ganesha statue in thailand
তাইল্যান্ডে গণেশ মূর্তি। ছবি সৌজন্যে ট্রোভার.কম।

ওয়েবডেস্ক: শুধুমাত্র যে দেশের মধ্যেই মন কেড়েছেন, তা-ই নয়। দেশের বাইরে বহু এলাকাতেই রমরমিয়ে ভক্তদের আদর আর পুজো পাচ্ছেন শিব-সূত পার্বতী-তনয় লম্বোদর। তাই তাঁর জন্মদিনের প্রাক্কালে এক বার জেনে নেওয়া যাক কোথায় কোথায় ঘাঁটি গেড়েছেন তিনি।

নেপাল

‘হেরম্ব’ নামে পঞ্চমুণ্ডি গণেশই হল নেপালে পূজিত। ‘হেরম্ব’ শব্দের অর্থ দুর্বলের রক্ষাকর্তা। মূলত তান্ত্রিক উপাসনার কাজে এই মূর্তির আরাধনা বা উপাসনা করা হয়। এই বিশেষ মূর্তিতে থাকে পাঁচটি হস্তীমুণ্ড। এই মুণ্ডগুলির বর্ণ আলাদা আলাদা হয়। গণেশের বাবা শিবঠাকুরের পাঁচ রূপভেদ – ইশান, তৎপুরুষ, বামদেব, অঘোর, সদ্যোজাতের গাত্রবর্ণের অনুরূপ ‘হেরম্ব’ গণেশের পঞ্চমুখের বর্ণ বা রঙ। গায়ের রঙ কখনও স্বর্ণাভ কখনও সাদা হয়। এই গণেশ শক্তির প্রতীক।

শ্রীলঙ্কা

শ্রীলঙ্কায় ‘গণদেবীয়’ নামে পরিচিত গণপতি। শ্রীলঙ্কার বৌদ্ধ অঞ্চলগুলিতে গণেশপুজোর চল রয়েছে। ভারতে ও ভারতের বাইরে বিভিন্ন জায়গায় হিন্দু সম্প্রদায় অধ্যুষিত অঞ্চলে গণপতি পুজোর আয়োজন বেশ ধুমধাম করেই হয়। শ্রীলঙ্কার ডামবুলা গুহামন্দিরে বুদ্ধ, বিষ্ণু মূর্তির সঙ্গে সঙ্গে গণেশের মূর্তিও রয়েছে। তা ছাড়া মরদানা জেলার কভিল ভেদিয়া হল একটা অতীব প্রাচীন শিব ও গণেশমন্দির। মন্দিরের গায়ের কাজ অবাক করার মতো।

তাইল্যান্ড

তাইল্যান্ডের ছাছয়েংসাও প্রদেশে রয়েছে একটি সুবিশাল গণেশ মন্দির। এটি ওয়াট সামান রত্নারাম মন্দির নামে খ্যাত। রয়েছে সুবিশাল গণেশমূর্তি। গণেশ বাবাজি এখানে অর্ধশায়িত। তার নীচের বেদির দেওয়ালে বিভিন্ন আকৃতি ও ভঙ্গিমার অসংখ্য গণেশমূর্তি। তাইল্যান্ডবাসীদের কাছে ইনি ‘ফ্রা ফিকানেত’ নামে আদর পান।

মায়ানমার

মায়ানমারে গণেশ পুজো পান ‘মহা পেইন্নে’ নামে। মান্দালয় এলাকায় রয়েছে গণেশের সুবিশাল একটি মন্দির।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন