hormonal birth control pills

ওয়েবডেস্ক: পুরনো গর্ভনিরোধক ট্যাবলেটের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়টি নিয়ে সংশয় দিনে দিনে বেড়েই চলেছে। এই ধরনের ওষুধ নিয়মিত সেবনের ফলে একাধিক সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন সেবনকারী। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য মহিলাদের হাড়-জনিত সমস্যা। গোপনাঙ্গে সমস্যা তৈরিতেও ভূমিকা নিয়ে থাকে এ ধরনের ওষুধ, এমনটাই অভিমত চিকিৎসকদের।

সমস্যা কাটাতে  এবং চটজলদি ব্যবহারের জন্য বাজারে এসেছে আধুনিক এক ধরনের গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট, যা যৌন সংযোগের পর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সেবন করলেই কাজ হাসিল। দামে চড়া হলেও এগুলির আসল মজা, একবার নিলেই চলে। বা ভুলবশত জরুরি পদক্ষেপ নেওয়ার পরেই এর কার্যকারিতা। আই পিল, আনওয়ান্টেড ৭২, প্রিভেনটল, ট্রাস্টন ২, নেক্সট টাইম পিল নামের এমন কিছু আপৎকালীন ওযুধ বাজারে পাওয়া যায়। তবে এদের বেশির ভাগ সংস্থাই বলে থাকে, বরাবরের মতো জন্ম নিয়ন্ত্রণে এই ধরনের ট্যাবলেট নিয়মিত সেবন করা ঠিক নয়।

সম্প্রতি ডেনমার্কের একটি গবেষণা জানাচ্ছে, এই ধরনের ট্যাবলেট মহিলাদের স্তন ক্যানসারে প্রবণতা বাড়িয়ে তুলতে পারে। তবে তা অবশ্যই এক নাগাড়ে দীর্ঘদিন ব্যবহার করলেই সম্ভব। ৭৭০০ জন মহিলার উপর পর্যবেক্ষণ চালিয়ে এ ধরনের একটি ঘটনার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। ইস্ট্রোজেন হরমোনের ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ হওয়ায় পুরনো ট্যাবলেটের থেকে উন্নতমানের হলেও স্তন ক্যানসারের বিষয়টি নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। অন্য দিকে আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটির বিশেষজ্ঞ মিয়া গাউডেটও বলেছেন, এই ধরনের ট্যাবলেটে কোলন, জরায়ু এবং ডিম্বাশয়ে ক্যানসারের কোনও রকমের সম্ভাবনাই নেই। তবে স্তন ক্যানসারের বিষয়টি নিয়ে আরও গবেষণার দরকার আছে।

যদিও হার্ভার্ড’স ব্রিগহ্যাম অ্যান্ড উইমেন্স হসপিটালের প্রিভেন্টিভ মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. জোয়ান ম্যানসন জানিয়েছেন, অত্যাধুনিক এই হরমোনাল গর্ভ নিরোধক ট্যাবলেট সব দিক থেকেই সুরক্ষিত। জন্ম নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি মহিলাদের শারীরিক দিকটির কথা মাথায় রেখেই বহু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এ ধরনের ট্যাবলেট বাজারে এসেছে। অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here