Connect with us

রেস্তোরাঁ

সাবর্ণ রায়চৌধুরী পরিবারের চার’শ বছরের পুরনো রেসিপি আপনার প্লেটে

sabarna food festival

কলকাতা: বাঙালি পেটুক না খেতে ভালোবাসে? এ প্রশ্নের উত্তর সহজেই মিলত আজ থেকে ৩০-৪০ বছর আগেও বাঙালির হেঁসেলগুলোতে ঢুঁ মারলে। প্রতিটি রান্নাঘর যেন একটা কেমেস্ট্রি ল্যাব। সেই ল্যাবে বসে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যেতেন ওই ঘরটির ‘মালকিন’রা। নানা রেসিপি। পুরনো রেসিপিগুলিকে পরীক্ষা করে দেখা, তাতে নতুন উপাদান মিশিয়ে স্বাদে অন্য মাত্রা আনা—এ সব চলত নিয়মিত।

কিন্তু সময় বদলেছে। বাঙালি জীবনে বেড়েছে ব্যস্ততা। জীবনযাপনের রসদ জোগাড় করতেই বাঙালি হিমসিম। সময় কোথায় রান্নাঘরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো। তবু জিভটা আছে। স্বাদ বদলের মনটা এখন ঢু মারে সেই রেস্তোঁরাগুলোতে যেখানে পাওয়া যায় বাঙালির নানা পদ। তেমনই কিছু ৪০০ বছরের পুরনো রেসিপি নিয়ে হাজির ৬ বালিগঞ্জ প্লেস। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার শহরের এই নামী রেস্তোঁরাটিতে চলছে সাবর্ণ রায়চৌধুরী ফুড ফেস্টিভ্যাল। কলকাতা অন্যতম আদি বনেদি পরিবারের হেঁশেল থেকে বের করে আনা ঐতিহাসিক খাবারদাবার হাজির করছে আপনার প্লেটে। ১৪টি জিভে জল আনা রেসিপি স্বাদ নিতে একবার ঢুঁ মারতেই মারেন ৬ বালিগঞ্জ প্লেসে।

শেফ সুশান্ত সেনগুপ্ত জানালে,‘‘গত বছরও সাবর্ণদের নিজস্ব রেসিপি নিয়ে আমরা এই ফুড ফেস্টিভ্যাল করেছিলাম। বেশ সাড়াও মিলেছিল। সাবর্ণদের উমা ভোগ, গাজরের পুষ্পান্ন, নিরামিষ পাঁঠার মাংস, কিরণ পাতুরির স্বাদে লেগে থাকবে ইতিহাসের ছোঁয়া।’’

সাবর্ণ রায়চৌধুরী পরিবার পরিষদের, মুখপাত্র দেবর্ষি রায়চৌধুরী জানালেন,‘‘ ৪০০ বছরের পুরনো রেসিপি আমরা সংগ্রহ করছি, কিছু রেসিপি গত ২০০ পর আর রান্না হয়নি। সে রকমই ১৪টি পদ রাখা হয়েছে এই ফুড ফেস্টিভ্যালে।’’ আগামী ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৬ বালিগঞ্জ প্লেসের তিনটি আউটলেটে চলবে এই ফুড ফ্যাস্টিভ্যাল।

এ ছাড়াও ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে সাবর্ণ সংগ্রহশালার উদ্যোগে বড়িষায় শুরু হচ্ছে চতুর্দশ আন্তর্জাতিক ইতিহাস উৎসব। এই প্রদর্শনীতে থাকবে সাবর্ণ রায়চৌধুরী পরিবারের নানা ঐতিহাসিক সামগ্রী। এ বারের উৎসবের থিম দেশ জাপান। আপনি যদি ইতিহাস ভালোবাসেন চলে আসতে পারে এই প্রদর্শনীতে।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

খাওয়াদাওয়া

ভ্যালেনটাইন ডে-তে খেতে পারেন এই ১০টি রেস্তোঁরায়

ওয়েবডেস্ক : ভালোবাসার দিন অর্থাৎ ভ্যালেনটাইন ডে। এই দিনটির জন্য অপেক্ষা করে থাকেন এমন মানুষের সংখ্যা নেহাতই কম নয়। এই দিনে যে কেবল মনের মানুষের সঙ্গে দেখা করা বা একে অপরকে উপহার দেওয়া-নেওয়া করাটাই শেষ কথা তা কিন্তু নয়। অনেকেই আছেন যাঁরা দিনটিকে বিশেষ ভাবে উপভোগ করতে চান। প্রিয় মানুষটির সঙ্গে একান্তে সময় কাটানোর পাশাপাশি ভালোমন্দ খেয়ে এবং খাইয়েও দিনটিকে স্মরণীয় করতে চান, ভরিয়ে তুলতে চান রসনা তৃপ্তির মধ্যে দিয়েও। তেমন ভোজন রসিক মানুষদের তো চাই ভালোমন্দ খাওয়ার জন্য খালি একটি অজুহাত। তেমনই একটি অজুহাত যদি এই ভালোবাসার দিনটিকে ধরে নেওয়া যায়, তা হলে অবশ্যই চাই শহরের সেরা রেস্তোঁরাগুলির হদিষ। তেমনই কয়েকটি রোমান্টিক রেস্তোঁরার খোঁজ রইল এখানে।

১। দ্য পাম –

স্বাদ গন্ধের অসামান্য ঠিকানা হল দ্য পাম। রসনা তৃপ্তির জন্য এখানে রয়েছে মোগলাই, আওয়াধি, উত্তর ভারতীয় নানান খানার সম্ভার। শুধু দেশ নয় বিদেশের স্বাদ দিতেও প্রস্তুত দ্য পাম, পাবেন থাই, চাইনিজও। সঙ্গে অবশ্যই পাবেন মিষ্টি ও ককটেলও।

ঠিকানা – ১৯এ সার্দান অ্যাভিনিউ, মেঘনাদ সাহা সরণি, কলকাতা।

খোলা থাকবে – বেলা ১২টা থেকে ৪টে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১১টা।

খরচ – দুই জনের জন্য ১,০০০ টাকা থেকে ১,২০০টাকা।  

২। ফ্যাব্রিকা ডেলা পিৎজা-

লাক্সারিয়াস রেস্টুরেন্ট ফ্যাব্রিকা। যাঁরা পিৎজা পাগল তাঁরা অবশ্যই ট্রাই করতে পারেন ফ্যাব্রিকা ডেলা পিৎজা। নানান ধরনের পিৎজা এখানে পাওয়া যায়। দুই জনের ডিনারের ক্ষেত্রে খুবই সস্তার এবং সুন্দর পরিবেশ রয়েছে এই রেস্তোঁরায়।  

ঠিকানা – ৮এ অ্যালেনবাই রোড, শ্রীপল্লি, এলগিন রোড, কলকাতা।

খোলা থাকবে – বেলা ১২টা থেকে রাত ১১টা।

দুই জনের খরচ – ৮০০ টাকা।

৩। সুইসোটেল –

যদি কেউ প্রাইভেট ডাইনিং রেস্টুরেন্ট চান তা হলে একটি নাম অবশ্যই সুইসোটেল। সুন্দর একটি রোমান্টিক পরিবেশে রসনাতৃপ্তি করার অন্যতম আদর্শ জায়গা এটি। এখানে পাবেন তন্দুরি ও কনটিনেন্টাল।

 ঠিকানা – প্লট নং.১১, সিটি সেন্টার, ৫ বিশ্ব বাংলা সরণি, অ্যাকশন এরিয়া ২, অ্যাকশন এরিয়া ২ডি, নিউটাউন, কলকাতা।

খরচ – দুই জনের ৩,৬৭৫ টাকা।   

৪। কর্নার কোর্টিয়ার্ড –

রংচঙে, ঝকঝকে একটি পরিবেশ। খোলা ছাদের একটি আবহ। এমন রোমান্টিক একটি জায়গায় পিৎজা খাওয়ার ক্ষেত্রে একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান কর্নার কোর্টিয়ার্ড। পাওয়া যায় কন্টিনেন্টাল, ইউরোপিয়ান, ইটানিয়ান, সিফুডও।  

ঠিকানা – ৯২বি শরৎ বোস রোড, হাজরা, ভবানিপুর, কলকাতা।

খোলা – সকাল ৮টা থেকে রাত ১২টা।

খরচ – দুই জনের খরচ ১,৫০০ টাকা।

৫। ওশেন গ্রিল –

কলকাতার আরও একটি রোমান্টিক রেস্তোঁরা হল ওশেন গ্রিল। সিফুডের জন্য খুবই বিশ্বস্ত একটি প্রতিষ্ঠান, এখানে পাওয়া যায় উত্তর ভারতীয় খানা, এশিয়ান কুজিন, কন্টিনেন্টালও।  

ঠিকানা – প্রথম তল, ইনফিনিটি বেঞ্চমার্ক, ব্লক ইপি জিপি, সেক্টর ফাইভ, সল্ট লেকে সিটি, কলকাতা,  আরডিবি সিনেমার বিপরীতে।

খোলা – বেলা ১২টা থেক রাত ১১টা।

খরচ – দুই জনের ১,৫০০টাকা।

৬।  আফরা রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড লন –

সল্টলেকের আরও একটি সুন্দর রেস্তোঁরা আফরা রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড লন। বিশেষ দিনটিকে আরও বিশেষ করে তুলতে আসতে পারেন এখানে। পাওয়া যায় ফ’ সুপ, চকোলেট প্যান, ভার্জিন মোজিটো, তিরামিশু, মটন বিরিয়ানি তা ছাড়া ইতালিয়ান, কন্টিনেন্টাল-সহ আরও অনেক কিছুই।

 ঠিকানা – ছয় ও সাত তলা, সিটি সেন্টার মল, জি ব্লক, সেক্টর ১, সল্টলেক, কলকাতা – ৬৪,

খোলা – ১২.৩০ টা থেকে ৩টে। ৭টা থেকে ১১টা।

খরচ – ১,৮০০ টাকা দুই জনের।

৭। বান থাই –

কলকাতায় থাইফুড খাওয়ার অন্যতম একটি জায়গা বান থাই। রেস্টুরেন্টের গোটা পরিবেশটাই থাইল্যান্ডের গৃহসজ্জায় সাজানো। বান থাই, সি ফুড, নুডলস, টম ইয়াম সুপ, প্যাড থাই নুডলস, থাই গ্রিনকারি, ফিস কেক ইত্যাদি পাওয়া যায়।

ঠিকানা – ওয়েরয় গ্র্যান্ড, ১৫ জওহর লাল নেহরু রোড, কলকাতা -১৩,

খোলা – বেলা ১২.৩০ থেকে ৩টে ও  সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১১.৩০টা

খরচ – দুই জনের খরচ ৪,০০০ টাকা।

৮। তামারা পিপল ট্রি হোটেল –

ভ্যালেনটাই ডে উদযাপনের জন্য আরও একটি ঠিকানা নিউটাউনের তামারা পিপল ট্রি হোটেল। সুস্বাদু খাবার আর সুন্দর পরিবেশ অবশ্যই এই দিনের আনন্দকে বাড়িয়ে দেবে।

ঠিকানা- পিপল ট্রি হোটেল, এ এস/ ৪৬৪, মেন আরটেরিয়াল রোড, নিউটাউন কলকাতা,

খোলা থাকে – বেলা ১২টা থেকে ৩.৩০টে, সন্ধ্যে ৭.৩০টা থেকে রাত ১১টা

খরচ- দুই জনের জন্য ১,৮০০টাকা।

৯। প্যারিস কাফে –

খুব কম খরচে সুন্দর প্যারিসের সাজসজ্জায় একটি রোমান্টিক পরিবেশে ভ্যালেনটাইনের সঙ্গে সন্ধ্যে কাটাতে চাইলে প্যারিস কাফে অন্যতম একটি নাম। ক্যাপাচিনো থেকে ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের কাপ কেক মুগ্ধ করবেই।

ঠিকানা – ১/১ আশুতোষ চৌধুরি অ্যাভিনিউ, বালিগঞ্জ, কলকাতা।

খোলা – সকাল ৮.৩০  থেকে রাত ১১টা

খরচ – দুই জনের জন্য ১,০০০টাকা।  

১০। রাজবাড়ির খাওয়া –

যাঁরা যে কোনো উৎসব উপলক্ষ্যেই বাঙালি খাওয়াদাওয়াকেই গুরুত্ব দেন, সে ঘর হোক বা বাইরে, তাঁদের জন্য একটি বিশ্বস্ত ঠিকানা হতে পারে রাজবাড়ির খাওয়া। পরিবেশ থেকে খাবারের স্বাদ- সব কিছুতেই নির্ভেজাল বাঙালি স্বাদ পাবেন এখানে।

ঠিকানা –  বি১৭১ সন্তোষপুর অ্যাভিনিউ, সার্ভেপার্ক, কলকাতা -৭৫।

খোলা – সকাল ১১টা থেকে রাত ১০টা।

শিখুন – রেসিপি: সুইট পাইনঅ্যাপেল শ্রিম্প

Continue Reading

খাওয়াদাওয়া

চাইনিজ খেতে পছন্দ করেন? আসতে পারেন চ্যাপলিন চাইনিজ রেস্টুরেন্টে

chaplin

স্মিতা দাস

শুধু চাইনিজের রকমারি ডিশ পেতে হলে চলে আসতে পারেন সাউথ সিঁথির চ্যাপলিন চাইনিজ রেস্টুরেন্টে।

চাইনিজের বিভিন্ন ডিশের মধ্যে রয়েছে নানান প্রকারের খাবার, চাইনিজ, রাইস ইত্যাদি। মেন কোর্সে রাইসের মধ্যে চাউমিন রাইস, এগ রাইস, চিকেন রাইস, এগ চিকেন রাইস, মিক্স রাইস, প্রন রাইস। মিক্স রাইসের একটি স্পেশাল আইটেম পাওয়া যায়, তাতে চিকেন এগ প্রন মাশরুম পনির ও একটি অমলেট থাকে।

চাউমিনের মধ্যে রয়েছে চিকেন চাউ, প্রন চাউ, এগ চাউ, চিকেন এগ চাউ, মিক্স চাউ – এগুলি উইথ গ্রেবি বা হাক্কা দুই রকমই হয়। এ ছাড়া স্টাটারে রয়েছে ফিস ফিঙ্গার, ফিস ফ্রাই, চাইনিজ চপসি, আমেরিকান চপসি, চিকেন পকোড়া, ফিস পকোড়া, পনির পকোড়া ইত্যাদি পাওয়া যায়। মিক্স চাউয়ের একটি স্পেশাল আইটেম পাওয়া যায়, তাতে চিকেন এগ প্রন মাশরুম পনির ও একটি অমলেট থাকে।  

এ ছাড়া ভেজ আইটেমের মধ্যে রয়েছে – ভেজ পকোড়া, পনির পকোড়া, চিলি মাশরুম।

এখানকার স্পেশাল ডিশের মধ্যে রয়েছে ড্রাগন চিকেন, কয়েক রকমের সুপ। সুপের মধ্যে ভেজ সুইট কর্ন সুপ, টমেটো সুপ, ভেজ মিক্স সুপ, চিকেন হট অ্যন্ড সাওয়ার সুপ, মিক্স হট অ্যান্ড সাওয়ার সুপ।

খরচ নাগালের মধ্যেই। পেট ভরে চার জনের খেতে এখানে খরচ হবে মোটামুটি ভাবে সাড়ে চারশো থেকে পাঁচশো টাকা।  

চ্যাপলিন খুলে যায় সকাল ১০টা থেকে। খোলা থাকে রাত ১০টা পর্যন্ত। এখানে রয়েছে হোম ডেলিভারির সুবিধাও। রয়েছে জোমাটোতেও।

ঠিকানা – ৪৮/৪বি বিটি রোড, কলকাতা -৫০।

পড়ুন – কোথায় গেলে পাবেন ‘দ্য বেস্ট বিরিয়ানি’, রইল ৮টি রেস্তোরাঁর হদিশ

জেনে নিন কলকাতার ৫টি রেস্টুরেন্টের পুজোর স্পেশাল বাঙালি খাবারের মেনু

Continue Reading

খাওয়াদাওয়া

কোথায় গেলে পাবেন ‘দ্য বেস্ট বিরিয়ানি’, রইল ৮টি রেস্তোরাঁর হদিশ

বিরিয়ানি। মোগলাই খাবার হলেও বেশির ভাগ বাঙালিরই প্রথম প্রেম। বিরিয়ানির প্রথম প্রচলন হয় দিল্লি এবং লখনউতে, মোগলাই এবং অওয়াধি ক্যুইজিন হিসেবে। কিন্তু বাঙালির মন জয় করতে এই পদের বেশি সময় লাগেনি।

দেবপ্রিয়া মুখার্জি

বিরিয়ানি। মোগলাই খাবার হলেও বেশির ভাগ বাঙালিরই প্রথম প্রেম। বিরিয়ানির প্রথম প্রচলন হয় দিল্লি এবং লখনউতে, মোগলাই এবং অওয়াধি ক্যুইজিন হিসেবে। কিন্তু বাঙালির মন জয় করতে এই পদের বেশি সময় লাগেনি। আর এখন তো মফস্‌সল হোক কি শহর কলকাতা – বিরিয়ানির দোকান সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। কিন্তু কোথায় গেলে আপনি পাবেন দ্য বেস্ট বিরিয়ানি? আজ তারই সন্ধান দিতে হাজির খবর অনলাইন।

আরসালান

বিরিয়ানি বলতে প্রথমেই মনে পড়ে আরসালানের কথা। পার্ক সার্কাস, হাতিবাগান, রাজারহাট, নিউ আলিপুর, বাঙ্গুর, পার্ক স্ট্রিট, রুবির মোড়ের কাছে বাইপাস মিলিয়ে আরসালানের মোট আটটি আউটলেট রয়েছে কলকাতায়। চিকেন হোক বা মটন অথবা হায়দরাবাদি বা অওয়াধি – আপনি আপনার মনপসন্দ বিরিয়ানি এখানে পেয়ে যাবেন ১৩০ টাকা থেকে শুরু করে ৩০০ টাকার মধ্যে।

আমিনিয়া

আরসালানের পাশাপাশি অপর যে নামটা আমাদের মনে আসে সেটি হল আমিনিয়া। কলকাতা জুড়ে আমিনিয়ার মোট বারোটি আউটলেট রয়েছে। এখানেও আপনি ১৩০ টাকা থেকে ৩০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন মোস্ট ডেলিশিয়াস বিরিয়ানি।

সিরাজ

আরসালান, আমিনিয়ার পর লিস্টে রয়েছে সিরাজ গোল্ডেন রেস্টুরেন্ট। পার্ক স্ট্রিট, কাঁকুড়গাছি, অজয়নগর, সল্টলেক সেক্টর-৩ এবং নাগেরবাজারে রয়েছে সিরাজের আউটলেট। এখানে চিকেন বিরিয়ানি, মটন বিরিয়ানি এবং মটন স্পেশাল বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৭০ টাকা থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে।

রয়েল ইন্ডিয়ান হোটেল

প্রত্যেকটি রেস্টুরেন্টের বিরিয়ানির স্বাদ একেবারেই আলাদা আলাদা। কারো সঙ্গে কারো মিল পাওয়া যাবে না। যেমন রয়েল ইন্ডিয়ান হোটেল। এদের স্পেশালিটি রয়েল মটন চাপ বা রয়েল মটন চাপ হলেও বিরিয়ানির স্বাদ অনবদ্য। রয়েল মটন বিরিয়ানির দাম ২৪০টাকা এবং চিকেন বিরিয়ানি ২৩০টাকা। মটন, চিকেন স্পেশাল বিরিয়ানির দাম পড়বে ৩৫০ এবং ৩৪০টাকা।

সনঝা চুলহা

বিরিয়ানির কথা যখন হচ্ছে তখন সনঝা চুলহার কথা কি ভোলা যায়? কলকাতার বাসিন্দা হয়ে সনঝা চুলহার বিরিয়ানির স্বাদ অবশ্যই নিতে হবে। ই এম বাইপাসে উত্তর পঞ্চান্নগ্রাম, পার্ক সার্কাস, সাদার্ন অ্যাভেনিউয়ে বিবেকানন্দ পার্কের পিছনে এবং রুবি হসপিটালের কাছে কসবা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এস্টেট, সব মিলিয়ে কলকাতায় এই রেস্তোরাঁর চারটি আউটলেট। এখানে যে কোনো ধরনের বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৬০ টাকায়। কিন্তু আপনি যদি উইকএন্ড স্পেশাল হায়দরাবাদি বিরিয়ানির ফ্যামিলি প্যাক নিতে চান তা হলে আপনার খরচ পরবে ৪৭০ টাকা।

আলিবাবা

এর পর লিস্টে রয়েছে ওনলি আলিবাবা রেস্টুরেন্ট এবং ওনলি আলিবাবা গোল্ড। কলকাতা এবং মফস্‌সল জুড়ে ওনলি আলিবাবা রেস্টুরেন্টের রয়েছে একাধিক আউটলেট এবং পার্ক সার্কাসে রয়েছে ওনলি আলিবাবা গোল্ড। এখানেও বিরিয়ানি খেতে খরচ পরবে ১৫৫ টাকা থেকে ৩৭০ টাকা।

আরও পড়ুন ইতিহাস থেকে বর্তমান, বউবাজারের সোনামাখা পথে জেগে আছে কলকাতার মিষ্টান্ন বিলাস

ইন্ডিয়া রেস্তোরাঁ, খিদিরপুর

বিরিয়ানি খাওয়ার আর একটি সেরা ঠিকানা হল খিদিরপুরের ইন্ডিয়া রেস্তোরাঁ। এখানে চিকেন বিরিয়ানি, মটন কাচ্চি বিরিয়ানি, মটন অওয়াধি বিরিয়ানি ইত্যাদি নানা ধরনের বিরিয়ানি জিভে জল আনা স্বাদে আপনি পেয়ে যাবেন ১৬৫ টাকা থেকে ৩২০ টাকার মধ্যে।

আউধ ১৫৯০

এর পর যে রেস্তোরাঁর কথা বলব সেটি তুলনামূলক এক্সপেনসিভ। তবে বিরিয়ানি বলে কথা! একটু বেশি খরচ করা যেতেই পারে যদি রেস্তোরাঁটির অ্যাম্বিয়েন্স আপনাকে মোগল সাম্রাজ্যের পরিবেশ দেয়। হ্যাঁ! আউধ 1590-এর থিমই হল মোগল সাম্রাজ্য। এখানে বিরিয়ানি খেতে খরচ হবে ১৮০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা।

দাদা বৌদি রেস্তোরাঁ,ব্যারাকপুর

সব শেষে বিরিয়ানির নিবন্ধে যে রেস্তোরাঁটির কথা না বললেই নয় সেটি হল ব্যারাকপুরে দাদা-বৌদি রেস্তোরাঁ। এখানে অন্যতম সেরা বিরিয়ানি পেয়ে যাবেন ১৬০ থেকে ৩২০ টাকার মধ্যে।
বিরিয়ানি নিয়ে আর আলাদা করে কিছু বলার নেই। জমিয়ে বিরিয়ানি খান। তবে অবশ্যই শরীরের খেয়াল রেখে। ভালো থাকুন।

Continue Reading
Advertisement
দেশ25 mins ago

নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে ওড়িশায় মৃত কমপক্ষে চার মাওবাদী

ক্রিকেট2 hours ago

শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার কুশল মেন্ডিস গ্রেফতার

modi and trump
বিদেশ3 hours ago

‘ভারতকে ভালোবাসে আমেরিকা’, স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বিনিময়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প

শিক্ষা ও কেরিয়ার4 hours ago

সিবিএসই ২০২০: ফলাফল বেরোলে কী ভাবে মার্কশিট এবং সার্টিফিকেট পাওয়া যাবে?

দেশ4 hours ago

উত্তরপ্রদেশে ৮ পুলিশ হত্যা: ‘ভেতরের’ ভূমিকা নিয়ে পুলিশের তদন্ত, স্টেশন অফিসার সাসপেন্ড

দেশ4 hours ago

এই প্রথম ভারতে এক দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ হাজারের বেশি

দেশ6 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪৮৫০, সুস্থ ৯৩৮১

Nitish Kumar
দেশ6 hours ago

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার করোনা নেগেটিভ

দেশ6 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪৮৫০, সুস্থ ৯৩৮১

কলকাতা1 day ago

কলকাতায় অতিসংক্রমিত ১৬টি অঞ্চলকে পুরোপুরি সিল করে দেওয়ার প্রস্তুতি

দেশ2 days ago

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় নতুন রেকর্ড, সুস্থতাতেও রেকর্ড

দেশ2 days ago

‘সবার টিকা লাগবে না, আর পাঁচটা রোগের মতোই চলে যাবে করোনা’, আশ্বাস অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীর

SBI ATM
শিল্প-বাণিজ্য3 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল

wfh
ঘরদোর2 days ago

ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন? কাজের গুণমান বাড়াতে এই পরামর্শ মেনে চলুন

vladimir putin
বিদেশ3 days ago

২০৩৬ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট থাকছেন ভ্লাদিমির পুতিন!

বিনোদন3 days ago

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু-রহস্যে এ বার মুম্বই পুলিশের নজরে সঞ্জয়লীলা বনশালী!

নজরে