rae bareilly blast

রায়বরেলি:  জাতীয় তাপবিদ্যুৎ কর্পোরেশনের (এনটিপিসি) বিদ্যুৎকেন্দ্রে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ১০০ জন। রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি অরবিন্দ কুমার এই খবর দিয়েছেন। এই দুর্ঘটনার পর বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বুধবার বিকেলে বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৫০০ মেগাওয়াট বিশিষ্ট ৬ নম্বর ইউনিটের বয়লার পাইপে এই বিস্ফোরণটি হয়। ঘটনার সময়ে অসংখ্য শ্রমিক ওইখানে কাজ করছিলেন। শেষ পাওয়া খবরে এখনও অনেক শ্রমিক ঘটনাস্থলে আটকে রয়েছেন। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। কিছু দিন আগেই বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করেছে এই ৬ নম্বর ইউনিট।

আটকে পড়া শ্রমিকদের উদ্ধারের জন্য ৩২ জনের এনডিআরএফ দলকে লখনউ থেকে দুর্ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনাস্থলে অনেক অ্যাম্বুল্যান্স পাঠানো হয়েছে। আহতদের দ্রুত চিকিৎসা করার জন্য জেলা স্বাস্থ্য অফিসারদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পুরো জায়গাটি সিআইএসএফ ঘিরে রেখেছে। এবং উদ্ধারকাজে সহায়তা করছে।

এ দিকে মরিশাস সফরে থাকা উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নিহতদের পরিবারপিছু দু’লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা করেছেন। পাশাপাশি স্বরাষ্ট্রসচিব-সহ স্বরাষ্ট্র দফতরের আধিকারিকদের ঘটনাস্থলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন যোগী। ঘটনাস্থলের কাছাকাছি থাকা সব হাসপাতালকেই সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি দুর্গতদের সাহায্যে এগিয়ে যাওয়ার জন্য রায়বরেলির কংগ্রেস নেতৃত্বকে নির্দেশ দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী।

রায়বরেলির উনছহরে ১৫৫০ মেগাওয়াট শক্তিসম্পন্ন এই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি ইন্দিরা গান্ধীর স্বামী ফিরোজ গান্ধীর নামে উৎসর্গ করা। ১৯৮৮ সালে এই বিদ্যুৎকেন্দ্রের ২১০ মেগাওয়াট শক্তিসম্পন্ন ৫টি ইউনিট উৎপাদন শুরু করেছিল। ৬ নম্বরটি একেবারে নতুন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here