Connect with us

শরীরস্বাস্থ্য

উপহাস নয়! অনেক কম্মে লাগে ঢেঁড়স

Okra

ওয়েবডেস্ক: ঢেঁড়স, ভেন্ডি বা লেডিজ ফিঙ্গার। খুবই পরিচিত এই সবজি হিসাবে বাজারে সহজলভ্য। বিশেষ করে গ্রীষ্ম-বর্ষায় বছরের অন্য সময়ের থেকে দাম কিছুটা হলেও কম থাকে ঢেঁড়সের। সেদ্ধ হোক বা সরষে বাটা দিয়ে চচ্চড়ি, অনেকের পাতেই বরাবরের উপকরণ এই ঢেঁড়স। তবে এর আঠালো জলীয় অংশের জন্য কেউ কেউ এড়িয়ে চলেন। চিকিৎসা বিজ্ঞান বলছে, অতটা খাদ্যগুণের দিক থেকে ততটা ফেলনা নয় এই পরিচিত সবজি।

মূলত গ্রীষ্ণপ্রধান দেশ যেমন আফ্রিকা বা এশিয়ার একটা বড়ো অংশ জুড়ে ঢেঁড়স চাষ বহুলপ্রচলিত। সবুজ অথবা লাল, দুই রঙে দেখা যায় বাজারে। জীব বিজ্ঞানে কিন্তু এটি ফল হিসাবেই চিহ্নিত হয়। কিন্তু এর স্বাদের জন্য কাঁচা বা পাকা ফলের মতো না খেয়ে আমরা রান্না করে খেতেই অভ্যস্ত। এ বার জেনে নেওয়া যাক এর হাফডজন কার্যকারিতা-

১. পুষ্টি সমৃদ্ধ

দেখে নিন এক কাপ (১০০ গ্রাম) কাঁচা ঢেঁড়সে যা রয়েছে:

ক্যালরি: ৩৩

কার্বোহাইড্রেট: ৭ গ্রাম

প্রোটিন: ২ গ্রাম

ফ্যাট: ০ গ্রাম

ফাইবার: ৩ গ্রাম

ম্যাগনেসিয়াম: ১৪% (ডিভি)

ফলেট: ১৫%(ডিভি)

ভিটামিন এ: ১৪% (ডিভি)

ভিটামিন সি: ২৬% (ডিভি)

ভিটামিন কে: ২৬% (ডিভি)

ভিটামিন বি ৬: ১৪% (ডিভি)

(ডিভি)=দৈনিক মূল্য

ভিটামিন সি এবং ভিটামিন কে-র বড়ো উৎস এই ঢেঁড়স। স্বাভাবিক ভাবেই শরীররে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থেকে রক্ত জমাট বাঁধা ব্যাহত করতে বেশ কার্যকরী। ক্যালোরির পরিমাণও যথেষ্ট। বাজার চলতি অনেক ফলেও মেলে না। এর প্রোটিন ওজন নিয়ন্ত্রণ, রক্তের শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ, হাড় এবং পেশির জন্য প্রয়োজনীয়।

২. উপকারী অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের উপস্থিতি

অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট খাদ্যের একটি যৌগ। এটি ক্ষতিকারক অণুর থেকে নিষ্কৃতী দেয়। এর প্রধান অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি হল পলিফেনল,  ফ্ল্যাভোনিয়েডস এবং আইসোউকার্কেটিন, সেই সঙ্গে ভিটামিন এ এবং সি। পলিফেনল হার্টের স্বাস্থ্য রক্ষা করে। এরা মস্তিষ্কের প্রদাহ নিবারণে সক্ষম।

৩. হৃদঘটিত রোগের সম্ভাবনা হ্রাস

ঢেঁড়সের মধ্যে জেলের মতো যে জলীয় পদার্থ থাকে সেটির নাম মিসিলেজ। এটির কার্যকারিতা অসীম।খাবার হজমের সময় এটি কোলেস্টেরলের সঙ্গে আবদ্ধ হতে পারে। ফলে কোলেস্টেরলকে শরীর শোষণ করার আগেই মলের সঙ্গে তা দেহের বাইরে বেরিয়ে যায়। স্বাভাবিক ভাবেই রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে আসতে সাহায্য করে ঢেঁড়স।

