thundershowers rain in kolkata

কলকাতা: গত বছর ১০ ডিসেম্বর শেষ বার বৃষ্টি দেখেছিল কলকাতা। তার আড়াই মাস পর, রবিবার ফের বৃষ্টিতে ভিজল শহরের রাস্তা, কিছুটা ভিজল মানুষের মনও। তবে এই বৃষ্টিতে স্বস্তি সাময়িকই। আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে তবে তাপমাত্রা বিশেষ কমবে না।

গত কয়েক দিন ধরেই দক্ষিণবঙ্গে বাড়ছে তাপমাত্রা। এই বাড়ন্ত তাপমাত্রার সঙ্গে জলীয় বাষ্পের মিশেলে স্থানীয় ভাবে বজ্রগর্ভ মেঘের সৃষ্টি হয়ে বৃষ্টি যে হতে পারে, সেটা শনিবারই জানিয়েছিল খবর অনলাইন। সেই পূর্বাভাসকে সত্যি করেই রবিবার রাত দেড়টা নাগাদ ঝড়ের প্রথম স্বাদ পায় শহর।

তার আগে থেকেই, মানে রবিবার সব্ধে থেকেই দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। ঝড়ের সঙ্গে শিলাবৃষ্টি হয়েছে উত্তরবঙ্গেও। কলকাতার বৃষ্টি মানুষের মন সে ভাবে ভেজাতে পারেনি, রাস্তাই যা ভিজিয়েছে। গোটা শহর মিলিয়ে রবিবার বৃষ্টি হয়েছে গড়ে দুই থেকে তিন মিলিমিটার। ঝড়ের দাপটও আহামরি কিছু ছিল না। তবে মরশুমের প্রথম বৃষ্টি হিসেবে শুরুটা খারাপ হল না। দক্ষিণবঙ্গের মধ্যে রবিবার সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে মেদিনীপুরে (১৩ মিমি)।

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়াঙ্কা জানিয়েছেন, রবিবারের মতো বৃষ্টি সোমবার বিকেলের দিকেও হতে পারে, তবে এতে গরম কমার বিশেষ সম্ভাবনা নেই। তিনি বলেন, “অন্য বারের তুলনায় এ বার ফেব্রুয়ারিতে একটু বেশিই গরম থাকছে। আগামী কয়েক দিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠতে পারে।” পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা আরও বেড়ে ৩৮-এর কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে সেখানে বিক্ষিপ্ত ভাবে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে।

তবে উত্তরবঙ্গে এখনও শীত শীত ভাব বজায় থাকবে। রবিবারও সান্দাকফু অঞ্চলে তুষারপাত হয়েছে। শিলাবৃষ্টি হয়েছে উত্তরের বিভিন্ন জায়গায়। এই পরিস্থিতি আপাতত আগামী কয়েক দিন বজায় থাকবে বলে জানিয়েছেন রবীন্দ্রবাবু।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন