সারা দিন ল্যাপটপ, মোবাইল ঘেঁটে চোখে ব্যথা? কী পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক:  করোনার ফলে বদলেছে অফিসের মানে। এখন বেশির ভাগ অফিসই হচ্ছে বাড়ি থেকে। ফলে কাজের সময় অনেক বেড়ে গিয়েছে। সঠিক সময় কাজে বসলেও কখন উঠছেন তার কোনো ঠিক থাকছে না। মোবাইল, ল্যাপটপ বা ট্যাবের দিকে সারা দিন তাকিয়ে থাকা। কখনও কাজের জন্য, কখনও বা শুধুই বিনোদনের জন্য। তবে বেশির ভাগ মানুষই এই ব্যথাকে অবহেলা করে দিব্য আছেন। চিকিৎসকরা বলছেন, এই অবহেলাই ডেকে আনছে বিপদ! এমনকি তাঁরা শিকার হচ্ছেন কঠিন চোখের অসুখের! তবে এই বিপদ থেকে খুব সহজেই দূরে থাকা যায়। শুধু মানতে হবে কয়েকটি নিয়ম।

কী কী নিয়ম

সকাল উঠে সবুজের দিকে তাকানোর অভ্যাস করুন। সবুজ রং চোখে আরাম দেবে। রোদে বের হলে অবশ্যই সানগ্লাস ব্যবহার করুন। এতে চোখ ভালো থাকে।

Shyamsundar

কাজ করার সময় একভাবে ল্যাপটপ বা ফোনের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকবেন না। তার চেয়ে মাঝে মধ্যে অন্য দিকে তাকিয়ে নিন। সময় বের করে কাজ থেকে উঠে কিছুক্ষণ ঘরের জানলার পাশে দাঁড়ান। চোখকে আরাম দিন। কিছুক্ষণ চোখ বন্ধ করে রাখুন। এতে চোখ অনেক বিশ্রাম পাবে। 

কাজের ফাঁকে মাঝে মধ্যেই চোখে জলের ঝাপটা দিন। দেখবেন আরাম পাবেন। তবে খুব জোরে ঝাপটা দেবেন না। এতে চোখের ক্ষতি হতে পারে। তাই হালকা করে চোখ ধুয়ে নিন। এতেও চোখ অনেকটা আরাম পাবে। 

আপনার চোখে হয়তো পাওয়ার নেই কিন্তু কাজের সময় চশমা পরুন। কম্পিউটার বা ল্যাপটপের স্ক্রিন থেকে যে নীল আলো বেরোয় তা চোখের পক্ষে খুবই খারাপ। তাই পাওয়ার না থাকলেও ব্লু কোটিন লাগানো চশমা তৈরি করে নিন। আর কাজের সময় সেটি পরে করুন। এতে চোখে আরাম পাবেন। 

সঠিক উচ্চতার চেয়ার-টেবিলে বসে মনিটর ২২ ইঞ্চি দূরে রেখে কাজ করুন। ঘরের আলোর উজ্জ্বলতা যেন মনিটর থেকে একটু কম থাকে। সকালে রোদে বের হওয়ার সময় খালি চোখে বের হবেন না। অবশ্যই সানগ্লাস পরুন।

কাজ থেকে ওঠার পর একেবারেই মোবাইলের দিকে তাকাবেন না। ইচ্ছে করলেও মনকে বোঝান। সেই সময়টা চোখ বন্ধ করে বেশ কিছুক্ষণ শুয়ে থাকুন। সব ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। 

চোখেরও ব্যায়াম রয়েছে, যা দৃষ্টিশক্তিকে সবল করে তোলে। দিনে অন্তত একবার চোখের ব্যায়াম করা উচিত।

আরও পড়ুন: কিডনিতে পাথর: প্রচুর জল খান, খাদ্যের দিকে নজর দিন, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

আরও পড়ুন: সঠিক খাবার, নিয়মিত ব্যায়াম, ওজন নিয়ন্ত্রণ ওভারিয়ান সিস্টের আশঙ্কা কমায়, বলছেন চিকিৎসকরা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন