Connect with us

শরীরস্বাস্থ্য

এক নজরে সিওপিডি

ডাঃ অরুণাংশু ভট্টাচার্য (বক্ষরোগ বিশেষজ্ঞ) সিওপিডি বা ক্রনিক অবস্ট্রাক্টিভ পালমোনারি ডিজিজ – ফুসফুসের একটা অসুখ যাতে নিঃশ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এটা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। সিওপিডি-র ফলে কাশি হয়, সেই সঙ্গে কফ, নিঃশ্বাসে সাঁ সাঁ শব্দ, দম ফুরিয়ে যাওয়া, বুক হালকা লাগা ইত্যাদি উপসর্গ থাকে। সিওপিডি-কে বুঝতে হলে আমাদের জানতে হবে – […]

Published

on

ডাঃ অরুণাংশু ভট্টাচার্য (বক্ষরোগ বিশেষজ্ঞ)

সিওপিডি বা ক্রনিক অবস্ট্রাক্টিভ পালমোনারি ডিজিজ – ফুসফুসের একটা অসুখ যাতে নিঃশ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এটা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। সিওপিডি-র ফলে কাশি হয়, সেই সঙ্গে কফ, নিঃশ্বাসে সাঁ সাঁ শব্দ, দম ফুরিয়ে যাওয়া, বুক হালকা লাগা ইত্যাদি উপসর্গ থাকে। সিওপিডি-কে বুঝতে হলে আমাদের জানতে হবে – ফুসফুস কিভাবে কাজ করে। প্রশ্বাস নিলে বাতাস আমাদের শ্বাসনালি দিয়ে ছোট ছোট নলি ব্রঙ্কিওল্স-এ যায়। এই নালিগুলির শেষে আবার নানা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র থলি অ্যালভিউলাই (alveoli)। এই থলিগুলি থেকেই আমাদের রক্ত প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সংগ্রহ করে। সিওপিডি-র ফলে এই থলিগুলিতে কম বাতাস যায়। কেন কম বাতাস যায়, তার নানা কারণ থাকতে পারে –

Loading videos...
  • এই থলিগুলি বা বাতাস যাবার নলিগুলির স্থিতিস্থাপকতা কমে যাওয়া
  • থলিগুলির কিছু কিছু দেয়াল নষ্ট হয়ে যাওয়া
  • নলিগুলির দেয়াল মোটা হয়ে যাওয়ায় বাতাস যাবার পথ ছোট হয়ে যাওয়া
  • নলিগুলিতে কফ জমে বাতাস যাবার পথ রুদ্ধ হওয়া।

সাধারণভাবে সিওপিডি বলতে দুটো জিনিস বোঝায় – (১) ক্রনিক ব্রঙ্কাইটিস, (২) এমফিসেমা। ব্রঙ্কাইটিস

এমফিসেমা অসুখ হয়, যখন বাতাসের থলিগুলির বেশ কিছু দেয়াল নষ্ট হয়ে যায়। যেহেতু এই দেয়ালের মাধ্যমেই আমাদের রক্ত প্রয়োজনীয় অক্সিজেন পায়, নষ্ট দেয়ালের জন্যে আমাদের শরীর যথেষ্ট পরিমাণ অক্সিজেন পায় না।

সিওপিডি-র ফলে বহুলোকই কর্মক্ষমতা হারায়। বহুলোক এতে মারাও যায়। আমাদের দেশে, যেখানে বায়ু-দূষণ বেশি এবং সিগারেট খাওয়া এখনো একটা বড় নেশা – সেখানে সিওপিডি-তে যে বহু লোকে ভুগছে – সে বিষয়ে সন্দেহ নেই।

সিওপিডি শুরু হয় ধীরে ধীরে। কিন্তু বাড়তে বাড়তে এমন অবস্থায় পৌঁছয় যে, হাঁটাচলা করাও কঠিন হয়ে ওঠে। এটা মধ্য বয়সে বা বৃদ্ধ অবস্থায় ধরা পড়ে। এর কোনো ওষুধ নেই। ফুসফুসের ক্ষতি একবার হয়ে গেলে সেটাকে সারানো সম্ভব নয়। চিকিৎসার দ্বারা উপসর্গকে কিছুটা প্রশমিত রাখা যায় এবং অসুখের গতিটাকে একটু হ্রাস করা যায়।

শরীরস্বাস্থ্য

বাড়িতে কোভিড রোগীর হঠাৎ শ্বাসকষ্ট হলে কেন প্রোনিং করাবেন?

বাড়িতে প্রোনিং-এর মাধ্যমে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যেতে পারে।

Published

on

প্রোনিং

খবর অনলাইন ডেস্ক : হোম আইসোলেশনে থাকা কোভিড রোগীর অনেকক্ষেত্রে হঠাৎ প্রবল শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে হাতের কাছে অক্সিজেন সিলিন্ডার না পাওয়া গেলে বাড়িতে প্রোনিং-এর মাধ্যমে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যেতে পারে। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক সম্প্রতি একটি গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। বিপদের সময় কার্যত জীবনদায়ী ভূমিকা নেয় প্রোনিং। প্রোনিং-এর ব্যাপারে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

প্রোনিং কী?

চিৎ হয়ে শুয়ে থাকা রোগীকে বিশেষ পদ্ধতিতে উপুড় করে শুইয়ে দেওয়া। এই পদ্ধতিতে শোয়ার ফলে শ্বাস নিতে সুবিধা হয়। দ্রুত শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

Loading videos...

প্রোনিংয়ে সুবিধা কী?

এই পদ্ধতিতে শ্বাসকষ্টের কিছুটা উপশম হতে পারে। কমতে থাকা অক্সিজেন স্যাচুরেশনের উন্নতি হতে পারে। দ্রুত অক্সিজেন স্যাচুরেশনে পৌঁছতে, অক্সিজেন থেরাপির পাশাপাশি প্রোনিং করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

কী ভাবে প্রোনিং-এ উপকার মেলে?

এটি করার ফলে ফুসফুসের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্রকোষ্ঠগুলি উন্মুক্ত হয়ে ওঠে। ফলে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই-অক্সাইডের আদান-প্রদান বাড়ে। সঠিক সময় প্রোনিং শুরু করলে প্রাণ সংশয় আটকানো যেতে পারে।

কখন প্রোনিং জরুরি?

অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৯৪ শতাংশ বা তার কম হলে অক্সিজেন থেরাপির প্রয়োজন হয়। কিন্তু, অক্সিজেন না পাওয়া গেলে শ্বাসকষ্ট না থাকলেও প্রোনিং শুরু করে দিতে হবে। অক্সিজেন না পাওয়া গেলে হাসপাতালে ভর্তি না হাওয়া অবধি বেশ খানিকক্ষণ পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যেতে পারে।

রোগী চেতনাহীন অবস্থায় থাকলে?

একই পদ্ধতির অবলম্বন করতে হবে। প্রয়োজনে চাদরে সাহায্য নিয়ে বা অন্যদের সাহায্যে রোগীকে বারবার পাশ ফিরিয়ে শুইয়ে দিতে হবে।

প্রোনিংয়ের ক্ষেত্রে সতর্কতা

প্রোনিং করার সময় কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

১. ভরা পেটে এটি করা যাবে না। খাওয়ার পর অন্তত পক্ষে ১ ঘণ্টার ব্যবধান রাখতে হবে।

২. দিনে ১৬ ঘণ্টার বেশি প্রোনিং না করানোই ভালো। তাতে অবস্থার যদি উন্নতি না হয় তবে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তির চেষ্টা করতে হবে।

৩.  গর্ভবস্থা, হার্টের গুরুতর সমস্যা, ডিপ-ভেন থ্রম্বসিস, মেরুদণ্ড, ফিমার বোন বা উরুর হাড়ে আঘাত থাকলে প্রোনিং করানো উচিত নয়।

সূত্র: এই সময়

করোনা প্রতিরোধ সংক্রান্ত এই প্রতিবেদনটিও পড়তে পারেন

সংক্রমণের ঝুঁকি এড়ানোর সহজ আয়ুর্বেদিক টিপস, ঘরে বসেই বাড়িয়ে তুলুন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

আপনার শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এই ৫টি খাবার দিতে পারেন

Continue Reading

শরীরস্বাস্থ্য

Mother’s Day 2021: নতুন মায়েদের খেতে হবে পুষ্টিকর খাবার, রইল ৫টি টিপস

বিশেষ করে যে মায়েরা এখনও শিশুকে মাতৃদুগ্ধ পান করাচ্ছেন, তাঁদের অবশ্যই পুষ্টিকর খাবার নেওয়া জরুরি।

Published

on

মা ও শিশু। ছবি: ফ্রিপিক থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: অন্ত:সত্ত্বা অবস্থায় পুষ্টিকর খাবার অত্যন্ত জরুরি। কারণ নিজের পাশাপাশি গর্ভস্থ সন্তানের জন্যও পর্যাপ্ত পুষ্টির প্রয়োজন। একই রকম ভাবে সদ্য মা হয়েছেন, এমন মহিলাদের জন্যও এটা আবশ্যিক। বিশেষ করে যে মায়েরা এখনও শিশুকে মাতৃদুগ্ধ পান করাচ্ছেন, তাঁদের অবশ্যই পুষ্টিকর খাবার নেওয়া জরুরি।

কী খাবার খাবেন নতুন মায়েরা

Loading videos...

১. প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার

সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর মায়ের শারীরিক অবস্থার পুনরুদ্ধারে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ফলে নিজের প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখতে হবে প্রোটিন সমৃদ্ধ উপকরণ। যার মধ্যে রাখা যেতে পারে ডিম, মটরশুঁটি, সয়াবিন, চর্বিহীন মাংস, মসুর ডাল এবং সামুদ্রিক মাছ ইত্যাদি।

২. কার্বোহাইড্রেটযুক্ত খাবার

সদ্য মা হয়েছেন এমন মহিলাদের জন্য কার্বোহাইড্রেট খুব গুরুত্বপূর্ণ। খাবার প্রায় ৩০ শতাংশ কার্বস সমৃদ্ধ হওয়া উচিত কারণ সেগুলো স্তন্যপান করানোর জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি সরবরাহ করতে সাহায্য করে। মটরশুঁটি, ব্রকলি, আটা, বার্লি, ভুট্টা, ছোলা-সহ আরও অনেক কিছুতেই কার্বোহাইড্রেট রয়েছে।

৩. কম চিনিযুক্ত খাবার

নতুন মায়েদের মনে রাখতে হবে অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার নিজের এবং শিশুর স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। মাতৃদুগ্ধের মাধ্যমে ওই অতিরিক্ত চিনি শিশুর শরীরে যেতে পারে। যা মোটেই শিশুর সুস্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো নয়।

৪. ভালো ফ্যাটযুক্ত খাবার

স্বাস্থ্যকর অসম্পৃক্ত ফ্যাট মায়ের শরীরের জন্য ভালো। যা স্তন্যপান করানোর জন্যও অপরিহার্য। দুধ ক্যালসিয়ামের একটি দুর্দান্ত উৎস, যা হাড় শক্তিশালী করতে সাহায্য করে। নিজের খাবারের তালিকায় দই, অলিভ ওয়েল, স্যালমন ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। অতিরিক্ত ওজন এড়াতে বেশি ফ্যাটযুক্ত খাবার এড়ানো ভালো।

৫. আয়রনযুক্ত খাবার

শরীরে আয়রনের মাত্রা বজায় রাখা নতুন মায়েদের জন্য অত্যন্ত জরুরি। আয়রন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার ফলে আয়রনের ঘাটতিজনিত রক্তাল্পতা প্রতিরোধ হতে পারে। বিশেষ করে যাঁদের এ ধরনের ঝুঁকি রয়েছে। আয়রন সমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে রয়েছে শাক সবুজ শাক-সবজি, চর্বিহীন মাংস, মটরশুঁটি, মুসুর ডাল ইত্যাদি।

আরও পড়তে পারেন: আপনার শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এই ৫টি খাবার দিতে পারেন

বিশেষজ্ঞের মতামতের ভিত্তিতে প্রতিবেদন। সূত্র: এনডিটিভি

Continue Reading

শরীরস্বাস্থ্য

আপনার শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এই ৫টি খাবার দিতে পারেন

শিশুদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে এই ৫টি খাবার…

Published

on

শিশুর খাদ্য

খবর অনলাইন ডেস্ক: পেট ভরে খাওয়াতে হবে। তবেই শরীর যেমন সুস্থ থাকবে, তেমনই শিশুদের বৃদ্ধিও হবে সুষম। তবে এমন কিছু বিশেষ খাবার রয়েছে, যেগুলি শিশুদের অনাক্রম্যতা বাড়ানোর পাশাপাশি তাদের অসুস্থতার হাত থেকেও সুরক্ষা দিতে পারে।

১. ডিম

ভিটামিন ডি, জিঙ্ক, সেলেনিয়ম এবং ভিটামিন ই শিশুদের অনাক্রম্যতা বাড়াতে সহায়তা করে। এ ছাড়া প্রোটিনেরও একটা বড়ো উৎস ডিম। যা শিশুদের পর্যাপ্ত শক্তি জোগাতে সাহায্য করে।

Loading videos...

২. ফল

সুস্থ ও স্বাস্থ্যবান থাকতে প্রতিদিন ফল খাওয়া অত্যন্ত প্রয়োজন। বিভিন্ন বেরি জাতীয় ফল, আপেল, কমলালেবু, তরমুজ, আঙুর, ডালিম ইত্যাদি খাওয়ান। তবে একে বারে ছোটোদের ফলের রস করে খাওয়াতে হবে।

৩. বাদাম

বাদাম স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। এর মধ্যে ভিটামিন ই এবং ম্যাঙ্গানিজ ভরপুর। এটা শুধুমাত্র কোনো স্বাস্থ্যকর স্ন্যাক্সের মতো নয়। ছোটোদের অনাক্রম্যতা বাড়াতে আশ্চর্যজনক ভাবে কাজ করে। আবার পটাশিয়াম থাকার ফলে স্মৃতিশক্তিও বৃদ্ধি করে।

৪. দই

দইয়ের মধ্যে থাকে উপকারী ব্যাকটেরিয়া। যা শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়ক। টক দই খাওয়াতে হবে। আবার দইয়ের বিভিন্ন ধরনের রেসিপি বানিয়ে খাওয়ালে বাচ্চার আগ্রহ বাড়বে।

৫. শাক-সবজি

সবুজ শাক-সবজি শিশুদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় এবং উপকারী। যা বাচ্চাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পালং শাক, মেথি শাক অথবা ব্রকোলি খুবই উপকারী। এগুলি ছোটোদের পুষ্টির জন্যও দুর্দান্ত।

আরও পড়তে পারেন: থাইরয়েড ধরা পড়েছে? এই খাবারগুলি সম্পর্কে সচেতন হন

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
বাংলাদেশ4 hours ago

Bangladesh Covid Situation: স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বেপরোয়া চলাচল সুইসাইডের শামিল, মনে করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ5 hours ago

Bangladesh-China relation: বিরোধী জোটে যুক্ত হলে সম্পর্কের অবনতি হবে, বাংলাদেশকে হুঁশিয়ারি চিনের

Coronavirus west bengal
রাজ্য8 hours ago

Bengal Corona Update: রাজ্যের সংক্রমণচিত্রে স্থিতাবস্থা অব্যাহত, সুস্থতার হারে বৃদ্ধি, ৮ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

দেশ9 hours ago

Coronavirus Second Wave: টিকা নেওয়ার পরেও কি কোভিড হতে পারে? ব্যাখ্যা দিল সরকার

রাজ্য11 hours ago

Coronavirus Second Wave: সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডাকতে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

দেশ11 hours ago

CWC Meet: “দলকে নতুন শৃঙ্খলায় সঙ্ঘবদ্ধ করতে হবে”, ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে বললেন সনিয়া গান্ধী

প্রোনিং
শরীরস্বাস্থ্য11 hours ago

বাড়িতে কোভিড রোগীর হঠাৎ শ্বাসকষ্ট হলে কেন প্রোনিং করাবেন?

রাজ্য11 hours ago

‘গঠনমূলক কাজে সহযোগিতা করব সরকারকে’, বিরোধী দলনেতা হয়েই বললেন শুভেন্দু অধিকারী

ক্রিকেট3 days ago

IPL 2021: বাকি ম্যাচগুলি আয়োজন করতে চেয়ে বিসিসিআইকে আবেদন জানাল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড

রাজ্য3 days ago

Bengal Corona Update: রাজ্যের ১৫ জেলায় মৃত্যুহার ১ শতাংশের কম

দেশ3 days ago

Corona Update: দৈনিক সংক্রমণ কিছুটা কমলেও মৃতের সংখ্যায় রেকর্ড, তবুও মৃত্যুহার নিম্নমুখী

দেশ2 days ago

Covid Crisis: জলে গুলে খেতে হবে, করোনারোধী ওষুধে ছাড়পত্র দিল ডিজিসিআই

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: সংক্রমণের হার ফের ৩০ শতাংশ পার, বাড়ল মৃতের সংখ্যাও, তবে কলকাতা-সহ ৯ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

রাজ্য1 day ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় মন্ত্রীসভায় একাধিক নতুন মুখ

রাজ্য1 day ago

Bengal Corona Update: নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একই, রাজ্যে বাড়ল সুস্থতা

দেশ1 day ago

ভ্যাকসিন এবং কোভিডের চিকিৎসা সরঞ্জামে ট্যাক্স কেন? মমতার চিঠির পর ১৬টা টুইট কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে