কোথায় গেলে পাবেন ‘দ্য বেস্ট বিরিয়ানি’, রইল ৮টি রেস্তোরাঁর হদিশ

0

দেবপ্রিয়া মুখার্জি

বিরিয়ানি। মোগলাই খাবার হলেও বেশির ভাগ বাঙালিরই প্রথম প্রেম। বিরিয়ানির প্রথম প্রচলন হয় দিল্লি এবং লখনউতে, মোগলাই এবং অওয়াধি ক্যুইজিন হিসেবে। কিন্তু বাঙালির মন জয় করতে এই পদের বেশি সময় লাগেনি। আর এখন তো মফস্‌সল হোক কি শহর কলকাতা – বিরিয়ানির দোকান সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। কিন্তু কোথায় গেলে আপনি পাবেন দ্য বেস্ট বিরিয়ানি? আজ তারই সন্ধান দিতে হাজির খবর অনলাইন।

আরসালান

বিরিয়ানি বলতে প্রথমেই মনে পড়ে আরসালানের কথা। পার্ক সার্কাস, হাতিবাগান, রাজারহাট, নিউ আলিপুর, বাঙ্গুর, পার্ক স্ট্রিট, রুবির মোড়ের কাছে বাইপাস মিলিয়ে আরসালানের মোট আটটি আউটলেট রয়েছে কলকাতায়। চিকেন হোক বা মটন অথবা হায়দরাবাদি বা অওয়াধি – আপনি আপনার মনপসন্দ বিরিয়ানি এখানে পেয়ে যাবেন ১৩০ টাকা থেকে শুরু করে ৩০০ টাকার মধ্যে।

আমিনিয়া

আরসালানের পাশাপাশি অপর যে নামটা আমাদের মনে আসে সেটি হল আমিনিয়া। কলকাতা জুড়ে আমিনিয়ার মোট বারোটি আউটলেট রয়েছে। এখানেও আপনি ১৩০ টাকা থেকে ৩০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন মোস্ট ডেলিশিয়াস বিরিয়ানি।

সিরাজ

আরসালান, আমিনিয়ার পর লিস্টে রয়েছে সিরাজ গোল্ডেন রেস্টুরেন্ট। পার্ক স্ট্রিট, কাঁকুড়গাছি, অজয়নগর, সল্টলেক সেক্টর-৩ এবং নাগেরবাজারে রয়েছে সিরাজের আউটলেট। এখানে চিকেন বিরিয়ানি, মটন বিরিয়ানি এবং মটন স্পেশাল বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৭০ টাকা থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে।

রয়েল ইন্ডিয়ান হোটেল

প্রত্যেকটি রেস্টুরেন্টের বিরিয়ানির স্বাদ একেবারেই আলাদা আলাদা। কারো সঙ্গে কারো মিল পাওয়া যাবে না। যেমন রয়েল ইন্ডিয়ান হোটেল। এদের স্পেশালিটি রয়েল মটন চাপ বা রয়েল মটন চাপ হলেও বিরিয়ানির স্বাদ অনবদ্য। রয়েল মটন বিরিয়ানির দাম ২৪০টাকা এবং চিকেন বিরিয়ানি ২৩০টাকা। মটন, চিকেন স্পেশাল বিরিয়ানির দাম পড়বে ৩৫০ এবং ৩৪০টাকা।

সনঝা চুলহা

বিরিয়ানির কথা যখন হচ্ছে তখন সনঝা চুলহার কথা কি ভোলা যায়? কলকাতার বাসিন্দা হয়ে সনঝা চুলহার বিরিয়ানির স্বাদ অবশ্যই নিতে হবে। ই এম বাইপাসে উত্তর পঞ্চান্নগ্রাম, পার্ক সার্কাস, সাদার্ন অ্যাভেনিউয়ে বিবেকানন্দ পার্কের পিছনে এবং রুবি হসপিটালের কাছে কসবা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এস্টেট, সব মিলিয়ে কলকাতায় এই রেস্তোরাঁর চারটি আউটলেট। এখানে যে কোনো ধরনের বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৬০ টাকায়। কিন্তু আপনি যদি উইকএন্ড স্পেশাল হায়দরাবাদি বিরিয়ানির ফ্যামিলি প্যাক নিতে চান তা হলে আপনার খরচ পরবে ৪৭০ টাকা।

আলিবাবা

এর পর লিস্টে রয়েছে ওনলি আলিবাবা রেস্টুরেন্ট এবং ওনলি আলিবাবা গোল্ড। কলকাতা এবং মফস্‌সল জুড়ে ওনলি আলিবাবা রেস্টুরেন্টের রয়েছে একাধিক আউটলেট এবং পার্ক সার্কাসে রয়েছে ওনলি আলিবাবা গোল্ড। এখানেও বিরিয়ানি খেতে খরচ পরবে ১৫৫ টাকা থেকে ৩৭০ টাকা।

আরও পড়ুন ইতিহাস থেকে বর্তমান, বউবাজারের সোনামাখা পথে জেগে আছে কলকাতার মিষ্টান্ন বিলাস

ইন্ডিয়া রেস্তোরাঁ, খিদিরপুর

বিরিয়ানি খাওয়ার আর একটি সেরা ঠিকানা হল খিদিরপুরের ইন্ডিয়া রেস্তোরাঁ। এখানে চিকেন বিরিয়ানি, মটন কাচ্চি বিরিয়ানি, মটন অওয়াধি বিরিয়ানি ইত্যাদি নানা ধরনের বিরিয়ানি জিভে জল আনা স্বাদে আপনি পেয়ে যাবেন ১৬৫ টাকা থেকে ৩২০ টাকার মধ্যে।

আউধ ১৫৯০

এর পর যে রেস্তোরাঁর কথা বলব সেটি তুলনামূলক এক্সপেনসিভ। তবে বিরিয়ানি বলে কথা! একটু বেশি খরচ করা যেতেই পারে যদি রেস্তোরাঁটির অ্যাম্বিয়েন্স আপনাকে মোগল সাম্রাজ্যের পরিবেশ দেয়। হ্যাঁ! আউধ 1590-এর থিমই হল মোগল সাম্রাজ্য। এখানে বিরিয়ানি খেতে খরচ হবে ১৮০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা।

দাদা বৌদি রেস্তোরাঁ,ব্যারাকপুর

সব শেষে বিরিয়ানির নিবন্ধে যে রেস্তোরাঁটির কথা না বললেই নয় সেটি হল ব্যারাকপুরে দাদা-বৌদি রেস্তোরাঁ। এখানে অন্যতম সেরা বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৬০ থেকে ৩২০ টাকার মধ্যে।
বিরিয়ানি নিয়ে আর আলাদা করে কিছু বলার নেই। জমিয়ে বিরিয়ানি খান। তবে অবশ্যই শরীরের খেয়াল রেখে। ভালো থাকুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here