

‘অ্যাক্রোপলিস’, ‘অমদাবাদ ১’ এবং ‘হিমালয়া মল’, এই তিনটে শপিং মল এবং ‘সিনেমাক্স’ সিনেমা হলে তাণ্ডব চালায় কর্নি সেনার কর্মীরা। রেহাই পায়নি ওই মলগুলির সামনের দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ি এবং বাইকগুলি। গাড়ির জানলার কাচ ভাঙার পাশাপাশি আগুন লাগানো হয়েছিল বাইকগুলিতে।

ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি বলে জানিয়েছেন এক পুলিশ আধিকারিক। তাঁর কথায়, “সব মল থেকেই সবাইকে নিরাপদে বের করে এনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা আমাদের প্রাথমিক কর্তব্য ছিল। এ বার এই ঘটনার তদন্ত শুরু হবে।”

রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী নীতিন পটেল বলেছেন, “সরকার সবার কাছে আবেদন জানিয়েছে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য। যারা এই তাণ্ডব চালিয়েছে তারা কেউ রেহাই পাবে না।” পটেল আরও যোগ করেন, “গুজরাত সরকার এই সিনেমার ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল, কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট যখন রায় দিয়েছে, সিনেমাটি মুক্তি পাবেই। কোন হল এই সিনেমা দেখাবে কি দেখাবে না সেটা একমাত্র হল মালিকদের বিষয়।”

তবে ঘটনায় তারা জড়িত নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে কর্নি সেনা। সেনার গুজরাত শাখার প্রধান রাজ শেখাওয়াত বলেন, “এই ধরনের হিংসা অত্যন্ত নিন্দনীয়। কর্নি সেনার এতে কোনো হাত নেই।”

তবে অমদাবাদ ছাড়া দেশের আর কোথাও এই ধরনের গণ্ডগোলের খবর না পাওয়া গেলেও কেউ কোনো ঝুঁকি নিচ্ছে না। গুরুগ্রামে সব মল এবং সিনেমা হলের সামনে ১৪৪ ধারা জারি করে দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। অন্য দিকে রাজস্থান এবং উত্তরাখণ্ড বলেছে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার দিন সিনেমা হলগুলির জন্য বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here