Connect with us

পরিবেশ

ঘরের ভেতরের দূষণ ক্ষতি করে বেশি, বিশুদ্ধ বাতাসের জন্য ৫টি সহজ উপায়

Published

on

homeair-pollution

ওয়েবডেস্ক : দূষণ যে কেবল ঘরের বাইরেই আছে তা কিন্তু নয়, দূষণ রয়েছে ঘরের ভেতরও। বরং বাইরের থেকে ঘরের ভেতরে দূষণের পরিমাণ অনেক বেশি। প্রায় চার থেকে পাঁচগুণ। কারণ বাইরের পরিবেশ, হাওয়া-বাতাস সবটাই খোলামেলা। সেখানে ভালো, খারাপের মিশেল খুব তাড়াতাড়ি ও সহজে হয়। কিন্তু ঘরের ভেতরটা খুবই ছোটো পরিসরের মধ্যে। সব সময় যে সব জানলা দরজা খোলা থাকে এবং তা দিয়ে যথেষ্ট হাওয়া বাতাস যাতায়াত করে তা-ও নয়। সুতরাং ঘরের ভেতরের দূষিত হাওয়া ঘরের ভেতরেই থেকে যায়। ফলে ঘরের ভেতরের বাতাস বিশুদ্ধ হাওয়ার সংস্পর্শে আসার সুযোগ খুবই কম পায় বা পায় না। তার মধ্যেই নিঃশ্বাস নিতে হয় ঘরের ভেতরে থাকা মানুষদের। তার থেকে শরীরের ক্ষতির পরিমাণ ক্রমশ বাড়তে থাকে।  এই ঘটনা ঘটে অফিসের ক্ষেত্রেও।

ঠিক কী কী কারণে ঘরের ভেতরের বাতাস দূষিত হয়?

১। প্রথম কারণই হল বাড়ি বা অফিসের ঘরের মধ্যে বসবাস করা বা থাকা একাধিক মানুষের শ্বাসক্রিয়ার ফলে নির্গত কার্বন ডাই অক্সাইড।

Loading videos...

২। এর পরই বলা যায় মশামাছি বা যে কোনো ধরনের পোকামাকড় মারার জন্য যে সমস্ত ওষুধ বা ধূপ বা রিপ্লেন্ট ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়, সেই সমস্ত কিছুই ঘরের ভেতরের বাতাসকে দূষিত করে।

৩। কার্পেটে ব্যবহৃত রাসায়নিকও ঘরের বাতাস দূষিত করে।

৪। চুলে দেওয়ার শ্যাম্পু, যে কোনো কাজে ব্যবহার করা আঠা, শেভিংক্রিম ইত্যাদিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফরমালডিহাইড নামের একটি রাসায়নিক অর্থাৎ কেমিক্যাল, যা বাতাসকে দূষিত করে।  

৫। রান্নার ঝাঁঝ, ধোঁয়া, তেলচিটে বাতাস ইত্যাদিও ঘরের বায়ু দূষিত করে।

এই সমস্ত কিছু থেকে রেহাই দিতে বেশ কয়েকটি পথ বাতলাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। দেখে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী

ঘর বা অফিস ঘরের বায়ু দূষিত থাকলে তা স্বাস্থ্যের জন্য সাংঘাতিক হানিকর হয়ে উঠতে পারে। তাই নিজেদের শরীর ও ফুসফুসের যত্ন করতে হবে। সেই প্রয়োজনেই ঘরের ভেতরের বাতাসকে যে করেই হোক বিশুদ্ধ করা উচিত।

১। বায়ু চলাচলের ব্যবস্থা :

যাতে অবাধে ঘরের বাতাস বাইরে যেতে পারে ও বাইরের বাতাস ঘরে আসতে পারে সেই জন্য ঘরের সমস্ত জানলা দরজা অন্তত পক্ষে কিছু সময়ের জন্য হলেও খুলে রাখা উচিত। তাতে ঘরের বাতাসের পরিবর্তন হবে। দূষিত বাতাস বেরিয়ে যাবে। তাই সর্বক্ষণ জানলা দরজা বন্ধ না রেখে দিনের মধ্যে একটি নির্দিষ্ট সময় যেন তা উন্মুক্ত থাকে সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

২। ঘরের ভেতরে গাছ :

আমরা সকলেই জানি গাছেরা কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে ও অক্সিজেন পরিবেশে ছেড়ে দেয়। তাই অনেক জায়গায় ঘরের ভেতরে গাছ রাখতে দেখা যায়। তার কারণ আর কিছুই নয়। ঘরের বাতাস পরিশুদ্ধ করা। তাই ঘরের ভেতরে যে সমস্ত গাছ সুস্থ ভাবে কম আলো হাওয়ায় বেঁচে থাকতে পারে, তেমন কিছু রাখা যেতেই পারে। তার মধ্যে রয়েছে ইংলিশ আইভি, বাম্বু পাম, চাইনিজ এভারগ্রিন ইত্যাদি গাছ। এগুলি বাহারি গাছ। ঘর সাজানোর পাশাপাশি বাতাসও পরিশুদ্ধ করে।    

৩। সল্টল্যাম্প :

এই বাতাস পরিষ্কার করার জন্য ব্যবহার করা যায় সল্টল্যাম্প। এটি ঘরের মধ্যে, অফিসের কাজের টেবিলে যে কোনো জায়গায় রাখা যায়। এটি খুবই দৃষ্টিনন্দনকারী। শুধু তা-ই নয়, বাতাসের দূষণ দূর করতেও সিদ্ধহস্ত। এটি বাতাসের দূষণযুক্ত জলীয়বাস্পকে শোষণ করে নেয়। এটি জ্বালানো অবস্থায় বেশি কাজ করলেও নেভানো অবস্থাতেও এটি কাজ করে।

৪। অ্যাকটিভেটেড চারকোল  :

অ্যাকটিভেটেড চারকোলে কোনো রকম দুর্গন্ধ থাকে না। কিন্তু নিজে দূষিত বাতাস শোষণ করতে পারে। এ ছাড়াও বাঁশের কাঠকয়লাও এই কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে।   

৫। এসেনশিয়াল অয়েল :

এসেনশিয়াল অয়েল রাখলে ঘরের মধ্যেকার ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, দুর্গন্ধ, জীবাণু, ফাঙ্গাস ইত্যাদি কিছু থাকে না। গবেষণা বলছে এই এসেনশিয়াল অয়েল ঘরের দূষণ ৯৯.৯৬ শতাংশই নষ্ট করতে পারে। এসেনশিয়াল অয়েলগুলির মধ্যে দারুচিনি, ওরেগানো, রোজমেরি, থাইম, মুসম্বিলেবু, পাতিলেবু, টিট্রি অয়েল ইত্যাদি রাখা যেতে পারে।

গায়ের রং কালো হলেও প্রস্টেট ক্যানসারের সম্ভাবনা থাকতে পারে: বিশেষজ্ঞ

বায়ুদূষণ, পরিবেশ দূষণ নিয়ে চার দিকে যখন এত হইহই হচ্ছে, তখন এই অভিযানে শামিল হয়ে নিজের ঘরেও বায়ুদূষণ কমানোর দায়িত্ব নেওয়া যায়। সে ক্ষেত্রে এই বিরাট কর্মযজ্ঞে সামান্য হলেও তো অংশগ্রহণ করা যায়। সঙ্গে কিছু অবদান থেকে যায়। কারণ বিন্দু বিন্দু দিয়েই তো সিন্ধু গড়ে ওঠে। তাই প্রত্যেকে যদি নিজের নিজের কাজের বা ব্যবহারের জায়গা, যেমন ঘরবাড়ি বা অফিসের ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থাগুলি প্রয়োগ করতে শুরু করে তার সুফল তো নিজের সঙ্গে সঙ্গে আশেপাশের মানুষের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়ে। তা হলে আর অপেক্ষা কীসের? এই সামান্য পদক্ষেপে বিশাল উদ্দেশ্য সাধনে ব্রতী হয়ে যান।

দেশ

আগুনে পুড়তে থাকা সিমলিপালে স্বস্তির বৃষ্টি, আনন্দে নেচে উঠলেন মহিলা বন আধিকারিক

শনিবার পর্যন্ত আরও বৃষ্টির সম্ভাবনা।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: প্রকৃতিকে রক্ষা করার দায়িত্ব প্রকৃতিই নিয়ে নিল। আর সেই আনন্দে নেচে উঠল মানুষ। এমনই ঘোষণা ঘটেছে বুধবার ওড়িশার সিমলিপাল জাতীয় উদ্যানে।

গত দুই সপ্তাহ ধরে ভয়াবহ আগুনের গ্রাসে ছিল এই জাতীয় উদ্যান। দাবানলে পুড়ে ছারখার হয়ে গিয়েছে এই ন্যাশনাল পার্কের অনেকটা অংশ। কতো যে বন্যপ্রানের মৃত্যু হয়েছে তার হিসেব নেই। সেই আগুন নেভাতে গিয়ে বন আধিকারিক এবং দমকল যখন অসহায়, তখনই নামল স্বস্তির বৃষ্টি।

Loading videos...

বুধবার দুপুরের পর থেকে সিমলিপালের অনেকটা অংশ জুড়ে জোর বৃষ্টি হয়েছে। কোথায় কোথাও শিলাবৃষ্টিও হয়েছে। এতে আগুন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসে গিয়েছে।

সিমলিপালে বৃষ্টি শুরু হওয়ার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। সেখানে দেখা গিয়েছে,  বনবিভাগের এক মহিলা আধিকারিক আনন্দে নাচতে শুরু করেছেন। আকাশের দিকে হাত তুলে নাচতে নাচতে উদাত্ত কণ্ঠে তিনি বলছেন, “বহুত যাদা বর্ষা দে”, অর্থাৎ আরও বেশি বৃষ্টি দাও।

ইন্ডিয়ান ফরেস্ট অফিসার রমেশ পাণ্ডে এই ভিডিও শেয়ার করেছেন টুইটারে। ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, “এই রকম পরিস্থিতিতে বৃষ্টি হওয়া ঈশ্বরের অসীম কৃপা। ওই মহিলা অফিসার কেন এতটা খুশি সেটা আমরা সবাই আন্দাজ করতে পারছি। আগুন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসে গিয়েছে। সাম্প্রতিক স্যালেটাইট ডেটা থেকে তেমনটাই জানা গিয়েছে।”

প্রাথমিক ভাবে টুইটারে এই ভিডিয়ো শেয়ার করেছিলেন ডক্টর যুগল কিশোর মহান্ত। তিনি জানিয়েছিলেন, এই মহিলা আধিকারিকের নাম স্নেহা ঢাল। সিমলিপাল জাতীয় উদ্যানে দাবানলের পর আগুন নেভানোর কাজে সর্বক্ষণের জন্য রয়েছেন স্নেহা।

আরও আনন্দের কথা হল শনিবার পর্যন্ত প্রায় রোজই দুপুরের পর সিমলিপাল অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। ফলে আগুন যে একদমই নিভে যাবে তা বলাই বাহুল্য।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

৫ বছরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পদ কমে প্রায় অর্ধেক!

Continue Reading

দেশ

ওড়িশার সিমিলিপাল টাইগার রিজার্ভে এক সপ্তাহ পরেও জ্বলছে আগুন, ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

প্রায় এক সপ্তাহ আগে আগুন লাগে। রাজকন্যার টুইটের পরে প্রশাসনিক পদক্ষেপ!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: প্রায় এক সপ্তাহ আগে আগুন লাগে ওড়িশার সিমিলিপাল ফরেস্ট রিজার্ভে। যে আগুন এখন জ্বলে চলেছে। সমালোচনায় সরব হয় বিভিন্ন মহল। এর পরই রাজ্য প্রশাসন আগুন নেভানোর পদক্ষেপ নিয়েছে।

ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে বুধবার একটি উচ্চপর্যায়ের পর্যালোচনা বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে তিনি সিমিলিপাল বনাঞ্চলকে বিশ্বের মূল্যবান সম্পদ হিসাবে বর্ণনা করে সরকারি আধিকারিকদের বনের সংরক্ষণ নিশ্চিত করতে এবং বনের আগুনের ঘটনা এড়াতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দেন।

Loading videos...

বন্য প্রাণীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও মৃত্যু!

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সিমিলিপাল ফরেস্ট রিজার্ভ ২,৭৫০ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। আগুনের বীভৎস শিখাগুলি এক অংশ থেকে অন্য অংশে ছড়িয়ে পড়ে। বুধবার পর্যন্ত সিমিলিপাল বন বিভাগের মোট ২১টি রেঞ্জের মধ্যে আটটিতে জ্বলতে দেখা যায় আগুনের শিখা। এতে বন্য প্রাণীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও মৃত্যু হয়েছে।

