জন্মকালীন ওজন, উচ্চতা দেবে শিশুর ভবিষ্যৎ স্বাস্থ্যের খবর, বলছে গবেষণা

baby
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: শিশু বড়ো হলে তার হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কতটা? তা বলা সম্ভব জন্মের সময়ের উচ্চতা এবং ওজন থেকেই। একটি নতুন গবেষণা থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। এই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে ‘আর্লি হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট’ পত্রিকায়।

মেডিক্যাল কলেজ অব জর্জিয়ার নবজাতক বিশেষজ্ঞ ডাঃ ব্রায়ান স্টান্সফিল্ড বলেন, জন্মের সময় শিশুর ওজন তার ভ্রূণের বৃদ্ধি সম্পর্কে জানায়। তেমনই জন্মের সময়ের শিশুর উচ্চতা ভ্রূণ ও পরবর্তী ক্ষেত্রে শারীরিক বৃদ্ধি বিষয়ে জানায়।

এই পরিমাপ পন্ডেরাল ইনডেক্স নামে পরিচিত বা পিআই। আবার বডি মাস ইনডেক্স বা বিএমআই-ও আছে। এতে উচ্চতা ও ওজনের সঠিক ছবি পাওয়া যায়। তার থেকে ভ্রূণের বৃদ্ধি সম্পর্কে ও পরে সেই শরীরের গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে জানা যায়। তাতে হৃদরোগ বা অন্য কোনো রোগ হবে কিনা জানা যায়।

পড়ুন – সাবধান! ৫ ঘণ্টার বেশি স্মার্টফোনে কাটাবেন না, বলছে গবেষণা

তা ছাড়া এর থেকে বিভিন্ন বিষয়ও জানা যায়। জানা যায় জিনগত বিভিন্ন বিষয়ও। মায়ের খাদ্যাভ্যাস, ধূমপান, অন্যান্য অভ্যাসের বিষয়ে জানা যায়। তার থেকে শিশুটির মধ্যে তার ক্রিয়া প্রতিক্রিয়া, তার কোনো রোগ হওয়ার আশঙ্কা, হৃদযন্ত্রে তার প্রভাব, ভালো মন্দ অন্য দিকগুলিও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। গবেষকদের মতে, পশু ও মানুষের ক্ষেত্রে জন্মের সময়ের ওজন কম থাকলে তার হৃদরোগ ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

গবেষণাটি করতে গিয়ে গবেষকরা কালো ও ফর্সা দুই রকমের মানুষকে নিয়েই পরীক্ষাটি করেছেন। ১৪ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে মোট ৩৭৯ জন স্বাস্থ্যবান মানুষকে নেওয়া হয়েছিল। অভিভাবকরা তাদের জন্মের সময়ের ওজন ও উচ্চতা সম্পর্কে গবেষকদের জানিয়েছিলেন। তার সাহায্যেই তাঁরা পিআই ও বিএমআই তৈরি করেছিলেন।

আরও পড়ুন – সুস্থ কোষের ক্ষতি না করেই ক্যানসার কোষ ধ্বংস রেডিওথেরাপিতে, গবেষণা

তাঁরা দেখেছেন, উচ্চতা ও ওজনের সঙ্গে মিলিয়ে হৃদপিণ্ডের পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটেছে। দেখেছেন ২৫% কিশোরের ওজন বেশি। যেটি খুব খারাপ।

যাই হোক, গবেষণাটি থেকে যা পাওয়া গিয়েছে তার মূল কথা হল, কম পিআই যাদের তাদের মধ্যে হৃদরোগের আশঙ্কা খুবই বেশি। স্টান্সফিল্ড বলেছেন, এই গবেষণাটি শিশু বিশেষজ্ঞদের অনেক সাহায্য করবে শিশুদের ভবিষ্যৎ স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন করতে। সাহায্য করবে ঠিকভাবে পথ নির্দেশ করতে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.