raja mitraরাজা মিত্র :

শীতকাল মানেই রকমারি মেলা, উৎসব, ঘুরে বেড়ানো। ঘুরে বেড়ানোর মরশুমে পেটপুজোর জন্য বড় ভরসা স্ট্রিট ফুড। আর হাতে করে খেতে খেতে ঘুরে বেড়ানো যায়, এমনটা হলে তো কথাই নেই। তাই রোল জাতীয় কাবাব খুবই উপযোগী। যেমন শয়ারমা।

শয়ারমার ইতিহাস শুরু প্রায় ঊনবিংশ শতাব্দীর অটোমান সাম্রাজ্য থেকে, যার আদি হল তুর্কি ‘ডনের কাবাব’।

ডনের কাবাব ল্যাম্ব, বিফ বা চিকেন হয়ে থাকে।

আমরা চিকেন শয়ারমা বানাব। শয়ারমা বিভিন্ন রকমের সস, যেমন হাম্মাস, মেয়োনিজ, গার্লিক সস ইত্যাদি দিয়ে হয়ে থাকে। আমরা হাম্মাস সস দিয়ে বানাব।

কী কী লাগবে

১. মুরগি – ৫০০ গ্রাম, বুকের অংশ, হাড় ছাড়া 

২. নুন – স্বাদমতো

৩. গোলমরিচগুঁড়ো – স্বাদমতো

৪. লাল লঙ্কাগুঁড়ো – ২ ছোটো চামচ

৫. অলিভ অয়েল – আধ কাপ

৬. লেটুস – ২/৩টি পাতা, ঝিরি করে কাটা

৭. জুচিনি/শশা – আধখানা, গোল করে কাটা

৮. টমেটো – গোল করে কাটা

৯. টক দই – আধ কাপ

১০. মেয়োনিজ – আধ কাপ

১১. ক্রিম – আধ কাপ

১২. লেবু – ১টি

১৩. রসুন – ২টি কোয়া, কুচো করে কাটা

১৪. কাবলি ছোলা – ১ কাপ, সিদ্ধ করা

১৫. পিটা ব্রেড – ৪/৫টি

১৬. ক্যাপসিকাম – আধ খানা, ঝিরি করে কাটা

১৭. পেঁয়াজ – ১টি, ঝিরি করে কাটা

shwarma-1_editedvitote-deparকী ভাবে বানাবেন 

১. প্রথমে মুরগিগুলোকে আর্ধেক লেবুর রস, নুন আর লঙ্কাগুঁড়ো দিয়ে আধ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন।

২. রোটিসেরি গরম করে শিকে মুরগিগুলো একটার উপরে একটা গাঁথুন।

৩. ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে প্রায় ২০/২৫ মিনিট গ্রিল করুন।

৪. হাম্মাস সসের জন্য, দই, মেয়ো আর গ্রিম ভালো করে ফেটিয়ে নিন। লেবুর রস, রসুন আর কাবলি ছোলা দিয়ে মিক্সিতে পিষে নিন। নুন দেখে নিন। অল্প লঙ্কারগুঁড়ো আর অলিভ অয়েল ছড়িয়ে দিন।

৫. এ বারে মুরগিগুলো ঝিরি করে কেটে নিন।

৬. ফ্রাইং প্যানে অর্ধেক অলিভ অয়েল দিয়ে পেঁয়াজ, ক্যাপসিকাম আর মুরগি নাড়াচাড়া করে নিন। শুকনো হয়ে এলে নামিয়ে নিন।

৭. পিটা রুটি চাটুতে সেঁকে নিন।

৮. লেটুস, মুরগির মিশ্রণ, টমেটো, জুচিনি লম্বা করে রুটির উপরে রাখুন। আপনি ইচ্ছেমতো স্যালাড ব্যবহার করতে পারেন।

৯. হাম্মাস ছড়িয়ে দিন। অলিভ অয়েল, গোলমরিচগুঁড়ো এবং নুন ছড়িয়ে দিন।

১০. রুটিটাকে রোল-এর মতো আকার দিন এবং পরিবেশন করুন।  

ছবি: লেখক

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here