জেনে নিন কী করবেন

ওয়েবডেস্ক: আধুনিক অলস জীবনযাত্রার কারণে কমবয়সি ছেলে-মেয়েদের কোলেস্টেরল বাড়ার সমস্যা হতেই পারে। এ ছাড়া জিনগত কারণেও কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ে, যাকে বলে হাইপারকোলেস্টেরলেমিয়া।

কিন্তু কোলেস্টেরল থেকে মুক্তি পেতে কী করবেন আসুন জেনে নেওয়া যাক।

কোলেস্টেরলকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে কী কী করবেন-

১। হাঁটুন এবং ব্যায়াম করুন :

শারীরিক পরিশ্রম ও ব্যায়াম শুধু রক্তে ক্ষতিকারক কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমায় না, উপকারী কোলেস্টেরলের পরিমাণ বাড়ায়। জোরে জোরে হাঁটলেও এমন উপকার পাওয়া যায়। নৈশভোজের পর কমপক্ষে ৪৫ মিনিট হাঁটুন।

কেউ যদি প্রতিদিন সিঁড়ি বেয়ে ওঠানামা করেন, তা হলে উপকৃত হবেন। কেউ যদি অফিসে চাকরি করেন, তার উচিত অন্তত প্রতি ঘণ্টায় ৫ মিনিট হাঁটা বা চলাফেরা করা। আপনি যে ধরনের ব্যায়াম করুন না কেন, তা নিয়মিত করতে হবে। যদি আপনি বাসে বা ট্যাক্সি করে অফিসে যাতায়াত করেন, তা হলে চেষ্টা করুন আগের স্টপেজে নেমে হেঁটে যেতে।

২। চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়া বন্ধ করুন :

কোলেস্টেরল কমানোর সহজ উপায় হচ্ছে ডিমের কুসুম এবং অন্যান্য বেশি কোলেস্টেরলযুক্ত খাবার না খাওয়া। তবে শুধু খাবারের কোলেস্টেরলই রক্তে কোলেস্টেরল বাড়ানোর জন্য দায়ী নয়। রেড মিট, তৈলাক্ত মাছ না খেয়ে যতটা পারবেন সবুজ শাকসবজি খাওয়ার চেষ্টা করুন।

আরও পড়ুন: শীতে কী ভাবে চাঙ্গা রাখবেন নিজের শরীর? জেনে নিন সহজ ৫টি টিপস

৩। জাঙ্কফুড খাওয়া বন্ধ করুন:

মাত্রাতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড এবং অসংলগ্ন জীবনযাত্রার কারণে অনেক সময় শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে যায়। এ ছাড়া দৈনন্দিন ডায়েটের কারণেও এমনটা হতে পারে।

তাই নিয়মিত জাঙ্কফুড খাওয়া বন্ধ করে বরং সপ্তাহে ১ দিন খেলেই আপনার শরীরের জন্যই ভালো।

৪। মদ্যপান বন্ধ করুন :

অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। এতে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে যায়।

৫। ধূমপান বন্ধ করুন :

ধূমপান করলে রক্তে উপকারী কোলেস্টেরল বা বেশি ঘনত্বের কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমে যায়। রক্তের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতে অবশ্যই ধূমপান ছেড়ে দিতে হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here