৪. অ্যান্টি-ক্যানসার

ঢেঁড়সের মধ্যে রয়েছে লেকটিন নামে একটি প্রোটিন। যা ক্যানসারের কোষকে বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। একটি টেস্টটিউব গবেষণায় ঢেঁড়সের এই গুণ পরীক্ষিত হলেও এটি সর্বজন স্বীকৃত নয়।

৫. ব্লাড সুগার কমাতে

শারীরিক সুস্থতার একটা বড়ো অংশ নির্ভর করে ব্লাড সুগারের উপর। গবেষকরা দাবি করে থাকেন, রক্তের শর্করা শোষণে বাধার সৃষ্টি করে ঢেঁড়স। যে কারণে ব্লাড সুগারের স্তর নীচের দিকে নামে।

৬. গর্ভবতী মহিলাদের জন্য

উপরের তালিকাতেই স্পষ্ট ঢেঁড়সের মধ্যে রয়েছে ফলেট। যা কি না ভিটামিন-বি৯। এটি গর্ভবতী মহিলাদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিকর উপাদান।

আরও পড়ুন: চোরকাঁটায় কমতে পারে পেটের চর্বি!

খাওয়াদাওয়া

প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে রোজের খাদ্যতালিকায় অবশ্যই রাখুন এই খাবারগুলি

food

খবরঅনলাইন ডেস্ক :  করোনাকালে সব থেকে বেশি দরকার রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ানো। তা হলে এই ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য দরকার উপযুক্ত খাবারেরও। কয়েকটি খাবার নিয়মিত খেলে রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়বেই বাড়বে।

১। রসুন –

এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে। ধমনীতে দূষিত পদার্থ জমতে দেয় না। রক্ত সংবহনতন্ত্র সংকীর্ণকারী উৎসেচক নির্গত হওয়া কমায়।

২। চকোলেট –

শুনলে অবাক হবেন না, চকোলেটও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খুব সাহায্য করে। হৃদরোগ ও স্ট্রোকের আশঙ্কা কমায়। হাভার্ডের একটি গবেষণায় জানা গিয়েছে, নিয়মিত বিশুদ্ধ কোকো খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে ও হাইপারটেনশন হয় না।

৩। আমন্ড –

এটি কগনেটিভ ফাংশনকে ভালো করে, হৃদরোগ হতে দেয় না। খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়।

৪। বেদানা –

রক্তনালি সাফ রাখতে সাহায্য করে বেদানা। প্রচুর অ্যান্টিওক্সিডেন্টে ভরপুর তাই অক্সিডেন্ট জমতে দেয় না। প্রস্টেট ক্যানসার, মধুমেহ, স্ট্রোক ইত্যাদির আশঙ্কা কমায়।

৫। বিট –

যদিও শীতকাল ছাড়া পাওয়া একটু সমস্যা। তবুও বিট স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ। প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ রয়েছে এতে।

৬। হলুদ –

হলুদের তুলনা হয় না। হৃদযন্ত্র বড়ো হয়ে যাওয়া আটকায় হলুদ। উচ্চ রক্তচাপ কমায়, মোটা হয়ে যাওয়া আটকায়। খাদ্যগুণ অসীম।

৭। আপেল –

এতে আছে প্রচুর পরিমাণ মিনারেল, অ্যান্টিওক্সিডেন্ট, ভিটামিন। হৃদরোগের আশঙ্কা কমায়, উচ্চ রক্তচাপ কমায়।

৮। বেগুন –

নাম বেগুন হলেও গুণ অপরিসীম। ফ্ল্যাবোনয়েড, খনিজ, ভিটামিন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে প্রচুর। হৃদরোগের আশঙ্কা কমায়।

৯। ব্রকলি –

রক্তনালির ক্ষমতা বাড়ায়, খারাপ কোলেস্টেরল কমায়। রয়েছে অ্যান্টিইনফ্লেমটারি উপাদান। ব্ল্যাড সুগার সংক্রান্ত সব রকম সমস্যা কমায়।

১০। গাজর –

হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে অন্যতম খাদ্য গাজর। প্রচুর খনিজ ও ভিটামিন রয়েছে। ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। হাড় ও হৃদযন্ত্রের ক্ষমতা বাড়ায়।  

পড়ুন – করোনা কালে হৃদযন্ত্রকে শক্তিশালী করতে এই ১০টি খাবার অবশ্যই খান

Continue Reading

খাওয়াদাওয়া

করোনা কালে হৃদযন্ত্রকে শক্তিশালী করতে এই ১০টি খাবার অবশ্যই খান

food

খবরঅনলাইন ডেস্ক : শুধু করোনা প্রতিহত করতে নয়, সার্বিক ভাবেই হৃদযন্ত্রকে শক্তিশালী করা দরকার। তাতে অনেক সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়। আর হৃদযন্ত্রের কার্যক্ষমতা বাড়াতে হলে নিয়ম মেনে জীবনযাপনের পাশাপাশি দরকার কিছু এমন খাবার খাওয়া যা হৃদযন্ত্রকে শক্তিশালী করতে বিশেষ ভূমিকা নেয়। এমন খাবার আমাদের চারপাশে অনেকই আছে। তার মধ্যে দশটি আজ দেখে নেওয়া যাক –

১। ছোলা বা চানামটর –

দেখতে ছোটো হলেও গুণ অনেক। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার, নানান পুষ্টিগুণ, পটাশিয়াম, ভিটামিন ইত্যাদি। এর খাদ্যগুণে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে, হৃদরোগের আশঙ্কা কমে।

২। কফি –

কফি কম না বেশি কতটা খাওয়া উচিত তা নিয়ে বিতর্ক থাকলেও কফি কিন্তু হৃদযন্ত্রের জন্য খুবই ভালো। উপযুক্ত পরিমাণ কফি সেবন হার্ট অ্যাটাক, হার্ট ফেল, করোনারি ডিজিজ ইত্যাদির আশঙ্কা কমায়।  

৩। ক্র্যানবেরি –

বেরি জাতীয় এই খাবারটি খেতেও সুস্বাদু, গুণেও ভরপুর। এতে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও খনিজ। এটি বহু রকমের হৃদরোগ, ইউরিনারি ট্র্যাক ইনফেকশন, দাঁতের সমস্যা, স্টম্যাক আলসার এবং ক্যানসারের আশঙ্কা কমায়।

৪। ডুমুর –

তেমন কদর না দিলেও ডুমুরের উপকারিতা কিন্তু প্রচুর। হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে এর তুলনা নেই। এতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম ও ফাইবার রয়েছে। কার্ডিওভাসকুলার রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষেত্রেও এর তুলনা নেই। 

৫। ফ্লেক্স সিড –

যারা মাছ ও বাদাম খান না তাদের জন্য ফ্লেক্স সিড আদর্শ। এই খাবারগুলির অভাব পূরণ করতে অর্থাৎ ওমেগা থ্রি পেতে হলে ফ্লেক্স সিড। হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যরক্ষায় এটি উপকারী। এতে আছে প্রচুর ইস্টোজেন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজগুণ।  

৬। লাল ক্যাপসিকাম –

এটি হৃদযন্ত্রের সুরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে। এটি খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৭। আদা –

যাঁরা নিয়মিত আদা খান তাঁদের জন্য সুখবর। আদা কার্ডিওভাসকুলার রোগের আশঙ্কা কমায়। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে করে, করোনারি হার্ট ডিজিজের আশঙ্কা কমায়।

৮। গ্রিন টি –

শরীর ও হৃদযন্ত্র সতেজ করে। প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ পানীয়। ট্রাইগ্লিসারয়েড, কোলেস্টেরল, এলডিএল কমায়। সুতরাং হৃদযন্ত্রকে স্বাস্থ্যবান করতে গ্রিন টি খুবই ভালো।  

৯। কিডনি বিনস –

অনেকে একে শিম বীজও বলে থাকেন। এতে ম্যাগনেশিয়াম, ফোলেট, প্রোটিন, ফাইবার রয়েছে প্রচুর পরিমাণে। খুব কম পরিমাণ ফ্যাট। সব রকম হৃদরোগ, ক্যানসারের আশঙ্কা কমায়।

১০। কমলা লেবু –

এতে প্রচুর ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, খনিজ পদার্থ, ফাইবার রয়েছে। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

দেখতে পারেন – বাতের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন? এই ৮টি খাবার খাদ্য তালিকায় অবশ্যই রাখুন

Continue Reading

কলকাতা

কলকাতায় চিকিৎসা করাতে এসে ৩০ বছর বয়সি মহিলা জানতে পারলেন তিনি ‘পুরুষ’

খবরঅনলাইন ডেস্ক: তিরিশ বছর ধরে স্বাভাবিক জীবন যাপন করে গেছেন। কোনো জটিলতা নেই। হঠাৎ শুরু হল তলপেটে ব্যথা। ছুটে এলেন ডাক্তারদের কাছে। ডাক্তাররা আবিষ্কার করলেন, রোগিণী হিসাবে যাঁর চিকিৎসা করছেন তাঁরা, তিনি আসলে রোগিণী নন, রোগী এবং তিনি অণ্ডকোষের ক্যানসারে (testicular cancer) ভুগছেন।

বিস্ময়ের ব্যাপার, এই ঘটনা প্রকাশ্যেই আসতেই সেই ‘রোগিণী’র ২৮ বছরের বোন প্রয়োজনীয় পরীক্ষানিরীক্ষা করান এবং জানা যায়, তাঁরও ‘অ্যান্ড্রোজেন ইনসেনসিটিভিটি সিন্ড্রোম’ (Androgen Insensitivity Syndrome) রয়েছে। এটা শরীরের এমন একটা অবস্থা যাতে একজন মানুষ জিন-ঘটিত দিক থেকে ‘পুরুষ’ হয়ে জন্মায়, কিন্তু তাঁর সব শারীরিক বৈশিষ্ট্য ‘মহিলা’র মতো হয়।

প্রায় এক দশক আগে বিবাহিত, বীরভুমের ৩০ বছর বয়সি সেই ‘মহিলা’ তলপেটের নীচের দিকে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে মাস দুয়েক আগে কলকাতার নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস ক্যানসার হাসপাতালে (Netaji Subhas Chandra Bose Cancer Hospital) আসেন। তখন ক্লিনিক্যাল ক্যানসার বিশেষজ্ঞ ডা. অনুপম দত্ত এবং সার্জিক্যাল ক্যানসার বিশেষজ্ঞ ডা. সৌমেন দাস তাঁকে পরীক্ষা করেন এবং তাতেই তাঁর ‘প্রকৃত পরিচয়’ জানা যায়।

ডা. অনুপম দত্ত সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন, “তাঁকে দেখে মনে হয় তিনি মহিলাই। তাঁর কণ্ঠস্বর, তাঁর উন্নত স্তন, স্বাভাবিক বহিঃস্থ জননেন্দ্রিয় – সব কিছুই মহিলাদের মতো। তবে জন্ম থেকেই জরায়ু আর ডিম্বাশয় নেই। কখনও তাঁর ঋতুস্রাব হয়নি।”

এটা একটা বিরল ঘটনা। প্রতি ২২ হাজার মানুষের মধ্যে এক জনের হতে পারে বলে ডা. দত্ত জানান।

মহিলার শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে, তাঁর যোনিপথ গুপ্ত (ব্লাইন্ড ভ্যাজিনা, Blind vagina)। তখন ডাক্তাররা কারইয়োটাইপিং টেস্ট (Karyotyping test) করানোর সিদ্ধান্ত করেন। তখন দেখা যায় তাঁর ক্রমোসোম জোড়া হল ‘এক্সএক্স’ (এক্সএক্স), ‘এক্সওয়াই’ (XY) নয়, যা একজন মহিলার থাকে।

ডা. অনুপম দত্ত আরও বুঝিয়ে বলেন – ‘তলপেটে প্রচণ্ড ব্যথার দরুন আমরা ওঁর ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা করাই। তাতে দেখা যায় তাঁর অণ্ডকোষ দু’টো শরীরের ভেতরে। বায়োপসি করা হয়। তারই পরই জানা যায় তিনি অণ্ডকোষের ক্যানসারে ভুগছেন, যাকে বলা হয় সেমিনোমা (seminoma)।”

এখন তাঁর কেমোথেরাপি চলছে এবং তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে।

ডা. দত্ত জানান, তাঁর অণ্ডকোষ শরীরের মধ্যে থাকায় সেগুলো পরিণত হয়নি। ফলে টেস্টোস্টেরন নিঃসরণ হত না। অন্য দিকে তাঁর নারী হরমোনগুলো তাঁকে মহিলার চেহারা দিয়েছিল।

এটা জানার পর সেই ‘মহিলা’র প্রতিক্রিয়া কী, জানতে চাওয়া হলে ডা. দত্ত বলেন, “এক জন মহিলা হিসাবে তিনি বড়ো হয়ে উঠেছেন। প্রায় এক দশক হল এক জন পুরুষকে বিয়ে করেছেন। এখন আমরা সেই রোগিণী এবং তাঁর স্বামীর সঙ্গে কথা বলছি। তাঁদের বোঝাচ্ছি, জীবন যে ভাবে চলে এসেছে, সে ভাবেই চলুক।”

জানা গিয়েছে, ওই দম্পতি বার কয়েক সন্তানলাভের চেষ্টা করেছেন কিন্তু স্বাভাবিক ভাবেই ব্যর্থ হয়েছেন।

অতীতে ওই মহিলার দুই মাসিরও ‘অ্যান্ড্রোজেন ইনসেনসিটিভিটি সিন্ড্রোম’ ধরা পড়েছিল। “এটা সম্ভবত ওঁদের জিনেই রয়েছে”, জানালেন ওই ক্যানসার বিশেষজ্ঞ।

Continue Reading
Advertisement
দেশ1 hour ago

ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষের গণ্ডি ছাড়াল, কিছুটা কমল রোগীবৃদ্ধির হার

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ১৯,১৪৮, সুস্থ ১১,৯১২

বিদেশ2 hours ago

আমেরিকায় আরও ভয়াবহ ভাবে জাল বিস্তার করছে করোনা, এক দিনেই আক্রান্ত ৫২ হাজার

ক্রিকেট2 hours ago

চলে গেলেন ‘থ্রি ডব্লু’-এর শেষ জন স্যার এভার্টন উইকস, শেষ হল একটা অধ্যায়

ক্রিকেট3 hours ago

২০১১ বিশ্বকাপ কাণ্ড: জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হল কুমার সঙ্গকারা, মাহেলা জয়বর্ধনকে

দেশ3 hours ago

জয়রাজ-বেনিক্স হত্যার ঘটনায় ধৃত চার পুলিশ অফিসার, মূল অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের মামলা

বিদেশ4 hours ago

চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার ভারতীয় সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল আমেরিকা

রাজ্য4 hours ago

কলকাতায় কমল কনটেনমেন্ট জোন!

দেশ2 days ago

কোভিড ১৯ আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ১৮,৫২২, সুস্থ ১৩,০৯৯

ক্রিকেট2 days ago

বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে গর্জে উঠতে আসন্ন টেস্ট সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জার্সিতে থাকছে ‘ব্ল্যাক লাইভ্‌স ম্যাটার’

kiran rao, aamir khan and azaad khan
বিনোদন2 days ago

আমির খানের বেশ কয়েকজন সহযোগী করোনা পজিটিভ

ক্রিকেট2 days ago

২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনাল: গড়াপেটার অভিযোগে ফৌজদারি তদন্তের নির্দেশ

DIY
ঘরদোর2 days ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

বিদেশ2 days ago

ভারত ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করতেই চিনের জোরালো প্রতিক্রিয়া

দেশ1 day ago

ভারতে রোগীবৃদ্ধির হার কমল অনেকটাই, সুস্থতার হার ৬০ শতাংশের কাছাকাছি

LPG
শিল্প-বাণিজ্য1 day ago

পর পর দু’মাস বাড়ল রান্নার গ্যাসের দাম

নজরে