অমদাবাদ: করোনার বিরুদ্ধে লড়াই আরও কঠিন হচ্ছে কোভিডরোগীদের। চিকিৎসকরা সতর্কতাবার্তায় বলছেন, বর্তমানে চিকিৎসাধীন অথবা সম্প্রতি করোনামুক্ত রোগীদের শরীরে একটি বিরল ছত্রাকের সংক্রমণ (fungal infection) ঘটার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।

অমদাবাদের রেটিনা এবং অকুলার ট্রমা সার্জন পার্থ রানা জানিয়েছেন, তাঁর কাছে আসা পাঁচ রোগীর ক্ষেত্রে মিউকোমাইকোসিস (mucormycosis) ধরা পড়েছে। এটি এমন একটি ছত্রাকঘটিত রোগ যেটির কারণে মৃত্যুর হার প্রায় ৫০ শতাংশ। দু’জন মারা গিয়েছেন এবং সুস্থ হয়ে উঠলেও দু’জন দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছেন।

Loading videos...

তিনি জানিয়েছে, আক্রান্তদের মধ্যে চার জন পুরুষ। তাঁদের বয়স ৩৪ থেকে ৪৭ বছরের মধ্যে। গত শুক্রবার ৬৭ বছরের এক বৃদ্ধ ভুজ থেকে অমদাবাদ আসেন একই ধরনের সমস্যা নিয়ে। প্রত্যেকেরই চোখের তারাগুলি বিস্ফারিত আকার ধারণ করেছিল।

চিকিৎসক জানান, চার জনের প্রত্যেকেই সুগারের সমস্যায় ভুগছিলেন। তাঁরা স্টেরোয়েডের মতো কড়া কিছু ওষুধও নিতেন। তাঁদের অনাক্রম্যতা ছিল খুবই নিচুস্তরের।

ন্যাশনাল স্টাডি অন মিউকোমাইকোসিস ফাঙ্গাল ইনফেকশন-এ অংশগ্রহণকারী সংক্রমক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অতুল পটেল এর আগেই কোভিডরোগীদের মধ্যে এই রোগের প্রকট নিয়ে আশঙ্কার কথা শুনিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, আমরা তিন মাসে ১৯ জন সুস্থ হয়ে ওঠা কোভিডরোগীকে মিউকোমাইকোসিসে আক্রান্ত হতে দেখেছি। করোনাভাইরাস মহামারির শুরু হওয়ার আগের সময়ের তুলনায় এখন এই রোগে আক্রান্তের হার সাড়ে ৪ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে।

পটেল জানান, যাঁদের সুগারের পরিমাণ অনিয়ন্ত্রিত, উচ্চমাত্রার স্টেরোয়েড নেন এবং সব মিলিয়ে শরীরের অনক্রম্যতা কম, এমন ধরনের কোভিডরোগীদের ছত্রাকঘটিত সংক্রমণ ঘটার সম্ভাবনা থাকে।

আরও পড়তে পারেন: টেস্টের সংখ্যা ব্যাপক বাড়লেও নতুন সংক্রমণ বাড়ল সামান্যই, সুস্থ হলেন ৯৩ লক্ষ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.