ব্যায়াম না করে কী ভাবে ওজন কমাবেন জেনে নিন

ওয়েবডেস্ক: এখন অফিসের কাজ মানেই দীর্ঘ সময় বসে কাজ করা, দৈহিক পরিশ্রম কম হওয়ার কারণে পেটে মেদ জমতে থাকে। আর একবার ওজন বেড়ে যাওয়া মানেই তা সহজে কমানো যায় না। আবার নিজের কাছে বড় অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

ফলে শরীরচর্চার সময় যাঁরা বের করতে পারছেন না, তাঁরা প্রতিদিনের কিছু সহজ অভ্যাসের মাধ্যমে কমিয়ে ফেলতে পারেন শরীরের অতিরিক্ত মেদ।

 ১। প্রতিদিন তিন কোয়া রসুন-

প্রতিদিন সকালে উঠেই খালি পেটে ২-৩ কোয়া রসুন চিবিয়ে খেয়ে নিন। এটি আপনার পেটের চর্বি কমাতে দ্বিগুণ দ্রুতগতিতে কাজ করবে। তা ছাড়া দেহের রক্ত চলাচলকে আরও বেশি সহজ করবে।

২। লেবুর রস-

এক গ্লাস গরম জলের মধ্যে অর্ধেকটা লেবুর রস নিন, এতে  হাফ চামচ নুন মিশিয়ে নিন। চিনি দেবেন না। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে খান। দেহের বাড়তি মেদ ও চর্বি কমাতে সব চেয়ে ভালো উপায় লেবুর রস।

৩। চিনিযুক্ত খাবার খাবেন না-

মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার, কোল্ড ড্রিংকস এবং তেলে ভাজা স্ন্যাক্স থেকে দূরে থাকুন। কেন না এ জাতীয় খাবারগুলো আপনার শরীরের বিভিন্ন অংশে, বিশেষত পেট ও উরুতে খুব দ্রুত চর্বি জমিয়ে ফেলে। তাই এগুলো খাওয়ার পরিবর্তে ফল খান।

আরও পড়ুন: আপনি কি অবসাদগ্রস্ত? জেনে নিন ১৪টি লক্ষণ

৪। মাংস থেকে দূরে থাকুন-

অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত মাংস যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। এর বদলে বেছে নিতে পারেন কম তেলে রান্না করা চিকেন।

৫। পর্যাপ্ত ঘুম-

ঘুম ভালো হলে শরীরে মেদ কম জমে এবং জমা মেদও ঝরতে সাহায্য করে।

৬। মানসিক চাপের বোঝা বইবেন না-

মানসিক চাপ যতটা পারবেন কম নেওয়ার চেষ্টা করুন। কারণ মানসিক চাপের ফলে আপনার শরীরে নানারকম সমস্যা তৈরি হতে পারে। ফলে শরীরের পাচন ক্ষমতা কমে যায় এবং শরীরে মেদ জমতে শুরু করে।

৭। প্রচুর জল খান-

প্রতিদিন প্রচুর জল খেলে আপনার দেহের মেটাবলিজম বাড়ায় ও রক্তের ক্ষতিকর উপাদান প্রস্রাবের সঙ্গে বের করে দেয়। মেটাবলিজম বাড়ার ফলে দেহে চর্বি জমতে পারে না ও বাড়তি চর্বি ঝরে যায়।

৮। প্রতিদিন ফল ও সবজি খান-

প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় এক বাটি ফল ও সবজি খান।  এতে আপনার শরীর পাবে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, মিনারেল ও ভিটামিন। আর এগুলো আপনার রক্তের মেটাবলিজম বাড়িয়ে পেটের চর্বি কমিয়ে আনবে সহজেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here