children anxiety
ছবি: ইন্টারনেট থেকে নেওয়া

ওয়েবডেস্ক: প্রায় প্রত্যেক বাবা-মা তাঁদের বাচ্চা নিয়ে চিন্তায় থাকেন। সব সময় তাকে চোখে চোখে দেখে রাখা। কিন্তু এত নজরে রাখার পরেও কি বাচ্চার দেখভালের দায়িত্বের মধ্যে কোথাও খামতি থেকে যায়? থাকতেই পারে!

কোনো কারণে হয়ত আপনার বাচ্চা ভয় পাচ্ছে, সব সময় মনের ভেতরে একটা উৎকণ্ঠা কাজ করছে। কিন্তু নিজের কাজ নিয়ে আপনি এতটাই ব্যস্ত যে সন্তানের কী হয়েছে তা আর ঠিকমতো খোঁজ নিয়ে ওঠা আর হয় না। কি, তাই তো?

কী কী কারণে বাচ্চাদের অ্যাংজাইটি বা উদ্বেগ হতে পারে তা জানা থাকলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া সহজ হয়। ছোটোদের অ্যাংজাইটি নানা কারণে হতে পারে।

জেনে নেওয়া যাক কী সেই কারণ-

১। ভালোবাসা থেকে বঞ্চিত 

বাবা ও মায়ের ভালোবাসা না পাওয়া বা বাবা কিংবা মা তাকে ছেড়ে চলে যেতে পারে, এমন ভয় বাচ্চার কাছে সব চেয়ে বড়ো ভয়। একটি বাচ্চার কাছে যেটা সব চেয়ে বড়ো আতঙ্কের কারণ হল- বাবা ও মায়ের ভালোবাসা থেকে বঞ্চিত হওয়া, বাচ্চাকে প্রত্যাখান, হেয় বা উপেক্ষা করা ইত্যাদি।

এর থেকে বাচ্চার মনে একটু একটু করে জন্ম নেয় রাগ, ক্রোধ এবং ক্রোধবশত মনে জাগে প্রতিশোধ নেওয়ার ইচ্ছা। আর এর থেকেই মনের ভেতরে কাজ করে অপরাধবোধ।

২। অপরাধবোধের কারণে অ্যাংজাইটি 

স্বেচ্ছায় বা অনিচ্ছায় মা-বাবা সন্তানদের মধ্যে অপরাধবোধ জাগিয়ে তোলেন। যখন কোনো বাচ্চা সামাজিক বা নৈতিক নিয়ম অমান্য করে তখনই তার মধ্যে অপরাধবোধ জেগে ওঠে।

বাচ্চা যদি মন থেকে জানে, সে সত্যিই নিজের মতো করে ভাবতে পারে তা হলে সে অনেকটাই স্বস্তি পায়। বাবা-মায়ের ভালোবাসা ও আনুকুল্য থেকে সে বঞ্চিত নয় বা তেমন কোনো আশঙ্কা নেই বুঝলে বাচ্চা মানসিক প্রশান্তি ও প্রফুল্লতা অনুভব করে।

৩। বাচ্চার স্বাচ্ছন্দ্য ও নিজের ইচ্ছাকে অস্বীকার করা 

একটি বাচ্চাকে তার মনের মতো কাজ করতে যদি গোড়া থেকে বাধা দেওয়া হয় আর যে কাজটির জন্য সে তৈরি সেখানেও যদি বাধার সৃষ্টি করেন, তা হলে তার ভেতরে একটা রাগ, অসন্তোষ তৈরি হতে শুরু করে। রাগ থেকে প্রতিশোধের অবাস্তব কল্পনা আসতে পারে। আর এর থেকে আসে অপরাধবোধ অথবা প্রতিশোধের ভয়ও জন্মাতে পারে।

আরও পড়ুন: কী ভাবে করবেন সন্তান প্রতিপালন? জেনে নিন এই ১০টি পদ্ধতি

৪। বাবা মায়ের বনিবনা, ঝগড়া বা পারিবারিক কারণে বাচ্চার অ্যাংজাইটি

বাবা-মায়ের মধ্যে ঝগড়াঝাটি অশান্তি মানে পারিবারিক অশান্তিতে বাচ্চার উৎকণ্ঠা হয় এবং নিজেকে অপরাধী ভাবে। পারিবারিক অশান্তিতে ছোটোরা সত্যি সত্যি বা কাল্পনিক ভাবে নিজেদের অপরাধী ভেবে নেয়।

৫। খেলাধুলা, ছোটাছুটি করার সুযোগের অভাব 

আজকের দিনে অনেক বাড়িতেই খেলাধুলো করার জায়গা অত্যন্ত কম। খেলাধুলো ও ছোটাছুটির করতে না পারার জন্য তাদের মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হয়। ছোটো ফ্ল্যাট কিংবা বাড়িতে দামি-দামি আসবাবপত্র থাকার জন্য খেলাধুলো প্রায় বন্ধই হয়ে গেছে। কারণ ব্যাট-বল নিয়ে খেলুক বা লাফালাফি করুক, বল লেগে হয়তো বাড়ির দামি আসবাবপত্রটি ভেঙে যেতে পারে। এই সব নানা কারণে বাচ্চার মধ্যে অ্যাংজাইটি হতে পারে।

সূত্র: মানব সংবেদ

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here