কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পরে হৃদরোগের ঝুঁকি কি বাড়ছে?

0

কোনো অনুষ্ঠানবাড়ি হোক বা খেলার মাঠ। পার্টিতে নাচের সময় হোক বা জিম করার সময়, আচমকা কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের একের পর এক ঘটনা সামনে আসছে। এ ক্ষেত্রে বয়সেরও নেই কোনো বাঁধাধরা গণ্ডি। কোনো কোনো ক্ষেত্রে মৃত্যুর ঘটনা পর্যন্ত ঘটছে। এ ধরনের ঘটনার কারণ হিসেবে পরোক্ষে কোভিডকেই কাঠগড়ায় তুলছেন একাংশের বিশেষজ্ঞরা।

সম্ভাবনা আড়াই গুণ বেশি!

নবভারত টাইমস-এর প্রতিবেদনে দেশের প্রখ্যাত কার্ডিওলজিস্ট এবং ফর্টিস এসকর্ট হার্ট ইনস্টিটিউটের প্রধান ডা. অশোক শেঠের মন্তব্য উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, সারা বিশ্বে কোভিড রোগীদের হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা আড়াই গুণ বেড়েছে। কোভিড অবশ্যই হার্টকে প্রভাবিত করে। যাঁরা কোভিডের গুরুতর রোগী ছিলেন, তাঁদের হার্ট অ্যাটাক বা হার্ট সম্পর্কিত অন্যান্য সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা আড়াই গুণ বেশি।

একই সঙ্গে ডা. শেঠ জানান, ভারতের হাতে এমন কোনো তথ্য নেই, যা সামনে রেখে বলা যায়, কোভিড থেকে সুস্থ হওয়া রোগীদের হৃদরোগের ঝুঁকি রয়েছে। কিন্তু পশ্চিমী দেশগুলোতে একটি গবেষণা হয়েছে। প্রায় ছ’ক্ষ রোগীকে এক বছর ধরে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। যেখানে দেখা গিয়েছে, কোভিড রোগীদের মধ্যে হার্ট অ্যাটাক এবং অন্যান্য হৃদরোগের ঝুঁকি আড়াই গুণ বেশি।

খবর অনলাইন-এ আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য সাবধান : হার্ট অ্যাটাক, কী করে বুঝবেন ? কী করবেন

দেড় বছরের বেশি সময় ধরে প্রভাব

কার্ডিয়াক সায়েন্সেস-এর প্রিন্সিপাল ডিরেক্টর এবং ক্যাথ ল্যাবসের প্রধান (প্যান ম্যাক্স) ডা. বিবেক কুমার হিন্দুস্তান টাইমস-এর কাছে বলেন, সম্প্রতি আমরা দেখছি, নাচ অথবা গাড়ি চালানোর সময়, অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বা ব্যায়াম করার অপেক্ষাকৃত কমবয়সিরা হৃদরোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। এমনকী কয়েক জন মারাও গিয়েছেন। কোভিডে সংক্রামিত হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠার পরেও এ ধরনের ঘটনার বৃদ্ধি ধরা পড়েছে।

তিনি বলেন, কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরেও দেড় বছরের বেশি সময় ধরে তার প্রভাব স্থায়ী হতে পারে বলে জানাচ্ছে কয়েকটি গবেষণা। হয়তো বা কোভিডের রেশ থেকেই কার্ডিওভাসকুলার আকস্মিক মৃত্যু এবং মায়োকার্ডিয়াল ইনফ্রাকশনের বৃদ্ধি দেখা যাচ্ছে।

খবর অনলাইন-এ আরও পড়ুন: হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি জেনে নিন

পর্যাপ্ত তথ্য এবং প্রমাণ নেই!

বৈশালীর ম্যাক্স সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের ডিরেক্টর ডা. সমীর কুব্বা সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-এর কাছে বলেন, “এটা কোভিডের প্রভাবে ঘটছে কি না, সে বিষয়ে স্থির সিদ্ধান্তে আসার জন্য আমাদের কাছে পর্যাপ্ত তথ্য এবং প্রমাণ নেই। কিন্তু বাস্তব পরিস্থিতি বলছে, কোভিড-পরবর্তী সময়ে এটা বেড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, দীর্ঘমেয়াদি কোভিড সিক্যুয়াল সম্ভবত এর জন্য দায়ী”।

সবমিলিয়ে কার্ডিওলজিস্টদের মতে, হৃদরোগে অপ্রত্যাশিত ভাবে মৃত্য়ু বৃদ্ধির ঘটনা যথেষ্ট উদ্বেগজনক। একই সঙ্গে তাঁরা জানিয়ে রাখছেন, আকস্মিক মৃত্যুর বেশিরভাগই হার্ট অ্যাটাকের কারণে হয় তবে প্রতিটি আকস্মিক মৃত্যু হার্ট অ্যাটাকের কারণে হয় না।

খবর অনলাইন-এ আরও পড়ুন: হার্ট অ্যাটাকের কারণকেই খেয়ে ফেলবে এক ধরনের ন্যানো পার্টিকেল, গবেষণা

সবচেয়ে ঝুঁকি প্রথম ৩০ দিন

একটি গবেষণা জানিয়েছে, কোভিডের পরে প্রথম ৩০ দিনের মধ্যে হার্ট অ্যাটাক বা ফেলিওর থেকে মৃত্য়ুর ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। কিন্তু তার পরেও যে একেবারে ঝুঁকি থাকে না, সেটাও বলা যাচ্ছে না। কোনো কোনো ক্ষেত্রে উচ্চতর ঝুঁকি থেকে যাওয়ারও তথ্য উঠে এসেছে।

এ বিষয়ে হার্ট জার্নালে প্রকাশিত ব্রিটেনের বায়োব্যাঙ্কের একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের দুর্বলতা এবং মৃত্যুর উচ্চ ঝুঁকির সঙ্গে কোভিডের সম্পর্ক রয়েছে। বিশেষ করে যাঁরা সংক্রমণের পর গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকি বেশি।

খবর অনলাইন-এ আরও পড়ুন: পুরুষদের হার্ট অ্যাটাকের আগে ৬টি সংকেত জেনে নিন

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন