Connect with us

খাওয়াদাওয়া

জেনে নিন কলকাতার ৫টি রেস্টুরেন্টের পুজোর স্পেশাল বাঙালি খাবারের মেনু

পুজো মানেই তো খাওয়াদাওয়া।। প্যান্ডেল হপিং করতে বেরিয়ে বাঙালি খাবারের স্বাদ নিতে কার না ভালো লাগে। খবর অনলাইন পাঠকদের জন্য রইল এমনই ৫টি বাঙালি রেস্টুরেন্টের পুজোর স্পেশাল মেনু। ঠাকুর দেখার পর এদের কোনো একটিতে ঢুঁ মারতেই পারেন। তবে হাতে সময় নিয়ে যাবেন। কারণ রেস্টুরেন্টগুলোতে ভিড় বেশ ভালোই হচ্ছে।

সপ্তপদী

বাঙালি খাবারে জন্য কলকাতার এই রেস্টুরেন্টটি বেশ নাম করেছে। জোমাটোর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এখানে খেতে দু’জনের পড়বে ৭০০টাকা মতো। তবে পুজো উপলক্ষ্যে রয়েছে স্পেশাল মেনু। শারদীয়া থালি ৮০০টাকা। স্পেশাল শারদীয়া থালি ৯৯৯টাকা। এছাড়া নবরাত্রির জন্য রয়েছে একাধিক আইটেম। আপনি অনলাইনেও অর্ডার দিয়ে আনিয়ে নিতে পারেন আপনার মনের মতো খাবার।

রাজবাড়ির খাওয়া

হাতে পয়সা থাকলে খাওয়া ব্যাপারে বাঙলি রাজা। তাই রাজবাড়ির মতো পঞ্চব্যাঞ্জন সহযোগ লাঞ্চ বা ডিনার সারতে হলে আপনাকে যে হবে রাজবাড়ির খাওয়াতে। জোমাটোর দেওয়া হিসাব অনুযায়ী এখানে দু’জনের খরচ পড়বে ৫০০টাকা মতো। এবারে পুজোর স্পেশাল মেনু হল কলাবতী থালি, খরচ৬৩৬ টাকা ৫৮৬ টাকা। এই থালিতে ভাতের বদলে থাকছে লুচি।

এবেলাওবেলা

দক্ষিণ কলকাতার বাঁশদ্রোণী এলাকার একটি বাঙালি খাবারের রেস্টুরেন্ট এবেলাওবেলা। এখানে খেতে দু’জনের জন্য খরচ পড়বে কমপক্ষে ৪০০টাকার মতো। তবে পুজোর স্পেশাল ভেজথালি, খিচুড়ি, চিকেন থালি, মটন থালি, ফিস থালি এবারের আকর্ষণ। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ১২ পর্যন্ত খোলা আছে। ফোন ৯৮৩১১৬৮৭৬৩।

দি ভোজ কোম্পানি

মাছের নানা আইটেম জন্য ফ্রি স্কুল স্ট্রিটের এই রেস্টুরেন্ট পরিচিতি লাভ করেছে। যদি ঠাকুর দেখতে দেখতে ধর্মতলার কাছে পৌঁছে যান তবে দি ভোজ কোম্পানিতে ঢুঁ মেরে এদের স্পেশাল ভেটকি ফিস ফ্রাই ট্রাই করতে পারেন। এখানে থেকে দু’জনের খরচ পড়বে ৫০টাকার মতো। ফোন ৯৮৩০৪২৮৮০০।

হাপুস হুপুস

শোভাবাজারের নিমতলা ঘাট স্ট্রিটের এই রেস্টুরেন্টি বাঙালি খাবারে জন্য নাম করেছে। এখানে খেতে গড়ে খরচ পড়বে দুজনের জন্য ২০০টাকা। চিকেন, মটন, ফিস, ভেজ সবরকম আইচেম আছে। মেনু দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

ফোন ফোন ৮২৪০৫৩৬১০১। স্পেশাল খিচুড়ি মশলা কম্বো ট্রাই করতে পারেন।

খাওয়াদাওয়া

এলাচ কেন খাবেন? জেনে নিন ১৮টি কারণ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : মশলার রানি এলাচ। যেমন গন্ধ তেমনই স্বাদ। শুধু তাই নয়, তেমনই এর খাদ্য ও পুষ্টিগুণ।  

এলাচের খাদ্য ও পুষ্টিগুণ –

এতে আছে প্রোটিন, কার্বোহাড্রেট, কোলেস্টেরল, ক্যালোরি, ফ্যাট, ফাইবার, নিয়াসিন, রাইবোফ্ল্যাভিন, পাইরিডক্সিন, থিয়ামিন, ইলেকট্রোলাইট, সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, কপার, আয়রন, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ফসফরাস, জিঙ্ক, ভিটামিন এ, সি ইত্যাদি।

এলাচের উপকারিতা –  

১. হৃদযন্ত্রের জন্য

এলাচের মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান হার্টের জন্যে ভালো। কোলেস্টেরল কম করতে সাহায্য করে। উচ্চ রক্তচাপেও দারুণ একটি ওষুধ এলাচ।

২. শ্বাসকষ্টে

এলাচ বিভিন্ন রকমের সমস্যা যেমন সর্দি, কাশি, ফুসফুসের সমস্যা ও রক্ত সঞ্চালনের সমস্যা ইত্যাদি থেকে মুক্তি দেয়। ব্রঙ্কাইটিস বা শ্বাসপ্রশ্বাসের কোনো রকম সমস্যা থাকলে এলাচ খাওয়া ভালো।

৩. রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে

উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় এলাচ খুব উপকারী। ওষুধের কাজ করে এটি। স্যুপ বা স্টু-এর মধ্যে এলাচ মিশিয়ে খেলে খুব সহজেই কিছু দিনের মধ্যে রক্তচাপ নীচে নামতে শুরু করে।

৪. ডিপ্রেশনে

ডিপ্রেশনের মতো মানসিক সমস্যার হাত থেকে বাঁচতে এলাচ দারুণ সাহায্য করে। প্রতি দিন চায়ের মধ্যে কয়েক দানা এলাচ ফেলে ফুটিয়ে পান করা ভালো।

৫. হজমের কাজে

এর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান যা বিপাকের ব্যাধি থেকে শরীরকে মুক্তি দেয়। যকৃৎ ও অগ্ন্যাশয়ের উন্নতি ঘটায়। ফলে হজম ভালো হয় ফলে বুকে জ্বালা বা পেট খারাপ এবং অম্বলের মত সমস্যা থেকেও অনায়াসে রেহাই পাওয়া যায়।

৬. ডিটক্সিফিকেশন

শরীরে যত বেশি পরিমাণ ফাইবার, ক্যালসিয়াম, আয়রন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রবেশ করে, ভেতর থেকে তত বেশি পরিষ্কার ও সতেজ থাকে। এলাচ শরীরে বাইরে থেকে আসা যে কোনো বিষক্রিয়া থেকে মুক্তি দেয় ও ডিটক্সিফাই করে।

৭. হেঁচকির হাত থেকে রেহাই

শরীরের যে কোনো মাংসপেশিকে শান্ত করতে এলাচের উপকারিতা অনেক। তাই কোনো কারণে যদি হেঁচকির সমস্যায় পড়েন, তাহলে এক কাপ গরম জলে এক চা চামচ এলাচ মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে সেটি আসতে আসতে পান করলে উপকার হয়।

৮. ক্ষুধা বৃদ্ধিতে

এলাচ খিদে বাড়াতে সাহায্য করে। এলাচের তেল ব্যবহার করলে খাওয়ার প্রতি ইচ্ছে বাড়ে ও খিদেও বাড়ে।

৯. দাঁত ও মুখের জন্যে

এলাচের অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান মুখের ভেতরের অংশের অর্থাৎ মাড়ি ও দাঁতের খুব উপকার করে। এলাচের ঝাঁঝালো স্বাদ নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর করে ও তরতাজা ভাব আনে।

১০. ক্যানসারে

এলাচের খাদ্যগুণের কারণে অনেক ধরনের ক্যানসারের টিউমার বা কোষগুলি বাড়তে পারে না। কোলোরেক্টাল ক্যানসারের ক্ষেত্রে এলাচের গুনাগুণ বিশেষ ভাবে প্রমাণিত হয়েছে।

১১. স্মৃতিশক্তি প্রখর করে

এলাচে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মস্তিষ্ককে শান্ত করে ও স্মৃতিশক্তি প্রখর করে তুলতে সাহায্য করে। প্রতি দিন দুধের সঙ্গে দু’টি এলাচ ফুটিয়ে সেটি পান করুন। ফল অবশ্যই পাবেন।

১২. যৌন স্বাস্থ্য

এলাচের মধ্যে নানান খাদ্য উপাদানের কারণে এটি স্নায়ুকে শান্ত করে ও যৌনইচ্ছাকে বাড়িয়ে তোলে। এ ছাড়া, বন্ধ্যাত্ব থেকে মুক্তি পেতেও এলাচ সাহায্য করে।

১৩. উজ্জ্বল ত্বকে

ত্বকের ফর্সাভাব ও ঔজ্জ্বল্যের জন্যে এলাচ দারুণ কাজ করে। ত্বকে ব্রণ ও কালচে ভাব দূর করে। মধু ও এলাচের প্যাক বানিয়ে মুখে লাগিয়ে ফল পেতে পারেন।

১৪. ত্বকের এলার্জি

এলাচে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল উপাদান ভরপুর। এটি খুব ভালো অ্যান্টিসেপটিক ও অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি। ফলে ত্বককে মোলায়েম করে, ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। তাই এলাচ ত্বকের জন্যে একটি ওষুধও। মধু এবং কালো এলাচের মিশ্রণ এলার্জি হওয়া অংশে লাগালে খুব তাড়াতাড়ি ফল পাবেন।

১৫. রক্ত সঞ্চালন উন্নত করে

এলাচে রয়েছে ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, এগুলি ত্বকে রক্ত সঞ্চালন উন্নত করে ও ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো করে।

১৬. ঠোঁটের জন্যে

এলাচ দিয়ে ঠোঁটের নানা রকমের বাম, গ্লস বা তেল তৈরি হয় যা ঠোঁটের কোমলভাব ফুটিয়ে তোলে। গোলাপি ভাব বজায় রাখে। ঘরেও প্যাক তৈরি করে সারা রাত ঠোঁটে লাগিয়ে রাখা যায়। এই প্যাক করতে লাগে এলাচের গুঁড়ো, অলিভ অথবা আমন্ড অয়েল এবং একটুখানি অ্যালোভেরা জেল। প্রতি দিন এটি ঠোঁটে লাগিয়ে রেখে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

১৭. চুলের যত্নে

মাথার ত্বক পরিষ্কার থাকলে চুলের গোড়া মজবুত হয় ও চুল পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এলাচের মধ্যে থাকা পুষ্টিকর উপাদান চুলের গোড়া মজবুত করে চুলকে ঝলমলে ও লম্বা করতে সাহায্য করে।

১৮. মাথার ত্বকের জন্যে

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকার ফলে মাথার ত্বক ভালো রাখে। এলাচ চুলের ফলিকলগুলিকে মজবুত করে। এলাচ ভেজানো জল দিয়ে চুল ধুলে বা এলাচের গুঁড়ো চুলে লাগানোর পর শ্যাম্পু করলে সব থেকে ভালো ফল পাওয়া যায়। এলাচের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান মাথার ত্বকের ইনফেকশনকে দ্রুত সারিয়ে তোলে।

জেনে রাখুন – করোনার এই সংকটকালে লবঙ্গ কেন খাবেন? জেনে নিন ২২টি উপকারিতা

Continue Reading

খাওয়াদাওয়া

করোনা থেকে রূপচর্চা, কী ভাবে উপকার করে তুলসী পাতা? ১৪টি গুণ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : তুলসী পাতার উপকারিতার কোনো অন্ত নেই। বিশেষ করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এর তুলনা নেই। তাই করোনা-কালে এর চাহিদা ও কদর দুই-ই বেড়েছে। সকলেই শুনে শুনে তুলসী পাতার ব্যবহার শুরু করেছেন। কিন্তু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি ঠিক আর কী কী উপকার হয় এর থেকে, তা অনেকেই বিস্তারে জানেন না। সে সবই এখন জেনে নেওয়া যাক –

১। শ্বাস-প্রশ্বাস

ঠান্ডা লাগলে  শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা হয় অনেকেরই। এই সময় তুলসী পাতা ম্যাজিকের মতো কাজ করে। গলার সংক্রমণ বা অন্য সমস্যা- সবেতেই তুলসী পাতা উপকারী।

২। হৃদযন্ত্রের অসুখ

তুলসী পাতায় আছে প্রচুর  ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এই উপাদান হৃদযন্ত্রকে বহু সমস্যা থেকে মুক্ত রাখে। হৃদযন্ত্রের কর্মক্ষমতা বাড়ায় ও স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

৩। মানসিক চাপ

তুলসীর ভিটামিন সি ও অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলো মানসিক চাপ কমাতে সহায়তা করে। এই উপাদানগুলো নার্ভকে শান্ত করে। কর্টিসল হরমোনের সঙ্গে স্ট্রেস-এর সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। এটি খেলে কর্টিসল হরমোনের ক্ষরণ কমে যেতে শুরু করে। ফলে স্ট্রেস লেভেলও কমতে শুরু করে। ডিপ্রেশন বা মানসিক অবসাদের প্রকোপ কমাতেও দারুণ ভাবে সাহায্য করে। এ ছাড়াও পাতার রস শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৪। মাথা ব্যথা

মাথা ব্যথা ও শরীর ব্যথা কমাতে তুলসী খুবই উপকারী। এর বিশেষ উপাদান মাংশপেশীর খিঁচুনি রোধ করতে সহায়তা করে।

৫। রোগ নিরাময় ক্ষমতা

ঔষধি-গুণাবলি সমৃদ্ধ গাছ এটি। তুলসীকে কেউ কেউ ‘নার্ভের টনিক’ বলে থাকেন। এটি স্মরণশক্তি বাড়ানোর জন্য বেশ উপকারী। এটি শ্বাসনালী থেকে শ্লেষ্মাঘটিত সমস্যা দূর করে। তুলসী পাতা পাকস্থলীর ও কিডনির স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ভালো।

৬। রক্ত পরিশুদ্ধ হয়

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ২-৩টি তুলসী পাতা খাওয়ার অভ্যাস করলে রক্তে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদান এবং টক্সিন শরীরের বাইরে বেরিয়ে যায়। ফলে শরীর ভিতর থেকে চাঙ্গা হয়।

৭। ডায়াবেটিস দূরে থাকে

নিয়মিত এই পাতা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা কমতে শুরু করে। সেই সঙ্গে ইনসুলিনের কর্মক্ষমতাও বাড়ে। ফলে শরীরে সুগারের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কোনও সম্ভাবনাই থাকে না। প্রসঙ্গত, মেটাবলিক ড্যামেজের হাত থেকে লিভার এবং কিডনি-কে বাঁচাতেও দারুণ ভাবে সাহায্য করে তুলসী।

৮। ক্যান্সার রোধে

পাতায় উপস্থিত ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট শরীরের ভেতরে ক্যান্সার সেল যাতে কোনো ভাবেই জন্ম নিতে না পারে, সে দিকে খেয়াল রাখে। ফলে ক্যান্সার হওয়ার সুযোগই পায় না। এটি ফুসফুস, লিভার, ওরাল এবং স্কিন ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

৯। দৃষ্টিশক্তি

একাধিক পুষ্টিগুণে ভরপুর তুলসী, দৃষ্টিশক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি ছানি এবং গ্লুকোমার মতো চোখের রোগকে দূরে রাখতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। সেই সঙ্গে ম্যাকুলার ডি-জেনারেশন আটকাতেও সাহায্য করে।

১০। সর্দি–জ্বরে

তুলসী পাতা প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক। জ্বর এবং সর্দি-কাশি সারাতে এই প্রাকৃতিক উপাদানটির বিকল্প হয় না। এই পাতা শরীরে প্রবেশ করা মাত্র যে যে ভাইরাসের কারণে জ্বর হয়েছে, সেই জীবাণুগুলোকে মারতে শুরু করে। ফলে শরীর ধীরে ধীরে চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

১১। পোকার কামড়ে

তুলসী পাতা হল প্রোফাইল্যাক্টিভ। এটি পোকামাকড় কামড়ে দিলে উপশম করতে সক্ষম। পোকার কামড়ে আক্রান্ত স্থানে পাতার রস লাগিয়ে দিলে পোকার কামড়ের ব্যথা ও জ্বালা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যায়।

১২। বয়স রোধে

ভিটামিন সি, ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস ও এসেন্সিয়াল অয়েল চমৎকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের হিসেবে কাজ করে। বয়সের ছাপ কমায়।

১৩। ত্বকের সমস্যায়

তুলসী পাতার রস ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। তুলসী পাতা বেটে সারা মুখে লাগিয়ে রাখলে ত্বক সুন্দর ও মসৃণ হয়। এ ছাড়াও তিল তেলের মধ্যে তুলসী পাতা ফেলে হালকা গরম করে লাগালে ত্বকের যে কোনও সমস্যায় উপকার পাওয়া যায়। এ ছাড়াও কোনও অংশ পুড়ে গেলে তুলসীর রস এবং নারকেলের তেল ফেটিয়ে লাগালে জ্বালা কমবে এবং সেখানে কোনও দাগ থাকবে না।

১৪। ব্রণের প্রকোপে

তুলসী পাতায় উপস্থিত অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এজেন্ট শরীরে প্রবেশ করে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং জীবাণু মেরে ফেলে। ফলে ব্রণের প্রকোপ কমতে শুরু করে। সেই সঙ্গে নানাবিধ সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও হ্রাস পায়। ব্রণের সমস্যায় এই পাতা খেতে পারেন অথবা সরাসরি মুখে পেস্ট বানিয়ে লাগাতেও পারেন। দুই ক্ষেত্রেই সমান উপকার পাওয়া যায়।

পরুন – ব্রকলি খাবেন কেন? তার ২২টি কারণ জেনে নিন

Continue Reading

খাওয়াদাওয়া

মা-ঠাকুমার হেঁশেল থেকে রইল ৩টি দারুণ রেসিপি, বাড়িতে ট্রাই করতে পারেন

খবর অনলাইন ডেস্ক : মা-ঠাকুমার ঝুলিতে কতই না রেসিপি আছে। তাঁরা হেঁশেল ছাড়লে সেগুলি হারিয়ে যায়।

তবু বর্তমান প্রজন্মের অনেকই সেই রেসিপিগুলি খুঁজে পেতে এনে আবার হেঁশেলে নবজন্ম দিচ্ছেন।

খবর অনলাইনের পাশাপাশি মিডিয়া ফাইভের আরও একটি উদ্যোগ হল মুঠোয় হেঁশেল। এটি বাংলায় অনলাইন একটি রেসিপি ম্যাগাজিন।

এখানে পাঠাকদের পাঠানো নানা রেসিপি প্রকাশিত হয়। সে রকমই পাঠকদের পাঠানো মা-ঠাকুমার রেসিপি থেকে তিনটি আপনার জন্য বেছে দেওয়া হল।

নারকলের চিঁড়ে

নারকল দিয়ে তো নানা কিছু বানানো যায়। এটি তার মধ্যেই একটা। কী ভাবে বানাবেন নারকলের চিঁড়া বিস্তারিত জানার জন্য এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

মৌরলা ভাপা পোস্ত

মৌরলা মাছ আর পোস্ত দুটোই বাঙালির বড় প্রিয় খাদ্য। দুটোর কম্বিনেশনে যদি একটি রান্না হয় তবে তো দারুণ জমে যায়। কী কী লাগবে এবং কী ভাবে করবেন তা জানতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

দই ভাপা

রেসিপিটি জানতে এই লিঙ্ককে ক্লিক করুন

Continue Reading
Advertisement
শিল্প-বাণিজ্য37 mins ago

ঋণ পুনর্গঠনের মাপকাঠি নির্ধারণে পাঁচ সদস্যের কমিটি গড়ল আরবিআই

CM Yogi Adityanath
দেশ1 hour ago

মসজিদের শিলান্যাসের আমন্ত্রণ এলে কী করবেন? যোগী আদিত্যনাথের জবাবে বিতর্ক

দেশ2 hours ago

কেরলে ভয়াবহ ধসে মৃত ১৩, নিখোঁজ বহু

দেশ2 hours ago

করোনা ভ্যাকসিন: গেটস ফাউন্ডেশনের কাছ থেকে বড়ো অঙ্কের আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট

রাজ্য2 hours ago

১১-১২ বছর ধরে ভাত খান না বিমান বসু, তা হলে কী খান?

বিনোদন3 hours ago

অনুরোধ প্রত্যাখ্যানের পর ইডির দফতরে হাজিরা দিতেই হল রিয়া চক্রবর্তীকে

প্রবন্ধ4 hours ago

গীতিকার প্রণব রায়ের প্রয়াণবার্ষিকীতে সশ্রদ্ধ প্রণাম

রাজ্য4 hours ago

প্রকাশিত রাজ্য জয়েন্ট এন্ট্রাসের ফল, কাউন্সেলিংয়ে টাকা লাগবে না

দেশ9 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৬২৫৩৮, সুস্থ ৪৯৭৬৯

গাড়ি ও বাইক2 days ago

পেট্রোলচালিত গাড়ি ‘এস-ক্রস’ বাজারে নিয়ে এল মারুতি সুজুকি

ক্রিকেট2 days ago

অঘটন! ৩২৯ তাড়া করে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারাল আয়ারল্যান্ড

ক্রিকেট2 days ago

আইপিএলের নিয়মাবলি: গুচ্ছের টেস্টিং, চলা-ফেরায় নিয়ন্ত্রণ, একটি দলের জন্য একটি হোটেল

দেশ2 days ago

রুপোর ইট দিয়ে রামমন্দিরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

প্রযুক্তি2 days ago

শাওমি, বাইডু-সহ আরও বেশ কয়েকটি চিনা সংস্থার অ্যাপ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র

Hrithik Roshan
বিনোদন1 day ago

‘ক্রিশ ৪’ নয়, তার আগেই একটি কমেডি ছবিতে হৃতিক রোশনকে দেখা যাবে?

কলকাতা1 day ago

রাতভর প্রবল বৃষ্টিতে ভাসল কলকাতার একাংশ

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা23 hours ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা1 day ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা2 days ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা1 week ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

নজরে

Click To Expand