জল না কি অ্যালকোহল? দেখুন শীতকালে কীসে বেশি উষ্ণ ও হাইড্রেটেড থাকবে আপনার শরীর

0

শীতকালে মদ্যপানে অনেকেরই আলাদা আকর্ষণ জন্মায়। কেউ কেউ মনে করেন, শীতের সময় হয়তো শরীরকে উষ্ণ রাখতে সাহায্য করে এক চুমুক অ্যালকোহল। কিন্তু কখনোই ভেবে দেখেন না, পানীয় জলের মধ্যেই রয়েছে সেই জাদুশক্তি। যা শীতকালে নিজেকে উষ্ণ এবং হাইড্রেটেড রাখতে অনেক বেশি কার্যকরী।

শুষ্ক বাতাসে কমে শরীরের আর্দ্রতা

শীতের সময় অনেকের কাছেই জল দেখা মানে বাঘ দেখার মতোই। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই সময়েই ডিহাইড্রেশন হার বেশি কারণ আমরা অনেক সময় পিপাসা অনুভব করি না। এ ভাবে জলের ব্যবহার কমে গেলে শরীরের স্বাভাবিক কার্যকারিতায় সমস্যা দেখা দিতে পারে।

গরমের সময় শরীর থেকে ঘাম ঝরে যায় বলে বেশি করে জলের প্রয়োজন হয়, এমনটা মনে হতেই পারে। তবে তা শীতকালের জন্যেও প্রযোজ্য। কারণ এই সময় বাতাস শুষ্ক হয়ে যায় এবং শরীরের আর্দ্রতাও হ্রাস পায়। নিয়মিত জলপান করলে ত্বক আর্দ্র থাকে।

এ ছাড়াও নিয়মিত জল পান পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে এবং ওজন বৃদ্ধি বা হ্রাস রোধও করে। শরীরকে সঠিক ভাবে পরিচালনার জন্য জলের নিয়মিত এবং দৈনিক চাহিদা মেটাতেই হবে। কারণ, খাবার হজমের জন্যও এটা একটা অপরিহার্য উপকরণ।

মূল তাপমাত্রা কমায় অ্যালকোহল

নেশাড়ুদের কথা সরিয়ে রাখা যাক। অনেকেই ভাবেন শীতের রাতে এক পেগ খেয়ে ঘুমোনোই যায়। তাতে শীতের ঝক্কি কেটে ঘুম ভালো হয় বলে মনে করেন তাঁরা। কিন্তু এই ধারণা একদম ঠিক নয়। মদ্যপানের ফলে সাময়িক ভাবে উষ্ণ অনুভূতি হতেই পারে। তবে হুইস্কি, রাম এবং অন্যান্য ধরনের অ্যালকোহল আসলে শরীরের মূল তাপমাত্রা কমিয়ে দেয়। প্রথমে গরম অনুভব করলেও ধীরে ধীরে সেটা মিলিয়ে যায়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অ্যালকোহন শরীরের স্বাভাবিক কাঁপুনি দেওয়ার ক্ষমতাকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে। কাঁপুনি মানে ঠান্ডা লাগছে সেটা ঠিক, কিন্তু কাঁপুনি আসলে শরীরের তাপমাত্রা বাড়ানোর একটা স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া।

যে ভাবে পানীয় জল দেবে উপশম

শীতকালে শুষ্ক বাতাসের কারণে শরীরের অভ্যন্তরে বেশি তরল এবং আর্দ্রতার প্রয়োজন হয়। জলের মতোই এক কাপ গরম চা বা এক বাটি স্যুপও এ ক্ষেত্রে সমান ভাবে সাহায্য করতে পারে। শরীরে আর্দ্রতা কমে গেলে ডিহাইড্রেশন হাইপোথার্মিয়া হতে পারে, যার ফলে শরীরের তাপমাত্রা কমে যায়। এটা এমন একটা অবস্থা, যখন শরীর তাপ উৎপন্ন করার চেয়ে দ্রুত তাপ হারায়। এ ক্ষেত্রে আপনাকে উপশম দিতে পারে পানীয় জল।

বিশেষজ্ঞেদের কথায়, শরীরে জল কমে গেলে রক্তের পরিমাণের উপর তার প্রভাব পড়ে। ফলে রক্ত চলাচল হ্রাস পায়। শরীর তখন তখন তাপ উৎপাদনের বদলে দ্রুত তাপ ক্ষয় করে। দেখা দেয় ডিহাইড্রেশন হাইপোথার্মিয়া। এমন পরিস্থিতিতে জলের জোগান চাই, অ্যালকোহল নয়।

আরও পড়তে পারেন:

শীতে সামান্য ঢিলেমি সমস্যায় ফেলতে পারে শিশু ও বয়স্কদের, এ ভাবেই থাকুন সতর্ক

সুস্থ জীবনযাপন বংশগত হৃদরোগের বিপদও কমিয়ে দেয়, বলছে গবেষণা

শীত আসতেই গাঁটের ব্যথায় কাবু? জানুন উপশমের ৫টি উপায়

শীতকালে কি আপনার খুব বেশি ঠান্ডা লাগে? কোনো রোগের কারণ নয় তো

ত্রিফলা ওজন কমাতেও সাহায্য করে, জানুন কী ভাবে

৫টি সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর খাবার, দেখুন শীতকালে আপনার বাচ্চার ভালো লাগবেই

৩০ বছর পেরনোর পর এই ৭টি খাবার আপনাকে খেতেই হবে

কুল থেকে কমলা, শীতে সুস্থ থাকতে যে ৫টি ফল অবশ্যই খাবেন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন