ইতালির খাবারের আসল স্বাদ পেতে চান? শুরু হচ্ছে ‘উইক অব দ্য ইটালিয়ান কুইজিন ইন দ্য ওয়ার্ল্ড’ এই হোটেলগুলিতে

0
italianfood
সুস্বাদু ইতালিয়ান খাবার

স্মিতা দাস, কলকাতা : আবার শুরু হতে চলেছে ‘উইক অব দ্য ইটালিয়ান কুইজিন ইন দ্য ওয়ার্ল্ড’। টানা সাত দিন জিভে জল আনা সুস্বাদু খাবার চেখে দেখার সুযোগ পাবেন খাদ্যপ্রেমীরা। মহাভোজের সূচনা হতে চলেছে ১৮ নভেম্বর থেকে। চলবে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত।

এই নিয়ে চতুর্থ বর্ষে পা দিল ইতালির এই খাদ্য উৎসব। ২০১৬ সালে শুরু হয়েছিল। এই বছরে তাদের থিম ‘ফুড এডুকেশন:দ্য কালচার অব টেস্ট’। এই উৎসবে অংশ নেবেন চার জন ইতালিয়ান শেফ। কলকাতার বিখ্যাত সব হোটেলে থাকবে সেই সুস্বাদু খাবারের আয়োজন।

ইতালিয়ান কনসাল জেনারেল দামিয়ানো ফ্রাঙ্কোভিগ বলেন, হায়াত রিজেন্সি, আইসিটি, তাজ বেঙ্গল ইত্যাদি বিখ্যাত সব হোটেলে এই ব্যাপারে আয়োজন করা হবে। এই সব হোটেল, রেস্তোরাঁ তাদের মেনুতে ইতালির বিশেষ ধরনের একাধিক খাবারের আয়োজন করবে। কলকাতাবাসী ইতালির আসল খাবার চেখে দেখতে পারবেন। কারণ সচারচর যেটা হয় যে, এক অঞ্চলের খাবারের মধ্যে কিছুটা অন্য অঞ্চলের কোনো কোনো মশলা যোগ করে একটা স্থানীয় ভারসাম্য রক্ষা করা হয়। ফলে মূল স্বাদের হেরফের হয়ে যায়। কিন্তু এই খাবারগুলি রান্না করবেন খোদ ইতালির শেফরা। ফলে ইতালির খাবারের স্বাদ অটুট থাকবে।

তিনি বলেন, থিমের সঙ্গে তাল মিলিয়ে, খালি খাওয়া নয়, সঙ্গে শিক্ষার ব্যাপারটিও সমান তালে গুরুত্ব পাবে। সেই উদ্দেশ্যেই এই সাত দিনের মধ্যেই ইতালির একটি হোটেল ম্যানেজমেন্ট স্কুল থেকে এক দল পড়ুয়াও এখানে আসবেন। এই বিষয়ে বিশেষ সাহায্য করবে আইআইএইচএম। দু’দেশের ভবিষ্যতের শেফরা নিজেদের মধ্যে শিক্ষার লেনদেন করবেন। নিজের নিজের রান্নার ঐতিহ্য নিয়ে কথা বলবেন। পাশাপাশি থাকবেন দুই জন বিখ্যাত শেফও। তাঁদের মধ্যে এক জন হলেন আন্দ্রিয়া মিসেরি। মিসেরি তাজ হোটেলের সঙ্গে যুক্ত। থাকবেন পাওলো রিসিকা। পাওলো গ্লেনবার্ন পেইন্ঠাউজ এবং বসু ফাউন্ডেশন ফর আর্টসে বিশেষ ডিনারের আয়োজন করবেন।

এই সঙ্গে অবশ্যই রয়েছে ডিজাইন অর্থাৎ নকশা ও সংস্কৃতি নিয়েও বিশেষ আয়োজন। সেই আয়োজনে ইতালির বিভিন্ন ধরনের ল্যাম্পের নকশা ও সংস্কৃতি ও টেস্কস্টাইল নিয়েও কাজ হবে। তা ছাড়া কলকাতা মিউজিয়ামে ২৩ নভেম্বর একটি প্রদর্শনীর আয়োজনও করা হচ্ছে।

এই পদ্ধতিতে কিমা মটর বানিয়ে ফেলুন মাত্র কয়েক মিনিটে

ফ্রাঙ্কোভিগ বলেন, দেখা গিয়েছে বিশ্বের যে কোনো অঞ্চলের পর্যটক ইতালিতে বেড়াতে গেলে ১০০ ইউরোর মধ্যে প্রায় ২২ ইউরো খরচ করেন শুধু ইতালির খাবারের জন্য। অর্থাৎ পর্যটন শিল্পের একটা বড়ো অংশ জুড়ে রয়েছে সেখানকার খাবার। ফলে গোটা বিশ্বে যে ইতালির খাবারের বিশেষ কদর আছে তা বোঝাই যায়। তাই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আর সংস্কৃতিতে অন্যান্য সব কিছুর সঙ্গে অবশ্যই জড়িয়ে রয়েছে খাবারের ব্যাপারটিও।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন