ডাঃ দীপঙ্কর ঘোষ
বসন্তে কি কেবল ফোটা ফুলের মেলা ? আজ্ঞে না। এর আছে প্রচুর জ্বালা।
এক বার বহু দিন আগে, তখন প্রবল যৌবন, গাছে গাছে পলাশ-শিমূল আগুন জ্বালাচ্ছে। নাম-না-জানা ফুলে ধরাতল সমাকীর্ণ। তীব্র রোমান্টিকতায় কোনও এক নাম-না-জানা ফুল চয়ন করে নাকে গুঁজে শুঁকছিলাম। ব্যস! শুরু হল হাঁচি, নাক দিয়ে জল পড়া। লালপারা চোখ, গোটা গায়ে গোটা গোটা, চুলকানি আর র‍্যাশ। মাগো, কী কষ্ট। তিন হপ্তা অ্যান্টিঅ্যালার্জিক খেতে হল। সঙ্গী হল ইনহেলার। এই হল বসন্তের প্রথম রোগ। ফুলের রেণু থেকে অ্যালার্জি। কবি যতই ফুলের রেণু মাখতে বলুন না কেন, ব্যাপার অতি গুরুতর। বসন্তে বহু লোকের শ্বাসকষ্ট বাড়ে, অ্যালার্জি হয় — তখনই সেই ডাক্তার বদ্যি হৈহৈ কাণ্ড।
যখন আমি চেম্বারলীন — বাইরে বসন্ত। কোকিলের কুহু কুহু মলয় পবন ইত্যাদি ইত্যাদি। ক’দিন ধরেই শরীরটা কেমন কেমন করছে। জ্বর জ্বর ভাব, গা হাত পা ব্যথা, মাথা ঝিমঝিম। মহা অশান্তি। ক’দিন পরেই গালে মুখে ক’টা মশার কামড়ের দাগ। গায়ে পিঠেও। এক দিন দাড়ি কামাতে গিয়ে দেখি একটা মশার কামড়ের দাগের ভিতরে জল জমেছে। জলফোস্কা! কী কাণ্ড! এত চিকেন পক্স!
চিকেন পক্স হয় একটা দুষ্টু প্রাণী শরীরে ঢুকলে। জন্তুটার নাম vericella zoster। ডাকনাম ভাইরাস (যদিও ডাকনামটি অবৈজ্ঞানিক)। রক্তে ঢুকলে চিকেন পক্স, নার্ভে ঢুকলে হারপিস। প্রথম প্রথম গা হাত ব্যথা, নাকে জল, কাশি। তখন থেকেই শুরু হয় রোগ ছড়ানো। তার পর গায়ে মুখে জলফোস্কা। যত দিন গায়ে ফোস্কা বেরোবে তত দিন রুগী অসুখ ছড়াবে। আমাদের ভুল ধারণা আছে যে কেবলমাত্র মামড়ি খসার সময়ে রোগ ছড়ায়। একটা একদম ভুল ধারণা।
চিকেন পক্স জীবাণু শরীরে ঢোকার পনেরো দিন পরে আক্রান্ত মানুষের শরীরে রোগের লক্ষণ ফুটে ওঠে। সেই সময় যার পক্স হয়েছে তার মামড়ি খসার সময় হয়েছে শুরু। তাই লোকে ভাবে খসা মামড়ি থেকে রোগ ছড়ায়। সেটা কিন্তু সত্য নয়কো। অবশ্য বসন্ত যে শুধু বসন্তকালেই হবে এমন কোনও কথা নেই।
আজকাল আবার বিজ্ঞানের কৃপায় পক্সের ওষুধ আর টিকাও বেরিয়েছে। আগে চিকেন পক্সের দিদি স্মল পক্স খুব হৈহৈ করত। সে এখন স্বর্গগতা।
আরও একখান জব্বর বসন্তকালীন রোগ আছে। কোকিলের কুহু ডাকে, মাধবীলতার দোদুল দোলায়, পলাশের লালে সে রোগ বাড়ে। পাশের বাড়ির ইয়েকে দেখে হৃদস্পন্দন বেড়ে যায়। নিঃশ্বাসবায়ু হুহু করে বইতে থাকে। সে রোগের খবর আমি জানিনে। আমার রবুদাদা জানে। ধন্যবাদ, তবে আজ আসি?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন

1 COMMENT