needle-recover-from-body

কলকাতা: ফের বিরল অস্ত্রোপ্রচার কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। হাতের ভিতর থেকে সূঁচ বের করে রোগীর প্রাণ বাঁচালেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

শ্যামলী ঘোষ। বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুরের খিড়পাই গ্রামে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, শ্যামলীর দীর্ঘদিন ধরে স্নায়ুর সমস্যা  ছিলো। যার ফলে তিনি যখন তখন জ্ঞান হারাতেন। আর জ্ঞান হারালে তাঁকে সেলাইন দিতে হত। টানা ২ বছর ধরে এমনটাই চলছে।

আর এই বার বার সেলাইন দেওয়ার ফলে কখন যে হাতের ভিতর সূঁচ ঢুকে গেছিল সেটা বোঝা যায়নি। গ্রামের হাতুড়ে ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করানোয় এই সমস্যা দেখা যায়। এর কিছুদিন পর থেকেই ব্যথা শুরু হয়। প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল। পরে কলকাতা মেডিকেল  কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়।

needle-recover-from-body

এর পর শ্যামলীকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সার্জারি বিভাগের পক্ষ থেকে প্রথমে এক্স রে করা হয়। এক্স করে ডাক্তাররা অবাক হয়ে যান। তাঁরা দেখেন দুই হাতের মধ্যেই বেশ কয়েকটি সেলাইনের সূঁচ রয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন : হাড়হিম করা কাণ্ড! আত্মীয়ার স্ক্যান করাতে আসা যুবককে নিমেষে গিলে ফেলল এমআরআই মেশিন 

এর পর তড়িঘড়ি অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেয় সার্জারি বিভাগ। শনিবার ভোরে অস্ত্রোপচার করে ডান হাত থেকে ১৬টি ও বাঁ হাত থেকে ২ টি সেলাইনের সূঁচ পাওয়া যায়। অস্ত্রোপচার করতে প্রায় ৩ ঘন্টা সময় লাগে।

মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সুপার শিখা বন্দ্যোপাধ্যায়  বলেন, অস্ত্রোপচার সম্পূর্ণ সফল। শ্যামলী ঘোষ এখন সুস্থ্ আছেন। তাঁকে সার্জারি বিভাগের জেনারেল বেডে দেওয়া হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন