জেনে নিন রসুন ও মধু খাওয়ার উপকারীতা সম্পর্কে

ওয়েবডেস্ক: শুধু খাবারের স্বাদ বাড়াতেই নয়, ঔষধি গুণের জন্য রয়েছে রসুনের বাড়তি কদর। কাঁচা রসুন খেতে পারলে অনেক রোগের হাত থেকেই মুক্তি পাওয়া যায়। আর এর সঙ্গে যদি একটু মধু যুক্ত হয় তা হলে তো কোনও কথাই নেই।

রসুন ও মধুর গুণাগুণ সম্পর্কে কম বেশি প্রত্যেকেই জানেন। রসুনের অ্যালিসিন উপাদান কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয়, রক্তজমাট বাঁধতে সাহায্য করে।

মধুর মধ্যে থাকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, এনজাইম, আয়রন, জিঙ্ক, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেশিয়াম এবং সেলিনিয়াম রয়েছে। তাই রসুন ও মধু একসঙ্গে খেতে পারলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

রসুন ও মধুর গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

১। ওজন কমাতে

নিয়মিত খালি পেটে ১ কোয়া রসুনের সঙ্গে ১ চামচ মধু খান। দেখবেন ১ মাসের মধ্যে আপনার ওজন কমে গেছে।

২। হার্ট অ্যাটাক

সকালে ঘুম থেকে উঠে চা-কফি যেমন খান। ঠিক তেমনই নিয়ম করে খালি পেটে ১ কোয়া রসুনের সঙ্গে ১ চামচ মধু মিশিয়ে খেয়ে নিন। এতে হার্ট অ্যাটাকের প্রবণতা অনেকটাই কমে।

৩। জ্বর, সর্দি-কাশি

অনেক সময়ে ঔষুধ খেলেও সর্দি-কাশি যেন কমতে চায় না। তাই নিয়ম করে যদি রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন দেখবেন জ্বর, সর্দি-কাশির হাত থেকে মুক্তি পাবেন।


আরও পড়ুন: দুধ ও দারুচিনি খেলে কী উপকার পেতে পারেন জানেন কী?


৪। গাঁটে ব্যথা

অনেক সময়ে আঙুলের গাঁটে ব্যথা শুরু হলে ব্যথা যেন কমতে চায় না। ব্যথার চোটে আঙুল ভাঁজ করতেও কষ্ট হয়। সেক্ষেত্রে নিয়ম করে যদি রসুন ও ১ চামচ মধু খেতে পারেন সব ব্যথা দেখবেন উধাও হয়ে গেছে।

৫। ডায়রিয়া

১ কোয়া রসুন ও ১ চামচ মধু খেয়েই দেখুন। ডায়রিয়া ও পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে দারুণ উপকারী রসুন ও মধু। এ ছাড়া শরীরের বিভিন্ন অংশের ফাঙ্গাল ইনফেকশান দূর করে ব্যকটেরিয়া ধ্বংস করে থাকে এই মিশ্রণটি।

৬। উচ্চরক্তচাপ কমাতে

নিয়ম করে যদি খালি পেটে রসুনের সঙ্গে ১ চামচ মধু খেতে পারেন তা হলে উচ্চরক্তচাপ ও রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এ ছাড়া অস্টিওআর্থারাইটিস, ডায়াবিটিস এবং প্রস্টেট সম্প্রসারণ রোধ করতে কাঁচা রসুনের ভূমিকা অনবদ্য।

৭। চুলের বৃদ্ধি ঘটাতে

চুল পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে এবং নতুন চুলের বৃদ্ধি ঘটাতেও সাহায্য করে রসুন ও মধু। ৭-৮ কোয়া রসুন বেটে নিন। বেটে রাখা রসুনের রসের মধ্যে ২ চামচ মধু মিশিয়ে চুল এবং স্ক্যাল্পে ভালো করে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। সপ্তাহে ৩-৪ দিন করুন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন