condom

ওয়েবডেস্ক: ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের কড়া ফরমান- সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে টিভিতে কন্ডোমের বিজ্ঞাপন দেখানো যাবে না! তা নাকি অশালীন! এর থেকে ছোটোরা ভুল শিখবে!

বেশ কথা! আমরাও এই ১৬ ঘণ্টা বরং মুখ বুজে থাকি! দুনিয়া উচ্ছন্নে যাক, পরিবারের নয়া প্রজন্ম সুখের খোঁজে এগিয়ে যাক অসুখের দিকে। কিন্তু আমরা এই নিয়ে কথা বলব না। তাদের সচেতন করে দেবো না কন্ডোম ব্যবহারের উপকারী দিকগুলো নিয়ে!

condom

দোরগোড়ায় এসটিডি:

এদিকে সমীক্ষা বলছে, ভারতে হালফিলে যে সব অসুখ প্রায় ঘরে ঘরে ঢুকে পড়েছে, তার সিংহভাগ জুড়ে রয়েছে সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড ডিজিজ বা এসটিডি। অর্থাৎ, অসুরক্ষিত মিলন ডেকে এনেছে বিপদের কারণ। অথচ স্রেফ একটা কন্ডোমের ব্যবহারই সুরক্ষিত রাখতে পারত। কিন্তু ওদিকে রয়েছে সরকারি নিষেধাজ্ঞা এবং আমরাও বাধ্য নাগরিক, তাই এসব নিয়ে কোনো কথাই হবে না! পরিবারের নতুন প্রজন্ম যদি তেমন কোনো অসুখের শিকার হয়, তবে ভেবে দেখা যাবে। আগে থেকে সাবধান করে দেবো না!

condom

যা হবে, লুকিয়ে-চুরিয়ে:

সেক্স নিয়ে ছুঁৎমার্গ এখনও এদেশ থেকে লোপ পায়নি। আবার, সমীক্ষার খবর অনুযায়ী বাড়ছে নতুন প্রজন্মের মধ্যে অবাধ শরীর দেওয়া-নেওয়া। যার জেরে সেক্সুয়ালি সক্রিয় কোনো মানুষের ২৫ বছর বয়স হওয়ার আগেই এসটিডি-তে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে! তা যাচ্ছে যখন যাক! এদেশে যৌনশিক্ষা বারণ, আর এখন কন্ডোম নিয়ে প্রচারও! ফলে মুখ বুজেই থাকি না হয়!

ছুঁৎমার্গ থাকুক, সঙ্গে অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ সমস্যাও:

অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ? মানছি, সমাজে বাড়ছে তার সংখ্যা। কন্ডোম তার থেকে রেহাই দিতে পারত ঠিকই, কিন্তু প্রচার নিয়ে নিষেধাজ্ঞা থাকায় চুপ করে যাওয়াই ভালো! বরং, গর্ভনিরোধক পিলের দিকেই হাত বাড়ানো যাক! হ্যাঁ, তাতে আখেরে শরীরের মারাত্মক সব ক্ষতি হবে! হোক গে! সরকার তো আর সেসবের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। আর হ্যাঁ, গর্ভপাতের দিক নিয়েও আলোচনা করবেন না! ওটাও কিন্তু বারণ!

condom

গড়ে উঠুক যৌন-অসচেতন জাতি:

ভারতের তথ্য আর সম্প্রচার মন্ত্রকের মতামত, ছোটোদের কন্ডোমের বিজ্ঞাপন থেকে দূরে রাখতে হবে! বেশ কথা! তাদের তাহলে নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য সচেতনতা, বৈজ্ঞানিক দিক- এসব থেকেও দূরে রাখাই ভালো! অসুখ হয়, হবে! কী আর করা যাবে!

আর যদি আলোচনা করতেই হয়?

তার সময়সীমা তো বেঁধেই দিয়েছে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। সেটা মেনেই না হয় কথাবার্তা হোক! মাঝরাতে ঘুম থেকে পরিবারের নতুন প্রজন্মকে ডেকে তুলে! অথবা, যখন তারা ঘুমে ঢলে পড়ছে, এমন কোনো সময়ে!

ভালো কথা! ইচ্ছে হলেও এই পোস্টটা কিন্তু সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে শেয়ার করবেন না! সরকারি সিদ্ধান্ত সর্বান্ত‌ঃকরণে মেনে নেওয়াই তো সুনাগরিকের কর্তব্য, তাই না?

condom

পুনশ্চ‌: শুধুই যৌনতা নয়। কন্ডোম দিয়ে হালফিলে পোশাকও তৈরি করছে ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি। শুধু কন্ডোম দিয়েই তৈরি হচ্ছে দারুণ ফ্যাশনেবল গাউন, শাড়ির কারুকাজে চোখ টানছে কন্ডোমের শৈলী। তা টানুক গে! সরকারি নির্দেশ মান্য করে এসব নিয়েও কথা না বলাই ভালো!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here