Interactive session
(বাঁ দিক থেকে) দেব এ মুখার্জি, স্টিফেন ফিলিপ্‌স এবং ইনভেস্ট এইচকে-র ইন্ডিয়া টিমের কনসালট্যান্ট চার্লি ইদিকুল্লা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব প্রতিনিধি: ২০১৭ সালে হংকংয়ের সপ্তম বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার ছিল ভারত। ওই বছরই ভারতের পঞ্চম বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার হয় হংকং। কিন্তু চিন-মার্কিন দ্বন্দ্বে পরিস্থিতি পালটেছে। পরিবর্তিত পরিস্থিতি কি ভারত-হংকং বাণিজ্য সম্পর্কে প্রভাব ফেলতে পারে? মঙ্গলবার বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিতে সেই প্রশ্নের উত্তর দিলেন হংকং সরকারের বিনিয়োগ সংক্রান্ত সংস্থা ইনভেস্ট এইচকে-র ডিরেক্টর জেনারেল স্টিফেন ফিলিপ্‌স।

চিন-মার্কিন দ্বন্দ্ব যে বাণিজ্যে প্রভাব ফেলছে তা স্বীকার করে নিয়ে ফিলিপ্‌স জানালেন, ‘‘হংকংয়ে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এই দ্বন্দ্ব সে ভাবে কোনো প্রভাব ফেলবে না। যদি এর প্রভাবে কোনো সমস্যা তৈরি হয়, তবে তার সম্ভাবনা চিনের মূল ভূখণ্ডে।’’

ফিলিপ্‌সের মতে, ‘‘হংকংয়ের মুক্ত বাণিজ্যের পরিবেশ চিনের মূল ভূখণ্ডে আন্তর্জাতিক ব্যবসায়ী সংস্থাগুলিকে অনেকটাই সাহায্য করে। কারণ এখানে দু’টি আইন কাজ করে। হংকংয়ের জন্য একটি, বাকি অংশের জন্য চিনের নিয়ম।’’

আরও পড়ুন ডিজিট্যাল যুগে শিক্ষার বহুমাত্রিকতা খুলে দিতে পারে সাফল্যের দিগন্ত

বিনিয়োগ-বান্ধব সরকারও বিনিয়োগে উৎসাহ দেওয়ার জন্য লাল ফিতের ফাঁস মুক্ত পরিবেশ তৈরি করেছে। বিনিয়োগকারীদের জন্য সব চেয়ে উৎসাহের জায়গা হল, সেখানে করের হার কম এবং ঝামেলাহীন। ফলে হংকংকে ব্যবহার করে বহু সংস্থা এশিয়ার দেশগুলিতে ব্যবসা পরিচালনা করে থাকে।

একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৮৭৫৪টি কোম্পানির মধ্যে ৩৯৫৫টি কোম্পানি হংকংয়ে ভিত্তি করে এশিয়ার অন্যান্য দেশে ব্যবসা করে।

হংকংয়ের জিডিপির ৯০ শতাংশ আসে অসামরিক বিমান পরিষেবা, জাহাজ শিল্প, পর্যটন শিল্প, বিভিন্ন শিল্প সংক্রান্ত পরিষেবা, ব্যাঙ্ক এবং অন্যান্য আর্থিক পরিষেবা ক্ষেত্রগুলি থেকে। ২০১৭ সালে মোট কর্মসংস্থানের ৮৮ শতাংশ এসেছে এই সেকটরগুলি থেকে।

অনেক সময় দেখা গিয়েছে, হংকংয়ে ব্যবসা করার জন্য আবেদনকারীদের আবেদন বাতিল হয়ে গিয়েছে। ফিলিপ্‌স আশ্বাস দেন আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এই ধরনের বিরোধগুলির নিষ্পত্তি করবে ইনভেস্ট এইচকের মুম্বইয়ের অফিস।

বেঙ্গল চেম্বারের সিনিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট দেব এ মুখার্জি বলেন,  ‘‘হংকং এবং চিনের মূল ভূখণ্ডে যে ব্যবসার সুযোগ রয়েছে তা আগ্রহী ব্যবসায়ীরা গ্রহণ করবেন। সেই সম্ভাবনা ভালো করে জানা-বোঝার জন্যই এই আলোচনা।’’

[শিল্প-বাণিজ্য সংক্রান্ত সব খবর পড়তে ক্লিক করুন এখানে]

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here