রাজকন্যার টুইটের পরে প্রশাসনিক পদক্ষেপ

ময়ূরভঞ্জের রাজপরিবারের রাজকন্যা অক্ষিতা এম ভঞ্জদেও সিমিলিপাল আগুন নিয়ে টুইট করেছিলেন। জানা যায়, তার পরেই ওড়িশা প্রশাসন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং মোকাবিলার পদক্ষেপ করেছিল।

গত ১ মার্চ টুইট করেছিলেন অক্ষিতা। তিনি লেখেন, “ময়ূরভঞ্জে গত সপ্তাহে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এক সপ্তাহ আগে ৫০ কেজির মতো গজদন্ত দেখা গিয়েছিল। কয়েক মাস আগেই সিমলিপালের স্থানীয় যুবকরা বালি ও কাঠের মাফিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন। রাজ্যের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম ছাড়া, কোনো জাতীয় সংবাদমাধ্যম এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম বায়োস্ফিয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার খবর করছে না”।

তার এই টুইটের পরে পেট্রোলিয়ামমন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান এবং কেন্দ্রীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী প্রকাশ জাভাড়েকর এই বিষয়টিতে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। আগুন নেভাতে রাজ্য প্রশাসন দল পাঠায়।

আগুন এখন নিয়ন্ত্রণে, দাবি প্রশাসনের

ওড়িশার বন ও পরিবেশ দফতরের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব মোনা শর্মা জানিয়েছেন, সিমলিপালের আগুন এখন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠকেও তিনি অংশ নেন। তিনি বলেন, বনের আগুনে কোনো প্রাণহানি হয়নি।

আগুন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ অপারেটিং পদ্ধতি (এসওপি) জারি করা হয়েছিল। তিনি আরও বলেছেন, বড়ো গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। বিভাগীয় বন কর্মকর্তাদের (ডিএফও) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তাঁরা যেন রাজ্য সরকার এবং জেলাশাসকদের অগ্নিকাণ্ডের সতর্কতার বিষয়ে অবহিত করেন।

সিমিলিপালে বনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আড়াইশো ফরেস্ট গার্ড-সহ এক হাজারের মতো কর্মী নিযুক্ত রয়েছেন। এ ছাড়াও, আগুন নিয়ন্ত্রণে রাখতে ৪০টি দমকল এবং ২৪০ ব্লোয়ার মেশিন ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বন বিভাগের এক আধিকারিক।

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

Continue Reading

দেশ

উত্তরাখণ্ডের বিপর্যয়ের পেছনে কি এক হারানো তেজস্ক্রিয় যন্ত্র?

১৯৬৫ সালে নন্দাদেবীতে যৌথভাবে একটি গোপন অভিযান চালায় ভারতের ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো ও আমেরিকার সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি।

Published

on

জল চলে গিয়েছে, কিন্তু রেখে গিয়েছে প্রচুর কাদা। ছবি: সৌমিশ্র মিত্র।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বহুকাল আগে হিমালয়ের বুকে হারিয়ে যাওয়া এক তেজস্ক্রিয় যন্ত্রই কি উত্তরাখণ্ডে মহাবিপর্যয় ডেকে এনেছে? এমনই একটা ব্যাপার কিন্তু বিশ্বাস করছেন ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের গ্রামগুলির বাসিন্দারা।

পরিবেশ বিশারদরা হয়তো নিজেদের মতো করে এই ঘটনার ব্যাখ্যা দেবেন। কিন্তু প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে ওই এলাকা ও সন্নিহিত অঞ্চলে যাঁদের বাস, সেই গ্রামবাসীরা কিন্তু এই ঘটনার পেছনে তেজস্ক্রিয়তাকে দায়ী করছেন।

Loading videos...

চামোলি জেলার যে অংশে গত রবিবার এই বিপর্যয় ঘটেছিল, তার ঢিলছোঁড়া দূরত্বে থাকা রেইনি গ্রামের বাসিন্দাদের বিশ্বাস, রবিবারের বিপর্যয়ের নেপথ্যে আসলে রয়েছে কয়েক দশক আগে হারিয়ে যাওয়া একটি তেজস্ক্রিয় যন্ত্র।

তাঁদের দাবি, ওই যন্ত্র থেকে উৎপন্ন তাপই হিমবাহে ধরিয়েছিল চিড়। যা বাড়তে বাড়তে ফাটলে পরিণত হয়। হিমবাহ ভেঙে পড়ে। তার পর প্রবল শব্দে এবং বেগে সেই হিমবাহের দৈত্যাকার চাঙড়ই মাটি-কাদা ও নুড়িপাথরের স্রোত সঙ্গে নিয়ে নীচের দিকে নামতে থাকে। বিশাল জলধারা পরিণত হয় হড়পা বানে, যা ভাসিয়ে নিয়ে চলে যায় বাঁধ এবং লাগোয়া জনবসতির একাংশকে।

কিন্তু কী ভাবে এই তেজস্ক্রিয় যন্ত্র এল? জানা গিয়েছে, ১৯৬৫ সালে নন্দাদেবীতে যৌথভাবে একটি গোপন অভিযান চালায় ভারতের ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো (IB) ও আমেরিকার সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি (CIA)। ওই পাহাড়ে চিনের উপর নজরদারি চালাতে একটি আণবিক শক্তিচালিত অত্যাধুনিক যন্ত্র বসানোর কথা ছিল অভিযাত্রী দলটির। কিন্তু আবহাওয়া প্রচণ্ড খারাপ হয়ে যাওয়ায় সে বার যন্ত্রটিকে ফেলে চলে আসেন তাঁরা।

পরে বেশ কয়েক বার অভিযান চালালেও খোঁজ মেলেনি ওই আণবিক যন্ত্রটির। কিন্তু স্থানীয়দের বিশ্বাস, এখনও বরফের নীচে চাপা পড়ে কাজ করে চলেছে ওই যন্ত্রটি। শতাব্দী ছোঁয়া সেই আণবিক যন্ত্রটির জন্যই নেমে আসে ভয়াবহ বিপর্যয়।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে তীব্র ভূমিকম্প, অস্ট্রেলিয়ার এক দ্বীপে সুনামি

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
গান-বাজনা27 mins ago

চলে গেলেন রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী মিতা হক

Rahul Gandhi at Maldah rally
রাজ্য54 mins ago

Bengal Polls 2021: পঞ্চম দফার ভোটের আগে রাজ্যে আসছেন রাহুল গান্ধী

রাজ্য1 hour ago

নজরে বিধানসভা/কৃষ্ণনগর উত্তর: দেখে নিন ইতিহাস এবং সাম্প্রতিক তথ্য

পূর্ব বর্ধমান2 hours ago

Bengal Polls 2021: শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে বিতর্কে ঢিল ছুড়লেন মিঠুন চক্রবর্তী

দেশ3 hours ago

Covid-19 Vaccine: অক্টোবরের মধ্যে আরও ৫টি কোভিড ভ্যাকসিন পাচ্ছে ভারত!

রাজ্য3 hours ago

Bengal Polls 2021: ‘শীতলকুচি’ নিয়ে দিলীপ ঘোষের সঙ্গে এক মত নন অমিত শাহ!

রাজ্য4 hours ago

বাড়াবাড়ি করলে হবে আরও শীতলকুচি, হুমকি দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন দিলীপ ঘোষ

রাজ্য5 hours ago

Bengal Polls 2021: শীতলকুচিতে ‘গণহত্যা’ হয়েছে, দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

রাজ্য1 day ago

Bengal Polls Live: সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৭৫ শতাংশের বেশি

ক্রিকেট2 days ago

IPL 2021: বলে ভেলকি হর্শল পটেলের, ব্যাটে জ্বলে উঠলেন ডেভিলিয়ার্স, বেঙ্গালুরুর কষ্টার্জিত জয়

বাংলাদেশ3 days ago

Bangladesh Corona Update: কোভিড ১৯-এ মৃত্যুতে রেকর্ড, তবে দৈনিক আক্রান্ত কিছু কম

রাজ্য3 days ago

Bengal Corona Update: সংক্রমণের হারে সামান্য বৃদ্ধি, কিছু জেলার পরিস্থিতিও উদ্বেগজনক

দেশ3 days ago

অবশেষে মুক্তি পেলেন ছত্তীসগঢ়ে মাওবাদীদের হাতে বন্দি কোবরা কমান্ডো রাকেশ্বর সিংহ মানহাস

দেশ2 days ago

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ ভাঙতে তিন দাওয়াই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর

রাজ্য1 day ago

Bengal Polls 2021: বাহিনীর গুলিতে হত ৪, শীতলকুচি যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

দেশ1 day ago

Corona Update: রেকর্ড তৈরি করে দেড় লক্ষের দিকে এগিয়ে গেল দৈনিক সংক্রমণ, তবুও কম মৃত্যুহারে কিছুটা স্বস্তি

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে