বাদামে রয়েছে আপনার বাচ্চার সুস্বাস্থ্য, জানুন কেন এবং কী ভাবে খাওয়াবেন

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: নিয়মিত বাদাম খাওয়ানো বাচ্চাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। বিশেষ করে, শিশুর বৃদ্ধির জন্য বাদাম খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

শিশুর পাচনতন্ত্রকে শক্তিশালী করে বাদাম। মস্তিষ্কের বিকাশেও সাহায্য করে। বাদাম খেলে বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। শুধু তাই নয়, বাদাম খেলে বাচ্চাদের হাড় ও দাঁত মজবুত হয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক, বাচ্চাদের বাদাম খাওয়ানোর সঠিক উপায় এবং তার সুবিধাগুলি কী?

Loading videos...

বাচ্চাদের কী ভাবে বাদাম খাওয়াবেন?

শিশুর বয়স ৬-৯ মাস হলে তবেই তাকে বাদাম খাওয়ান। সে ক্ষেত্রে বাদাম বেটে নিয়ে শিশুকে খাওয়ানো যেতে পারে। আবার বাদাম গুঁড়ো করেও খাওয়ানো যায়।

তবে শিশুর দাঁত গজালে তাকে গোটা বাদাম খেতে দেওয়া যাবে। সে ক্ষেত্রে ভেজানো বাদাম দিতে হবে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেন, ২-৩ বছরের বাচ্চাকে দিনে ৩-৪টি বাদাম খাওয়ানো যায়।

অবশ্যই মনে মাথায় রাখবেন, বেশ কিছু তেতো বাদাম স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে। আবার কারও কারও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে বাদামে অ্যালার্জি হতে পারে। এর ফলে ত্বকে ফুসকুড়ি এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যাও দেখা দিতে পারে। ফলে এগুলো থেকে সতর্ক থাকতে হবে।

বাচ্চাদের কেন বাদাম খাওয়াবেন?

মস্তিষ্কের তীক্ষ্ণতা এবং আইকিউ বৃদ্ধি করে

বাদামে থাকা প্রোটিন মস্তিষ্কের কোষগুলি মেরামত করতে সাহায্য করে। বাদামে ভিটামিন ই এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য ভালো। বাদামে ম্যাগনেসিয়াম থাকে, যা মস্তিষ্কের স্নায়ুকে শক্তিশালী করে।

স্মৃতিশক্তি উন্নত করে

বাচ্চাদের সামগ্রিক বিকাশের জন্য বাদাম খুব গুরুত্বপূর্ণ। বাদাম খাওয়ার ফলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে। বাচ্চাদের স্মৃতিশক্তি বাড়াতে আপনাকে অবশ্যই তাদের বাদাম দিতে হবে। এর মধ্যে ভিটামিন ই রয়েছে, যা স্মৃতিশক্তিকে উন্নত করে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করে

এখন করোনার সময় তো বটেই, এ ছাড়া অন্য সময়েও শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নিয়ে সজাগ থাকা উচিত। বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য আপনাকে অবশ্যই বাদাম খাওয়াতে হবে। পুষ্টি সমৃদ্ধ বাদাম বাচ্চাদের রক্ত ​​জমাট বাঁধা থেকে রক্ষা করে। বাদামে প্রোটিন ও আয়রনও থাকে। এ ছাড়াও অন্যান্য অনেক ভিটামিনের কারণে বাদাম বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার করে।

প্রচুর শক্তি দেয়

বাদাম খেলে শক্তির স্তর বাড়ে। বাদামে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন থাকে, যে কারণে শিশুরা তাৎক্ষণিক শক্তি পায়। ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ বাদাম ক্লান্তি দূর করতে এবং শক্তির মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে।

হাড় শক্ত করে

বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, যা হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজনীয়। শিশুর শক্ত হাড় সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজনীয়। ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন কে, প্রোটিন এবং তামা, দস্তাও বাদামে পাওয়া যায়। এগুলি হাড়কে শক্তিশালী করে তোলে।

মনে রাখবেন, শরীরের সব অঙ্গপ্রত্যঙ্গকে সচল রাখতে জলের গুরুত্ব অপরিসীম। নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমাণ জল খেলে শরীরের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়। আরও পড়তে পারেন এখানে: নিয়ম করে জল খান, থাকবেন সুস্থ, কমবে বাড়তি ওজন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন