লবঙ্গ চায়ের উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

ওয়েবডেস্ক: গ্রিন টি, লিকার টি, মিল্ক টি, এমনকি লেমন টি-এর কথাও শুনেছি। কিন্তু লবঙ্গ টি এটা হয়ত অনেকের কাছেই অজানা। কিন্তু কী ভাবে বানাবেন একবার জেনে নেবেন নাকি?

গরম জলের মধ্যে ২ চামচ  চা পাতা ফেলে ফুটিয়ে নিলেই খেল খতম। কি তাই তো? এক্ষেত্রেও একই নিয়ম। প্রথমে পরিমাণ মতো লবঙ্গ নিয়ে বেটে নিতে হবে। তারপর সেই লবঙ্গের গুঁড়ো ১ কাপ জলে মিশিয়ে কম করে ৫-১০ মিনিট ফোটাতে হবে। যখন দেখবেন জলটা ফুটতে শুরু করেছে, তখন তাতে হাফ চামচ চা পাতা ফেলে দেবেন। আর কিছু সময় অপেক্ষা করে জলটা ছেঁকে নিলেই ব্যাস লবঙ্গ টি রেডি।

কিন্তু গ্রিন টি, লিকার টি, মিল্ক টি থাকতে হঠাৎ করে লবঙ্গ টি কেন খেতে যাবেন। এই প্রশ্ন নিশ্চই মাথায় ঘুরছে। তা হলে শুনুন লবঙ্গ টি খেলে অনেক রোগের হাত থেকে যেমন মুক্তি পাবেন আবার নিমেষের মধ্যে ওজন কমবে।

artahrities

১। চটজলদি আর্থ্রাইটিসের যন্ত্রণা কমে:

১ কাপ লবঙ্গ চা বানিয়ে কয়েক ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। তারপর সেই ঠান্ডা চা ব্যথা জায়গায় কম করে ২০ মিনিট লাগালে দেখবেন যন্ত্রণা একেবারে কমে গেছে। প্রসঙ্গত, জয়েন্ট পেন কমানোর পাশাপাশি পেশির ব্যথা এবং ফোলা ভাব কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

২। স্ট্রেস লেভেল নিমেষে কমে যায়:

গবেষকরা জানিয়েছেন, আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষই স্ট্রেসের শিকার। তা হলে স্ট্রেসের শিকার থেকে যদি বাঁচতে চান,   প্রতিদিন লবঙ্গ চা খেতে ভুলবেন না যেন!

৩। ওজন কমাতে সাহায্য করে:

ওজন বেড়ে যাওয়া মানেই সে আর এক চিন্তার কারণ। কিন্তু চটজলদি ওজন কমাতে চান? তা হলে একবার লবঙ্গ চা খেয়ে দেখবেন নাকি।

প্রতিদিন নিয়ম করে সকালে ১ কাপ লবঙ্গ চা খান। দেখবেন ১ মাসের মধ্যে আপনার ওজন কমে গেছে।

আরও পড়ুন: পিরিয়ডের ব্যথা থেকে বাঁচতে এই ৫টি খাবার রাখুন বাদের তালিকায়

৪। জ্বরের চিকিৎসায় কাজে আসে:

লবঙ্গে থাকা ভিটামিন কে এবং ভিটামিন ই, রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে এতটাই শক্তিশালী করে দেয় যে ভাইরাস খুব সহজে আক্রমণ করতে পারে না। ফলে ভাইরাল ফিভারের প্রকোপ থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

 

৫। দাঁতের ব্যাথা নিমেষে কমে যায়:

লবঙ্গতে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার পর এমন কিছু বিক্রিয়া করে যে নিমেষে দাঁতের যন্ত্রণা কমে যায়। তাই তো এবার থেকে দাঁতে অস্বস্তি বা মাড়ি ফোলার মতো ঘটনা ঘটলে এক কাপ গরম গরম লবঙ্গ চা খেয়ে নেবেন। দেখবেন উপকার পাবেন।

৬। হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে:

লাঞ্চ বা ডিনারের আগে লবঙ্গ দিয়ে বানানো ১ কাপ গরম গরম চা খেলে খাবার হজম হতে সময় লাগে না। তাই যাদের কম ঝাল-মশলা দেওয়া খাবার খেলেও বদ-হজম হয়, তারা লবঙ্গ চা একবার খেয়ে দেখতে পারেন।

৭। সাইনাসের প্রকোপ কমে:

মাঝে মধ্য়েই কি সাইনাসের অসহ্য মাথা যন্ত্রনায় কাবু হতে হয়? লবঙ্গ যে এই ধরনের সমস্যা দূর করতে কাজে আসতে পারে, সে বিষয়ে কি জানা ছিল?

ওই সময়ে ১ কাপ গরম চায়ের মধ্যে ১-২টি লবঙ্গ বেঁটে দিয়ে দিন। তারপরে ধীরে ধীরে ওই লবঙ্গ চা খান। দেখবেন, সাইনাস থেকে মুক্তি পাবেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here