narendra damodardas modi

নয়াদিল্লি: গুজরাত নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই কংগ্রেসকে আক্রমণ করার সুযোগ ছাড়ছেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এ বার তিনি বেছে নিলেন লৌহমানব সর্দার বল্লভভাই পটেলের জন্মদিনের মঞ্চকে।

সর্দার পটেলের জন্মদিন উপলক্ষে এ দিন দিল্লির ধ্যানচাঁদ স্টেডিয়ামে ‘একতার দৌড়’-এর (রান ফর ইউনিটি) সূচনা করেন মোদী। ওই মঞ্চে, সর্দার পটেলের অবদানকে অগ্রাহ্য করার নাম না করে ‘পূর্বতন সরকারকে’ একহাত নেন তিনি।

মোদী বলেন, “ভারত বৈচিত্রের দেশ। ‘বৈচিত্রের মধ্যে একতা’ আমাদের ধর্ম।” এর পর কংগ্রেসের নাম না করে তিনি বলেন, “মুষ্টিমেয় কিছু লোক সর্দার পটেলের অবদানকে ভুলে যেতে বাধ্য করিয়েছে। কিন্তু দেশের মানুষ সর্দার পটেলকে ভুলে যাননি। দেশকে গড়ে তোলার পেছনে সর্দার পটেলের অবদান মানুষ মনে রেখেছেন।”

পটেলের অবদানের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “স্বাধীনতা লাভ করার পর ভারত যে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল, নিজের দক্ষতা এবং দৃঢ়তার সাহায্যে সেই সমস্যার সমাধান করেছেন সর্দার পটেল।” তিনি আরও বলেন, “করদরাজ্য তুলে দেওয়ার পেছনে পটেলের অবদান অনস্বীকার্য।”

এর পর নিজের বক্তব্যে ঐক্যবদ্ধ ভারতের কথা বলেন মোদী। তাঁর কথায়, “ভারতের একতাকে রক্ষা করার দায়িত্ব সব নাগরিকের। তিনি কী ভাবে ভারতের একতা রক্ষা করেছেন, তা সব মানুষকে মনে রাখা উচিত। সেই জন্য তাঁর জন্মদিনকে ‘রাষ্ট্রীয় একতা দিবস’ হিসেবে পালন করা হচ্ছে।”

সর্দার পটেলের পাশাপাশি ৩৩তম মৃত্যুদিনে ইন্দিরা গান্ধীকেও স্মরণ করেন মোদী।

দেড় কিলোমিটারের দৌড়ে ক্রীড়াবিদ দীপা কর্মকার, সর্দার সিংহ, সুরেশ রায়না, কর্নম মালেশ্বরি ছাড়াও অংশগ্রহণ করেন অসংখ্য সাধারণ মানুষ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here