ওয়েবডেস্ক: হোম লোন বা গৃহ ঋণের পরিমাণ তুলনামূলক ভাবে আকারে অনেকটা বড়ো হয়। যে কারণে ঋণ গ্রহণকারী ব্যক্তিকে সুদের বোঝাও টানতে হয়ে অপেক্ষাকৃত বেশি। এ ক্ষেত্রে অনেকেই মাসিক আয়ের উপর ভিত্তি করে ব্যাঙ্ক বা অন্য কোনো হাউজিং ফিনান্স কোম্পানি (এইচএফসি) থেকে নিম্ন হারে সুদের উপর ঋণ পাওয়ার দিকেই বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তবে ওই ঋণপ্রদানকারী সংস্থাগুলি নিজেদের নির্ধারিত সুদের হারেই অনড় থাকে। কিন্তু পুরনো ঋণগ্রহীতাদের জন্য সুযোগ থেকেই যায়।

নতুন ঋণগ্রহীতারা এই সুযোগ না পেলেও যাঁদের ঋণ ইতিমধ্যেই নেওয়া হয়ে গিয়েছে তাঁরা ভিন্ন পথ অবলম্বন করতে পারেন। তাঁরা সংস্থা পরিবর্তন করতে পারেন। চালু ঋণ নতুন সংস্থায় স্থানান্তরিত করলে ঋণের হারেও রদবদল ঘটতে পারে।

দেখে নেওয়া যাক গুরুত্বপূর্ণ চারটি বিষয়-

এমসিএলআর-এ স্থানান্তর

আপনার গৃহঋণের সুদের হার হ্রাস করার জন্য, আপনি এমসিএলআর বা মার্জিনাল কস্ট অব ফান্ডস-বেস্‌ড লেন্ডিং রেট -এর অধীনে ঋণ পরিশোধের পথ নির্বাচন করতে পারেন। হোম লোন গ্রহীতা যদি এমসিএলআর নির্ধারিত ব্যবস্থার দিকে অগ্রসর হওয়ার কথা বিবেচনা করেন, তা হলে তিনি ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংকের সুদের হার নীতির সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। পুরনো পরিকাঠামো অনুয়ায়ী সুদের হারের থেকে এমসিএলআরের উপর ভিত্তি করে সময় নির্দিষ্ট সুদ প্রদান গ্রাহককে বেশি সুবিধা দেয় বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে এইচএফসিগুলি এখনও পর্যন্ত এমসিএলআরের অধীনে আসেনি। ফলে ওই ধরনের সংস্থায় যদি ঋণ নেওয়া থাকে গ্রাহক সহজেই কোনো ব্যাঙ্কে ওই ঋণ স্থানান্তরিত করে নিতে পারেন।

ওভারড্রাফট সুবিধা

গ্রাহক গৃহঋণ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে হোম লোন ওভারড্রাফট সুবিধাটি বেছে নিতে পারেন। এই সুবিধাটি গ্রাহককে স্বাভাবিক ইএমআই ছাড়াও গৃহঋণ অ্যাকাউন্টে নিজের হাতে থাকা অতিরিক্ত অর্থ জমা করার সুযোগ দেয়।

এই অতিরিক্ত জমা করা টাকা যতক্ষণ না তুলে নেওয়া হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত এটি প্রাক-পেমেন্ট হিসাবে গণ্য করা হয়। মাঝখান থেকে গৃহঋণ অ্যাকাউন্টে অতিরিক্ত পেমেন্ট জমা দিয়ে, নিজের দেওয়া সুদের পরিমাণ এবং ঋণের মেয়াদ কম করে নেওয়া যায়।

প্রিপেমেন্ট

গৃহঋণে প্রিপেমেন্ট সুবিধা নিতে হবে নিয়মিত। হাতে বাড়তি থাকা এলে প্রিপেন্টের সুবিধা নেওয়া যেতে পারে। এ ভাবে প্রিপেমেন্টের মাধ্যমে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে ইএমআই-ও কমে যাবে স্বাভাবিক অঙ্কেই।

মনে রাখবেন, আপনি যদি ফ্লোটিং-সুদের হারে হোম লোন নিয়ে থাকেন তবে ঋণদাতা কোনও পূর্বনির্ধারিত চার্জ ধার্য করে না। ফিক্সড রেট ঋণের ক্ষেত্রে নিশ্চিত নিশ্চিত হতে হবে যে প্রিপেমেন্টের মাধ্যমে সুদ অংশে সামগ্রিক ভাবে চার্জগুলি ধার্য হচ্ছে কি না।

অনলাইন সুবিধা

হোম লোনের সুদের আর জেনে নেওয়ার জন্য এখন অন্যতম মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে অনলাইন পরিষেবা। বিভিন্ন ব্যাঙ্ক অথবা আর্থিক সংস্থা অনলাইনে এই সুবিধা দিয়ে চলেছে। ফলে নিয়মিত অনলাইনে গৃহঋণের সুদের হারের তুলনামূলক আপডেট নজরে রাখতে হবে।

গ্রাহক কী সুদের হারে ঋণ পরিষোধ করছেন অথবা বাজার চলতি ঋণের হারটাই বা কী রকম, এই সমস্ত বিষয় নখদর্পণে রাখাটাই বাঞ্ছনীয়। বিভিন্ন ওয়েবসাইট, অনলাইন পোর্টাল রয়েছে যা বিভিন্ন ঋণদাতাদের সুদের হার, ফি এবং অন্যান্য চার্জগুলির সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করে। সুবিধাজনক মনে হলে ঋণ স্থানান্তর করার পথে এগনো যেতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here