ওয়েবডেস্ক: ঘুমের সময় ব্রা পরে শোওয়ার অভ্যাস আছে অনেক মহিলারই। তাঁদের জন্য সতর্কতা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই অভ্যাস ছাড়তে পারলেই মঙ্গল। কারণ—–

১) রক্ত সঞ্চালন বন্ধ

ঘুমের সময়ও চাপা অন্তর্বাস পরে থাকলে তা শরীরের ওই অংশের মাংসপেশিতে রক্ত সঞ্চালন ঠিক মতো হতে দেয় না। পেশি আর স্নায়ুগুলো শিথিল হওয়ার সুযোগ পায় না। ফলে স্বাভাবিকতা ব্যাহত হয়। তাই টাইট অন্তর্বাস এমনকি স্পোর্টস ব্রা কোনোটাই ঘুমের সময় পরে থাকা উচিত না।

২) অস্বস্তি লাগা

এর ফলে একটা চাপা ভাব কাজ করে। এই চাপা ভাব ঘুমের ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। অভ্যাসের কারণে বুঝতে না পারলেও তা শরীরের পেশি স্নায়ুতে একটা অস্বস্তি তৈরি করে। এই অস্বস্তি শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

৩) চামড়ার রঙ পরিবর্তন

এই অভ্যাসের ফলে অনেক সময়ই চামড়ার রঙ কালো হয়ে যায়। খুব চাপা অন্তর্বাস পরলে তা চামড়ার সঙ্গে সারাক্ষণ ঘষা খায়। ফলে তার থেকে চামড়ায় কালো ছোপ তৈরি হয়।

আরও পড়ুন : মধুচন্দ্রিমাকে উদ্দাম করে তুলতে সঙ্গে রাখুন এই ৯ অন্তর্বাস

৪) ফাঙ্গাসের আঁতুড় ঘর

ঠিকঠাক মাপের অন্তর্বাস না পরলে তা এমনিতেই শরীরে নানা রকম সমস্যা তৈরি করে। তাঁর মধ্যে একটা হল ফাঙ্গাস। বিশেষত ঘুমের সময় তা পরে থাকা মানে স্তনের নীচের অংশে এই ফাঙ্গাসের বৃদ্ধি বাড়িয়ে দেওয়া।

৫) ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়

রাতে অন্তর্বাস পরে থাকলে তা যেমন রক্ত সঞ্চালনে বাধা সৃষ্টি করে। বাধা সৃষ্টি করে লসিকা সংবহনেও। ফলে তৈরি হয় প্রদাহ বা ফুসকুড়ি। যা পরবর্তীতে টিউমারের আকার ধারণ করতে পারে। শরীরের লসিকাগ্রন্থী বা লিম্ফ গ্ল্যান্ডগুলো স্তনের টক্সিন কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু ঘুমের সময়ও অন্তর্বাস পরা থাকলে সেই কাজ ঠিক মতো হতে পারে না। ফলে কুপ্রভাব পরে লিভার, কিডনি ও শরীরের অন্যান্য অংশের ওপর। সেই সব অংশগুলোতেও ওই টক্সিন জমতে থাকে। এর ফলে ব্ল্যাড ক্যানসারের সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here