rahul and modi
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবডেস্ক: সপ্তদশ লোকসভার টানটান উত্তেজনার মতোই এ দেশের শেয়ার বাজারেও নিত্যদিনের উত্থান-পতন লেগেই রয়েছে।

টানা ছ’দিন ধরে ভারতীয় শেয়ার বাজারের ৫০ স্টকের সূচক নিফটি নিম্মমুখী। গত মঙ্গলবার ১১,৫৫০ পয়েন্ট থেকে ক্রমাগত নিম্নমুখিনতা বজায় রেখে বুধবারেও খুইয়েছে ১৩৮ পয়েন্ট। শতাংশের বিচারে এ দিন ১.২ শতাংশ হারিয়ে নিফটি থিতু হয়েছে ১১,৩৫৯ পয়েন্টে। যা দেখে বিনিয়োগকারী বেশ চিন্তিত। এ ভাবে টানা ছ’দিনের পতন যদি আরও কয়েকটা কেনা-বেচার দিনে অব্যাহত থাকে, তা হলে সমূল লোকসান। কিন্তু উল্টো দিকে এই সময়টাকেই বিনিয়োগের জন্য বেছে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু কী কারণে?

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক সংক্ষিপ্তাকার একটি তালিকা-

ভোটের পর নিফটির ঊর্ধ্বগমন

নির্বাচনের বছরনিফটির ঊর্ধ্বগমন
২০০৪২২ শতাংশ
২০০৯৪২ শতাংশ
২০১৪১৬ শতাংশ

উপরের তালিকায় দেখানো হয়েছে উল্লেখিত বছরগুলিতে লোকসভা ভোটের পর শেয়ার বাজারের সূচক ঠিক কতটা উপরে উঠেছিল।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক আরও একটি সংক্ষিপ্তাকার একটি তালিকা-

ভোটের আগে নিফটির উত্থান/পতন

নির্বাচনের বছরনিফটির উত্থান/পতন
২০০৪৯ শতাংশ পতন
২০০৯২৪ শতাংশ উত্থান
২০১৪১৩ শতাংশ উত্থান

উপরের তালিকায় দেখানো হয়েছে উল্লেখিত বছরগুলিতে লোকসভা ভোটের পর শেয়ার বাজারের সূচক ঠিক কতটা উপরে উঠেছিল বা নীচের দিকে নেমেছিল। কিন্তু এ বারের ভোট চলাকালীন শেয়ার বাজারের দুই সূচক সেনসেক্স এবং নিফটি সর্বকালীন ইতিহাস গড়েছে। যে কারণে, নির্বাচনী ফলাফল যাই হোক না কেন, বাজারে টাকা ঢাললে লক্ষ্মীলাভ বাঁধা বলেই পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

একই ভাবে অন্য আর একটি সূচক সেনসেক্সেও বড়োসড়ো ইঙ্গিত ধরা পড়েছে এ বারের ভোট চলাকালীন। যেমন তাকিয়ে দেখুন নীচের তালিকায়-

ভোটের সময় এপ্রিল-জুন মাসে সেনসেক্সের উত্থান

নির্বাচনের বছরসেনসেক্সের উত্থান
২০০৪১৭ শতাংশ
২০০৯৪৯ শতাংশ
২০১৪১৩ শতাংশ

এ বারের লোকসভা ভোট চলাকালীন গত ১ মার্চ পর্যন্ত সেনসেক্সের উত্থান ধরা পড়েছে ৪ শতাংশ। হাতে থাকা বাকি সময়ে কী হতে চলেছে, তা জানা যাবে কয়েক মাসেই!

  • শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ একান্ত ভাবে ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের উপর নির্ভরশীল

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here