Connect with us

শরীরস্বাস্থ্য

নিউমোনিয়ায় প্রতি ৩৯ সেকেন্ডে একজন করে শিশুর প্রাণ গিয়েছে: স্বাস্থ্য সংস্থা

Published

on

child

ওয়েবডেস্ক: ভারত, পাকিস্তান, নাইজেরিয়া, গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গো, ইথিওপিয়াতে গত বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালে নিউমোনিয়ায় মারা যাওয়া শিশুর সংখ্যা এই রোগে মারা যাওয়া মোট সংখ্যার অর্ধেকের বেশি। এদের বয়স দুই বছরের মধ্যে।

প্রতিরোধযোগ্য ও নিরাময়যোগ্য ব্যধি হওয়া সত্বেও নিউমোনিয়ায় গত বছর আট লক্ষেরও বেশি শিশু মারা গিয়েছে। অথবা বলা যেতে পারে, প্রতি ৩৯ সেকেন্ডে একটি শিশু মারা গিয়েছে। মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একটি রিপোর্টে সে কথা জানিয়েছে।

ওই রিপোর্টে এই নিউমোনিয়াকে ‘ফরগটেন এপিডেমিক’ বলে বর্ণনা করা হয়েছে। এই রোগের চিকিৎসার উন্নতিতে ও তার জন্য উপযুক্ত ভ্যাকসিন অর্থাৎ প্রতিষেধক ও ওষুধ তৈরি করতে যথেষ্ট পরিমাণে অর্থ বরাদ্দ করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছে ইউনিসেফ ও বিশ্বের আরও পাঁচটি স্বাস্থ্য সংস্থা।

এই বিষয়ে গ্যাভি ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্সের চিফ এক্সিকিউটিভ শেঠ বার্কলে বলেন, নিউমোনিয়া একটি সহজে ধরা পড়ে যাওয়া রোগ, এটি নিরাময় যোগ্য, প্রতিরোধযোগ্যও বটে। তা সত্বেও এই এত পরিচিত একটি রোগই শিশুদের জন্য ভয়ানক মহামারী হিসাবে বিশ্বে রয়েছে। এটি খুবই আতঙ্কের এবং দুঃখেরও।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন দূষিত বাতাস শিশুদের নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার একটি বড়ো কারণ। তাই ঘরের ভেতরের বায়ুদূষণ মুক্ত করতে হলে পড়ুন – ঘরের ভেতরের দূষণ ক্ষতি করে বেশি, বিশুদ্ধ বাতাসের জন্য ৫টি সহজ উপায়

উল্লেখ্য, নিউমোনিয়া হল একটি ফুসফুস সংক্রান্ত রোগ। এটি সাধারণত হয়, ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাস ও ভাইরাসের আক্রমণের কারণে। এই সবে আক্রান্ত রোগীর ফুসফুস পুঁজ, সর্দি ও তরল পদার্থে পূর্ণ হয়ে যায়। তার ফলে শ্বাসপ্রশ্বাস চালিয়ে যাওয়ার জন্য রীতিমতো লড়াই করতে হয় রোগীকে।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী ভ্যাকসিন ও অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধের দ্বারা এর প্রতিরোধ করা সম্ভব। তবে বাড়াবাড়ি ক্ষেত্রে অনেক সময়ই অক্সিজেন দিতে হয়। কিন্তু পরিসংখ্যান অনুযায়ী গরিব দেশগুলিতে এগুলি প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম।  

সেভ দ্য চিলড্রেন সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ কেভিন ওয়াটকিন্স বলেন, অক্সিজেন, ভ্যাকসিন, সস্তার অ্যান্টিবায়োটিক, ওষুধ ইত্যাদির অভাবে লক্ষ লক্ষ শিশু মারা যাচ্ছে। এটি একটি ‘ফরগটেন গ্লোবাল এপিডেমিক’। এই ব্যাপারে সত্বর আন্তর্জাতিক স্তরে সাড়া জাগানো দরকার।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, মৃতদের মধ্যে ১৫%-ই পাঁচবছরের কম বয়সি শিশু। কিন্তু সেই তুলনায় গবেষণার কাজে খুব সামান্যই ব্যয় করা হচ্ছে।

শরীরস্বাস্থ্য

কোভিড-১৯: স্কুল খোলার আগে নিজের সন্তানকে এই ৫টি তথ্য অবশ্যই জানাবেন

স্কুল খোলার আগে সন্তানকে জানানোর জন্য ৫টি প্রয়োজনীয় তথ্য।

Published

on

নয়াদিল্লি: কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) বিরুদ্ধে লড়াই করছে গোটা বিশ্ব। সংক্রমণের নিরিখে ভারত এখন দ্বিতীয় স্থানে।

অর্থনীতি, কর্মসংস্থান বা অন্যান্য ক্ষেত্রের মতোই শিক্ষাক্ষেত্রও বড়োসড়ো সংকটের মুখে। অনলাইন ক্লাস (Online class) চললেও সেটা নির্দিষ্ট একটা গণ্ডিতে সীমাবদ্ধ। যে কারণে ধাপে ধাপে স্কুল চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

কিন্তু অভিভাবকদের মনে সন্তানের স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিয়ে সংশয় কাটছে না। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বয়স্ক এবং শিশুদের মধ্যে সংক্রমণের সম্ভাবনা বেশি। ফলে নিতান্তই যদি বাচ্চাকে স্কুলে পাঠাতে হয়, তা হলে ভাইরাসটি সম্পর্কে সংক্ষেপে হলেও তাকে সচেতন করতে হবে।

সন্তানকে জানানোর জন্য ৫টি প্রয়োজনীয় তথ্য

১. আমরা কতটা জানি?

ভাইরাসটি সম্পর্কে আমরা কতটা জানি, সেটাই সব থেকে বড়ো প্রশ্ন। চিকিৎসক, গবেষক, বিজ্ঞানীরা ভাইরাস সম্পর্কে জানার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

কিন্তু আমরা এই করোনাভাইরাসের (Coronavirus) প্রকৃতি সম্পর্কে অনেক কিছুই জানি না। তবে বাচ্চাকে অবশ্যই বলতে হবে- ভাইরাসটি বায়ুবাহিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণগুলি বুঝতে পারলেই আগাম সতর্কতা অবলম্বনে তারাও সচেতন হতে পারবে। তাদের পক্ষে যতটা সম্ভব, ততটা নিজের যত্ন নিতে পারবে।

২. করোনাভাইরাস অত্যন্ত সংক্রামক

করোনাভাইরাস অত্যন্ত সংক্রামক। এ ধরনের দাবির পক্ষে পর্যাপ্ত প্রমাণ রয়েছে। তারা যদি ভাইরাসের প্রকৃতি বুঝতে পারে, তা হলে তারাও সাবধানতা অবলম্বন করতে এবং নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে আরও উৎসাহিত হবে।

৩. ভাইরাসটি একাধিক উপায়ে ছড়াতে পারে

প্রাথমিকভাবে জানা যায়, কোনো সংক্রামিত ব্যক্তির থেকে হাঁচি এবং কাশি, থুতুর ফোঁটার সংস্পর্শে কোনো সুস্থ ব্যক্তি এলে ভাইরাসটি ছড়িয়ে সংক্রামিত করতে পারে। তবে, গবেষকরা তবে গবেষকরা এমনও দাবি করেন, আরও অনেকগুলি উপায় রয়েছে যার মাধ্যমে ভাইরাস ছড়িয়ে যেতে পারে এবং এমনকি দীর্ঘ সময় ধরে তলের উপরেও সক্রিয় থাকতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বাতাসে আসার পর কিছুক্ষণের জন্য এটি সক্রিয় থাকতে পারে।

৪. করোনায় যে কেউ আক্রান্ত হতে পারে

কেউ নিজের পর্যান্ত যত্ন নিচ্ছে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলার জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার খাচ্ছে, তার মানে এই নয় যে তার ভাইরাসে ভয় নেই। বাচ্চাকে জানাতে হবে, সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে প্রত্যেকের। এমনকী এই রোগের এখনও পর্যন্ত কোনো কার্যকরী ভ্যাকসিন অথবা নির্দিষ্ট প্রতিকার আমাদের হাতে এসে পৌঁছায়নি।

৫. কোভিডের উপসর্গ নাও থাকতে পারে

শিশুরা প্রায়শই জ্বর, কাশি, সর্দি ইত্যাদির মতো নির্দিষ্ট উপসর্গগুলির সঙ্গে অসুস্থ হয়ে পড়ে। কিন্তু কোভিড-১৯ আক্রান্তের মধ্যে যে সবসময় উপসর্গ দেখা দেবে, তেমনটাও নয়। কোনো বন্ধুকে হয়তো কেউ দেখছে কোনো উপসর্গ নেই, কিন্তু সে-ও করোনায় আক্রান্ত হতে পারে অথবা সম্ভাব্য রোগের বাহক হতে পারে। তারা তাদের বন্ধুরা সুস্থ দেখতে পাচ্ছে এবং তাদের চারপাশে সতর্কতা অবলম্বন করতে পারে না তবে তারা সংক্রামিত হতে পারে এবং এই রোগের সম্ভাব্য বাহকও হতে পারে। এ ধরনের সম্ভাবনাগুলি নিয়েও বাচ্চাকে সচেতন করতে হবে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে স্কুল খুললে আপনি কি নিজের সন্তানকে পাঠাবেন?

সংক্রমণের হার, সক্রিয় রোগীর সংখ্যা, সুস্থতার হার ইত্যাদি কতটা বাড়ল অথবা কমল, সে সব জটিল পরিসংখ্যান শিশুদের বোঝানো কোনো মতেই সম্ভব নয়। কিন্তু ভয়াবহ এই সমস্যা সম্পর্কে তাদের ন্যূনতম শিক্ষিত করে তোলার মাধ্যমেই সুরক্ষিত রাখার কৌশল নিতে হবে।

দেখে নিন এখানে: ২১ সেপ্টেম্বর থেকে নবম-দ্বাদশ শ্রেণির জন্য আংশিক স্কুল খুলতে পূর্ণাঙ্গ নির্দেশিকা জারি কেন্দ্রের

Continue Reading

বিজ্ঞান

নভেম্বরে বাজারে আসতে পারে কোভিড-টিকা, দাবি করল চিন

টিকা উৎপাদনের কার্যত প্রতিযোগিতা চলছে বিভিন্ন দেশে।

Published

on

coronavirus vaccine

খবরঅনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের (Coronavirus) প্রতিশোধক টিকা তৈরির জন্য বিশ্ব জুড়ে প্রতিযোগিতা লেগেছে। যে টিকার ওপরে বিশ্বের আশা সব থেকে বেশি, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই টিকা কবে বাজারে আসবে, সে ব্যাপারে কিছু নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। অন্য দিকে কোভিড-টিকা বাজারে এনে ফেলেছে রাশিয়া।

এ বার চিন (China) দাবি করল যে তাদের দেশে তৈরি কোভিড-টিকা নভেম্বরেই বাজারে চলে আসতে পারে। কিছু দিন আগে এমন দাবি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও।

সোমবার চিনের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর প্রধান গুইঝেন য়ু জানিয়েছেন, তাদের চারটি টিকা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সব ক’টির পরীক্ষানিরীক্ষাই মসৃণ ভাবে এগোচ্ছে। এর মধ্যে গত জুলাইয়ে তিনটির প্রয়োগ করা হয়েছে দেশের জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের ওপর।

সেই প্রয়োগের ফলাফল নিয়ে সবিস্তার জানা না গেলেও চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যমে এক সাক্ষাৎকারে তাঁর দাবি, সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী নভেম্বর বা ডিসেম্বরের মধ্যেই বাজারে আসতে পারে তাদের কোভিড-প্রতিষেধক।

গত এপ্রিলে তিনি নিজে কোভিড-টিকা নিয়েছেন বলে দাবি করেছে য়ু। তার কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, চিনের ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা সিনোফার্ম এবং সিনোভ্যাক বায়োটেক তিনটি ভ্যাকসিন তৈরির কাজ করছে। চতুর্থ ভ্যাকসিনটি তৈরি করছে ক্যানসিনো বায়োলজিক্স। গত জুনে ক্যানসিনোর তৈরি ভ্যাকসিন ব্যবহারযোগ্য বলে জানিয়ে দেন চিনের সেনা কর্তৃপক্ষ। তবে তা এই মুহূর্তে চূড়ান্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে।

এ দিকে মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ফাইজার ইনকর্পোরেশন জানিয়েছে, তাদের কোভিড-টিকার পরীক্ষানিরীক্ষাও চূড়ান্ত পর্যায়ে। চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই তা বাজারে চলে আসবে বলে দাবি তাদের।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

“দেশকে ভালোবাসেন, তাই প্রশ্ন করুন,” আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে বার্তা দিলেন অভিনেত্রী তাপসী পান্নু

Continue Reading

জীবন যেমন

সিগারেট ছাড়তে চাইছেন, কিন্তু পারছেন না? এই ১১টি পদ্ধতি সাহায্য করবেই

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সিগারেট পুড়িয়ে ধোঁয়া পান করার অর্থ হল টাকা পোড়ানো। সিগারেটে বিতরাগী মানুষজন এমনটাই মনে করেন। আসলে অর্থ সঞ্চয়ের থেকেও বড়ো ব্যাপার হল সিগারেট ছাড়লে অনেক রোগ বা রোগের আশঙ্কা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। সিগারেট না খেলে রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকবে, রক্তের কার্বন মনোক্সাইডও স্বাভাবিক থাকবে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমবে এবং ফুসফুস ভালো থাকবে।

কাজেই সিগারেট ছাড়ুন সুস্থ থাকুন।

কী ভাবে ছাড়বেন সিগারেট?

১। নিজের মনকে বোঝান

ধূমপান ছাড়ার আগে মনকে প্রস্তুত করতে শক্তিশালী কারণ ঠিক করুন। সেই কারণ ধূমপান ছাড়তে সাহায্য করবে। ধূমপানের কথা মনে এলেই সেই কারণটিকে দাঁড় করান নিজের মনের সামনে। যেমন ধরুন – নিজেকে বুড়োটে দেখতে লাগছে, তারুণ্য ধরে রাখতে চান, ফুসফুসে ক্যানসার বা মুখের ক্যানসার ইত্যাদির হাত থেকে বাঁচতে চান, প্রিয় কোনো মানুষকে কথা দিয়েছেন ধূমপান ছেড়ে দেবেন ইত্যাদি।

২। লজেন্স খাওয়ার অভ্যাস

অনেকের ক্ষেত্রেই ‘একটির বদলে আর একটি’ সূত্র কাজ করে। আসলে দুম করে ধূমপান ছেড়ে দিতে গেলে কী করি কী খাই এমন একটি মানসিক সমস্যা আসতে পারে। তার থেকে হতাশা ও বিষণ্ণতা। তাই সিগারেটের বিকল্প হিসাবে লজেন্স বা চুইংগাম খেতে পারেন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, সিগারেট ছাড়ার জন্য বাজারে কিছু চুইংগাম পাওয়া যায়। এগুলি বেশ কার্যকর।

৩। ঠান্ডা স্থান এড়িয়ে চলুন

সিগারেটের ভেতরের নিকোটিন নেশা তৈরি করে। একটা সময়ে মস্তিষ্ক নিকোটিনে অভ্যস্ত হয়ে পড়ে। তাই বার বার ধূমপান করতে ইচ্ছা করে। আবার ঠান্ডা স্থান নিকোটিন গ্রহণের ইচ্ছা বাড়িয়ে দেয়। তাই ধূমপান ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর ঠান্ডা  জায়গায় গেলে হয়তো আবার ধূমপানের ইচ্ছে মাথা চাড়া দিতে পারে।  

৪। মানসিক চাপে অন্য পথ

অনেকেই মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে ধূমপান করেন। তা হলে সে ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের পরামর্শে চাপ কমানোর জন্য ওষুধের সাহায্য নেওয়াই ভালো। সিগারেটকে অবলম্বন করা দীর্ঘমেয়াদে ভুল সিদ্ধান্ত।

৫। মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণ

মানসিক চাপের কারণে অনেকেই ধূমপান করেন। তাই এই চাপ থেকে মুক্ত থাকার চেষ্টা করুন। নিয়মিত ম্যাসাজ করান, বই পড়ুন, গান শুনুন, যোগব্যায়াম করুন। চাপমুক্ত থাকলে ধূমপানও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

৬। মানুষের সহায়তা নিন

অনেককেই শোনা যায় অন্যদের ধূমপান বন্ধ করার জন্য উপদেশ দিয়ে থাকেন। তেমন ঘটনা ঘটলে খুবই ভালো। বন্ধুবান্ধব,পরিবারের সদস্য এবং সহকর্মীদের জানান ধূমপান ছাড়তে চাওয়ার কথা। তারা আরও উৎসাহ জোগাবে। তাদের সামনে কখনও সিগারেট খেতে গেলে তারা মনে করিয়ে দেবে, নিষেধ করবে ফলে উপকার হবে।

৭। বাড়ি পরিষ্কার করার অভ্যেস

মনোবিদদের মতে, অন্য কিছুতে মনকে মাতিয়ে রাখলে সাধারণ ভাবে আর একটি ইচ্ছা বা চিন্তা মাথা থেকে সরে যায়। ঠিক একই পদ্ধতি হয় ঘর পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে। মজার মনে হলেও চেষ্টা করে দেখুন। নিজের হাতে বাড়িঘর পরিষ্কার করুন, সাজান, ধোয়াকাচা, রান্না ইত্যাদিতে মনকে আটকে রাখুন। দেখবেন অনেকটা সময় কেটে গিয়েছে সিগারেট খাওয়ার ইচ্ছা ছাড়াই। অনেকে বলেন, ঘরে সুন্দর গন্ধের এয়ার ফ্রেশনার বা ধূপকাঠি ব্যবহার করলে তার সুগন্ধ সিগারেটের ধোঁয়ার কথা ভুলে যেতে সাহায্য করে।

৮। শারীরিক পরিশ্রম

পরিশ্রমের কাজ ধূমপান করার ইচ্ছাকে তাড়িয়ে দেয়। তাই ধূমপান করতে ইচ্ছা করলে হাঁটুন, জগিং করুন, ব্যায়াম করুন। এতে মাইন্ড রিফ্রেশ হবে, অতিরিক্ত ক্যালোরিও দূর হবে ও ধূমপানের ইচ্ছা দূর হবে।

৯। ফল এবং শাকসবজি খান

ডিউক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রচুর পরিমাণ ফল এবং শাকসবজি খেলে সিগারেটের স্বাদ আর ভালো লাগে না। তাই খাদ্য তালিকায় নিয়মিত ফল ও সবজি রাখুন।

১০। অর্থ সঞ্চয়ের ইচ্ছা

ভেবে দেখুন, সিগারেট খেলে প্রতি দিন নয় নয় করে অনেক টাকাই খরচ হয়, যেটা অকারণ। সিগারেট ছাড়লে কিছু টাকাও সঞ্চয় হবে। এমনটা ভেবেও সিগারেট ছাড়ার জন্য নিজেকে উৎসাহিত করতে পারেন।

১১। বারবার চেষ্টা

যে কোনো কাজেই চেষ্টার কোনো বিকল্প হয় না। ধূমপান ত্যাগের ক্ষেত্রেও তাই। বারবার চেষ্টা করুন। নিজেই নিজেকে সময়ের মাপকাঠি বেঁধে দিন, যে এই সময়ের মধ্যে ধূমপান ছাড়বেনই। প্রতি দিন চেষ্টা করে সেই লক্ষ্য পূরণ করুন।

আরও পড়ুন – সিগারেট খেয়ে ঠোঁটের রঙ কালো! রঙ ফেরাতে ঘরোয়া টোটকা

দেখতে পারেন – ডবল চিনের সমস্যা? ম্যাজিকের মতো কাজ করবে এই ৬টি ব্যায়াম

Continue Reading
Advertisement
press conference by hindu mahajot
দুর্গা পার্বণ50 mins ago

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: সাংবাদিক বৈঠক ও মানববন্ধন করে ৩ দিন ছুটির দাবি

বিদেশ2 hours ago

টিকটক, উইচ্যাট নিয়ে কঠোর সিদ্ধান্ত আমেরিকার

coronavirus
রাজ্য2 hours ago

কলকাতা ও পড়শি জেলায় কোভিড পরিস্থিতি স্থিতিশীল, বেশি উদ্বেগ এখন পশ্চিম মেদিনীপুরকে ঘিরে

দেশ3 hours ago

সোমবার থেকে স্কুল খোলা বাধ্যতামূলক নয়, দেখে নিন কোন রাজ্য কী সিদ্ধান্ত নিল?

দেশ3 hours ago

ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির পরিদর্শনে বিএসএফ-এর ডিজি রাকেশ আস্থানা

Durgapur Rain
পশ্চিম বর্ধমান4 hours ago

রেকর্ড বর্ষণে বিপর্যস্ত পশ্চিমাঞ্চলের তিন জেলা, জমা জলে নাজেহাল দুর্গাপুর

ভ্রমণ4 hours ago

৬ মাস বন্ধ থাকার পর খুলছে পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত চিড়িয়াখানা ও জঙ্গল পর্যটন

Shreyas Iyer
ক্রিকেট4 hours ago

আইপিএলের অন্যতম সেরা বোলিং লাইনআপ কি দিল্লি ক্যাপিটাল্‌সের?

দেশ13 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯৬৪২৪, সুস্থ ৮৭৮৭২

অরন্ধন
ব্র্ত-উৎসব2 days ago

অরন্ধনে নানা বিধ পদ রান্না করে নিবেদন করা হয় মা মনসাকে

covid in kolkata
কলকাতা2 days ago

আগস্টের তুলনায় সেপ্টেম্বরের প্রথম ১৫ দিনে কলকাতায় কমেছে নতুন কোভিডরোগীর সংখ্যা

শিল্প-বাণিজ্য8 hours ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

Covid situation kolkata
দেশ2 days ago

সক্রিয় কোভিডরোগীর নিরিখে পশ্চিমবঙ্গের অবস্থান কেরল, ওড়িশা, অসমেরও নীচে

Muthaiah Muralidaran
ক্রিকেট2 days ago

মাঁকড়ীয় আউটের বিকল্প বাতলে দিলেন মুতাইয়া মুরলীধরন

Parliament
দেশ2 days ago

নতুন সংসদ ভবন নির্মাণের বরাত পেল টাটা

কলকাতা1 day ago

রবীন্দ্র সরোবরে করা যাবে না ছটপুজো, খারিজ কেএমডিএর আবেদন

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা1 week ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা3 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা4 weeks ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা4 weeks ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা1 month ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

নজরে