খবর অনলাইন ডেস্ক: মানসিক স্বাস্থ্য সম্বন্ধে নাগরিকদের সচেতন করতে নীরজা বিড়লার (Neerja Birla) এম্পাওয়ার এবং অমিতাভ বচ্চনের (Amitabh Bachchan) যৌথ প্রচেষ্টায় চালু হল দেশজোড়া প্রচারাভিযান ‘#SunoDekhoKaho’।

এই উপলক্ষে প্রকাশিত হল নীরজা বিড়লা ও অমিতাভ বচ্চনের কথোপকথনের ভিডিও, যেখানে তাঁরা ভারতে মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।

Loading videos...

দেশে মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যার ক্রমবর্ধমান প্রবণতা লক্ষ্য করে এম্পাওয়ার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং চেয়ারপার্সন নীরজা বিড়লা এবং বলিউড আইকন অমিতাভ বচ্চন এই সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনায় অংশ নিয়েছেন। এম্পাওয়ারের ইউটিউব, ফেসবুক এবং ইন্সটাগ্রাম পেজে আজ প্রকাশিত হয়েছে তাঁদের সেই কথাবার্তার ভিডিও। সেই খোলামেলা আলোচনায় নিজ নিজ ক্ষেত্রের এই দুই নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিত্ব মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নির্মম বাস্তবের ছবি তুলে ধরেছেন। বহু মানুষকে মানসিক স্বাস্থ্যের কারণে যে সব চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়, এবং তেমন মানুষের সঙ্গে সমাজ কী ভাবে সহানুভূতিপূর্ণ ব্যবহার করতে পারে, সে সব নিয়ে দু’জনে আলোচনা করেছেন।

দর্শকদের কার্যকরী মতামত দেওয়ার সুবিধার্থে এই আলোচনায় অকারণ ভয়ের সঙ্গে উদ্বেগের তফাত নিয়ে বিস্তারিত ভাবে কথা বলা হয়েছে। উদ্বেগের কারণে রুটিন কাজকর্মও করে উঠতে পারছেন না, এ রকম অবস্থায় পৌঁছানোর আগেই কী করে ব্যাপারটাকে সামলানো যায় তা আলোচনা করা হয়েছে।

সব মিলিয়ে #SunoDekhoKaho র পিছনের ভাবনাটাও খুব সুন্দর করে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। ‘শুনো’, এমন কেউ, যে মন দিয়ে তার কথা শুনতে পারে, যার কাউকে নিজের কথা শোনানো খুব জরুরি। ‘দেখো’, চোখ-কান খোলা রেখে মানসিক অসুস্থতার লক্ষণ এবং কষ্ট পাচ্ছেন এমন ব্যক্তিদের খেয়াল করুন। আর ‘কহো’, কাউকে সাহায্য করুন এবং মানসিক স্বাস্থ্য সম্বন্ধে সকলকে বলুন, সচেতনতা সৃষ্টি করতে সাহায্য করুন।

স্কুলের শিশু থেকে কর্পোরেট কর্মী, শিল্পী থেকে রাজনীতিবিদ, কে যে ভিতরে ভিতরে কোন সমস্যায় ভুগছেন তা বুঝতে পারা সহজ নয়। নীরজা-অমিতাভের কথাবার্তায়, মানসিক সমস্যার কথা ‘প্রকাশ’ করলে যে কলঙ্কের শিকার হতে হয় তা নিয়েও কথা বলা হয়েছে। তাঁরা মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে আরও বেশি সচেতনতা সৃষ্টি করার উপর জোর দিয়েছেন। বিশেষ করে যাঁরা শারীরিক নির্যাতন এবং নেশার শিকার, তাঁদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করা দরকার, কারণ দু’টোই মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটায়।

আলোচনা এগনোরর সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণাগুলো দূর করার চেষ্টাও করেছেন। এই ধারণাগুলোর মধ্যে সব থেকে জরুরি ধারণাটা হল, মানসিক অসুখের চিকিৎসা ব্যয়বহুল। এই ধারণার ফলে বহু মানুষ প্রয়োজনীয় সাহায্য নিতে চান না। নীরজা জানান, কী ভাবে এম্পাওয়ার সমাজের বিস্তীর্ণ অংশের মানুষের কাউন্সেলিং করেছে, যাতে কেউ সম্মানজনক জীবনযাপনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হন।

এই উদ্যোগে অমিতাভের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বিষয়ে নীরজা বললেন, “অমিতাভ অনেকদিন ধরেই স্বাস্থ্যের নানারকম সমস্যা সম্বন্ধে সচেতনতা তৈরি করার কাজে যুক্ত আছেন। সেগুলো এমন সব সমস্যা যেগুলোর সঙ্গে আমরা ভারতীয়রা লড়াই করি। সেইজন্য আমরা তাঁকে জিজ্ঞেস করেছিলাম তিনি মানসিক স্বাস্থ্যের মতো একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রকাশ্য আলোচনা করতে সাহায্য করবেন কিনা। তিনি সানন্দে এই বিষয়ে সাহায্য করতে রাজি হয়ে যান। আমরা তাঁর সঙ্গে যৌথ ভাবে এই ক্যাম্পেন করতে পেরে আনন্দিত। এ এমন এক ক্যাম্পেন, যা মানসিক ভাবে ভালো থাকার গুরুত্ব বুঝিয়ে দেয়। আমাদের সৌভাগ্য যে তাঁর মতো একজন কিংবদন্তি আমাদের সমাজের গভীরে প্রোথিত এ রকম একটা সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন”।

অমিতাভের অংশগ্রহণে এই প্রচার অন্য মাত্রা পাবে বলে আশাপ্রকাশ করে তিনি বলেন, “এত শক্তিশালী একটা স্বর মানসিক স্বাস্থ্যের সমস্যার দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে আমাদের সাহায্য করবে। এই মুহূর্তে সেটা দরকার। এক প্রচণ্ড প্রতিযোগিতার যুগে আমরা বাস করছি। এই সময় মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কথা বলা, সমস্যাগুলোর দিকে আলো ফেলা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। #SunoDekhoKaho-র মাধ্যমে আমরা নাগরিকদের শিক্ষিত করতে চাই এবং ভারতের মানসিক স্বাস্থ্য পরিষেবার সহজলভ্যতা সম্বন্ধে সচেতন করতে চাই। আমরা সত্যিই আশা করছি যে অমিতাভ যেহেতু এই কথাগুলো অনেক বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারবেন, সেহেতু মানসিক স্বাস্থ্যের সঙ্গে যে ‘কলঙ্ক’ জড়িয়ে আছে, ক্রমশ তা দূর করতে পারব”।

এক মাসব্যাপী #SunoDekhoKaho প্রচার মানুষকে শুনতে, সজাগ হতে এবং মুখ খুলে সাহায্য চাইতে উৎসাহিত করতে চায়। যাঁদের সাহায্য দরকার, তাঁদের সকলকে এম্পাওয়ার সাহায্য করবে এবং মানসিক স্বাস্থ্যের সমস্যার সাথে যুঝবার শক্তি দেবে।

আরও পড়ুন – আপনি কি কোনো কারণে হতাশা বা ডিপ্রেশনে ভুগছেন? বুঝবেন এই লক্ষণগুলি থেকে: পর্ব ২

আরও পড়ুন – আপনি কি কোনো কারণে হতাশা বা ডিপ্রেশনে ভুগছেন? বুঝবেন এই লক্ষণগুলি থেকে: পর্ব ১

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.