Connect with us

শরীরস্বাস্থ্য

ডিপ্রেশন থেকে বাঁচতে কী কী করবেন? পর্ব ২

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক : এর আগের পর্বে ডিপ্রেশন থেকে বাঁচার কয়েকটি উপায় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। এই পর্বে আরও কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে।

ডিপ্রেশন থেকে বাঁচতে হলে  –

খুশি থাকা

Loading videos...

যেখানে খুশি নেই সেখানেও খুশির পথ খুঁজে নিতে হয়। নিজের পছন্দের কাজ করুন, গান শুনুন। ঘুরে বেড়ান।

উলটোপালটা চিন্তা বাদ

যে চিন্তা আমাদের কষ্টের মূলে সেই চিন্তাগুলি বাদ দিতে হবে। যেমন – নেতিবাচক চিন্তা, ব্যর্থ চিন্তা, অহেতুক চিন্তা, বিষাক্ত চিন্তা, ভয়ের চিন্তা ইত্যাদি ভুলভাল চিন্তা মন থেকে তাড়িয়ে দিতে হবে।

নিজেকে বদলানো

নিজের যে আচরণ বা অভ্যাস বা স্বভাবের জন্য অনেক ক্ষেত্রেই দুঃখ পেতে হয়, সেই বিষয়গুলিকে বদলাতে হবে। তার জন্য প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলতে হবে। নিজের মনকে শান্ত করতে হবে। মনে সব সময় ইতিবাচক চিন্তা রাখুন।

রাগ কমানো

রাগকে নিয়ন্ত্রণ করুন। রাগ দুর্বলতার লক্ষণ। তাই রাগ কমাতে তিন-চার বার গভীর শ্বাস নিন। তাতে মন শান্ত হয়। রাগ কমে। ক্ষমাশীল হওয়া মনকে সুস্থতা দেয়।

মনের নিয়ন্ত্রণ

মনের নিয়ন্ত্রণ তো মানুষের হাতে। তাই ঠিক ভুল বুঝিয়ে তাকে সব সময় অবসাদের হাত থেকে বের করে আনতে হবে।  

নিজেকে মেনে নেওয়া

নিজেকে নিজের মতো করে মেনে নিতে শিখতে হবে। কে কী, আমি কেন তা নই – এই চিন্তাভাবনা করলে অবসাদ আসবেই। তাই আপনার সফলতা, দুর্বলতা সবটাই আপনার নিজের এবং সহজাত ও পরিস্থিতির কারণে। তাকে মেনে নিতে শিখতে হয়। কিছু ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ অতিরিক্ত গুণাবলি তৈরি করে ঠিকই। কিন্তু এটাও মেনে নিতে হবে সবটা সকলের জন্য নয়।

সাধারণ জীবনযাপন

সব সময় হাইফাই নয়, অতি সাধারণ জীবনযাপন করার চেষ্টা করলে মন আপনা হতেই শান্ত থাকে। অবসাদ আসে না। কিন্তু অতিরিক্ত কিছুর অভ্যেস হয়ে গেলে কোনো কারণে তা না পেলে অবসাদ আসে।   

হার স্বীকার

কোনো কোনো ক্ষেত্রে হার স্বীকার করে নেওয়া ভালো। তা পরাজয় নয়, বড়ো মনের পরিচয়। এতে মন অবসাদে গ্রাস হয় না। এতে মহত্বের অনুভূতি আসে। কিন্তু তর্ক চালিয়ে গেলে মনমালিন্য আসে, তা মনকে অবসাদ গ্রস্ত করে।  

রোগে ভেঙে পড়বেন না

কোনো রোগ হলেই ভেঙে পড়বেন না। শরীর থাকলে রোগ হবেই। কিন্তু তার থেকে সুস্থ হয়েও উঠতে হবে। তার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া ও নিজের মনকে খুশি রাখা দরকার। দেহের রোগ যেন মনকে গ্রাস করতে না পারে।  

কাউন্সেলিং

নিজের কাউন্সেলিং নিজে করুন। বিশেষ করে দিনের শেষে রাতে শোওয়ার আগে, সারা দিনে কী কী ঠিক করলেন বা কী কী ভুল করলেন তা বিশ্লেষণ করুন। পরের দিন ভুলগুলির আর পুনরাবৃত্তি করবেন না। প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

পড়ুন – আপনি কি কোনো কারণে হতাশা বা ডিপ্রেশনে ভুগছেন? বুঝবেন এই লক্ষণগুলি থেকে: পর্ব ২

আরও পড়ুন – আপনি কি কোনো কারণে হতাশা বা ডিপ্রেশনে ভুগছেন? বুঝবেন এই লক্ষণগুলি থেকে: পর্ব ১

শরীরস্বাস্থ্য

কেন খাবেন কামরাঙা? ১৩টি কারণ জেনে নিন

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীতকাল। অনেক রকম ফল এই সময় পাওয়া যায়। তারই মধ্যে একটি হল কামরাঙা। অন্যান্য ফলের মতো কামরাঙারও পুষ্টি ও খাদ্যগুণ আছে

ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরল, হাইপারটেনশন ইত্যাদি আটকাতে এক কাপ কামরাঙার রসই যথেষ্ট।

১। চিকিৎকরা বলছেন, ভিটামিন বি৯ অর্থাৎ ফলিক অ্যাসিডে ভরপুর এই ফল। হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।

Loading videos...

২। কামরাঙায় ভিটামিন সি আম, আঙুর, আনারসের চেয়ে অনেকটাই বেশি।

৩। আয়রনের পরিমাণ পাকা কাঁঠাল, কমলালেবু, পাকা পেঁপে, লিচু, ডাবের জলের চেয়ে অনেকটাই বেশি।

৪। ভিটামিন বি৫ ও ভিটামিন বি৬ প্রচুর পরিমাণে রয়েছে কামরাঙায়।

৫। ডায়াবেটিস রোগ নিয়ন্ত্রণে এর তুলনা নেই।

৬। কোলেস্টেরলের সমস্যায় এটি মোক্ষম ওষুধ।

৭। হাইপারটেনশন দূর করতে এর জুড়ি মেলা ভার। কামরাঙা ফলের সঙ্গে গাছের পাতাও খুবই উপকারী।

৮। কামরাঙায় রয়েছে অ্যালাজিক অ্যসিড, এই উপাদান খাদ্যনালির ক্যানসার প্রতিরোধ করে।

৯। কামরাঙার পাতা ও কচি ফলের রসে আছে ট্যানিন। এই উপাদান রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে।

১০। সর্দিকাশিতে দারুণ উপকারি কামরাঙা।

১১। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এই ফল।

১২। কামরাঙা চুল, ত্বক, নখ ও দাঁতের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।

১৩। মুখে ব্রন হওয়ার সমস্যা আটকাতে হলে কামরাঙা খেলে উপকার পাওয়া যায়।

তবে এই ফলটি অর্থাৎ কামরাঙা খাওয়ার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম মানতে বলছেন চিকিৎসকরা –

১। খালি পেটে কোনো ভাবেই খাওয়া চলবে না। কামরাঙা খেতে হবে ভরা পেটে।

২। ডায়েরিয়া হলে কামরাঙা খাওয়া চলবে না।

৩। কামরাঙা একটি অক্সালেট সমৃদ্ধ ভিটামিন সি জাতীয় ফল। তাই কিডনির সমস্যা থাকলে কামরাঙা খেতে নিষেধ করছেন চিকিত্সকরা।

আরও পড়ুন – কেন খাবেন পাকা তেঁতুল, জেনে নিন ৩১টি উপকারিতা

Continue Reading

শরীরস্বাস্থ্য

শুষ্ক ত্বকের থেকে বাঁচার জন্য কী করতে পারেন

দৈনন্দিন জীবনযাপনে কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চললে ত্বকের শুষ্কতার ঝুঁকি কমিয়ে আনা সম্ভব।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: শীতকাল আসছে, ত্বকের শুষ্কতাও বাড়ছে। যাদের ত্বক শুষ্ক প্রকৃতির তারা এই সময় শরীরের মরা চামড়ার প্রকোপ বেশি বোঝেন। তাদের ক্ষেত্রে আগে ভাগে ব্যবস্থা গ্রহণ করা ভালো। কথায় বলে, প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভালো। দৈনন্দিন জীবনযাপনে কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চললে ত্বকের শুষ্কতার ঝুঁকি কমিয়ে আনা সম্ভব।

যেমন-

  • দৈনিক একবারের বেশি স্নান করবেন না।
  • স্নানের জন্য কুসুম কুসুম গরম জল ব্যবহার করুন।
  • স্নান করার পর একদম  শুকনো করে গা মুছবেন না। একটু ভেজা ভেজা রাখবেন।
  • শীতাতপনিয়ন্ত্রিত ঘরে দীর্ঘ সময় থাকবেন না।
  • শীতকালে ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষায় উপযুক্ত ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করুন।
  • সাবান বা কসমেটিক এমন ধরনের ব্যবহার করা উচিত যা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর না, মানানসই।

ক্রিম বা লোশন ব্যবহারের ক্ষেত্রে মনে রাখবেন, এগুলি ব্যবহারের উপযুক্ত সময় হল, স্নানের ঠিক পরে। আর্দ্র ত্বকে। ক্রিম বা লোশন ত্বকের উপর একটি আলাদা আবরণ তৈরি করে, যা চামড়ায় থাকা আর্দ্রতা ধরে রাখে। সুতরাং স্নানের সময়ের জল ত্বকে ধরে রাখা যায়।

Loading videos...

পড়ুন – অর্শ বা পাইলসের লক্ষণগুলি কী কী জানেন?

আরও – পাইলস থেকে নিস্তার পাওয়ার আরও কয়েকটি ঘরোয়া উপায়, পর্ব – ২

Continue Reading

শরীরস্বাস্থ্য

কেন খাবেন পাকা তেঁতুল, জেনে নিন ৩১টি উপকারিতা

তেঁতুলগাছের পাতা, ছাল, ফলের কাঁচা ও পাকা শাঁস, পাকা ফলের খোসা, বীজের খোসা সব কিছুই উপকারী।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: তেঁতুলের নাম শুনলেই জিভে জল আসে না এমন মানুষের সংখ্যা কম। এটি শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয়। বরং হৃদরোগ ও অন্যান্য রোগে খুব উপকারী। অনেকেই মনে করে তেঁতুল মস্তিষ্ক, যৌন জীবনের ক্ষতি করে। কিন্তু আসলে এই ধারণাটি ঠিক নয়। তেঁতুল মস্তিষ্কের জন্য ভালো। তেঁতুলের অ্যাসকর্বিক অ্যসিড খাবার থেকে আয়রন তথা লোহা আহরণ করে, সংরক্ষণ করে এবং তা বিভিন্ন কোষে পরিবহন করে। এই লোহা মস্তিষ্কের জন্য খুব প্রয়োজন। এর পরিমাণ পর্যাপ্ত হলে চিন্তাভাবনার গতি বৃদ্ধি পায়।

তেঁতুলগাছের পাতা, ছাল, ফলের কাঁচা ও পাকা শাঁস, পাকা ফলের খোসা, বীজের খোসা সব কিছুই উপকারী। এর কচিপাতায় রয়েছে অ্যামিনো অ্যাসিড। পাতার রসের শরবত সর্দি-কাশি, পাইলস ও প্রস্রাবের জ্বালাপোড়ায় কাজ দেয়। পুরোনো তেঁতুলের উপকারিতা বেশি।

প্রতি ১০০ গ্রাম পাকা তেঁতুলের পুষ্টি –

জলীয় অংশ ২০.৯ গ্রাম, মোট খনিজ পদার্থ ২.৯ গ্রাম, আঁশ ৫.৬ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ২৮৩ কিলোক্যালোরি, আমিষ ৩.১ গ্রাম, চর্বি ০.১ গ্রাম, শর্করা ৬৬.৪ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ১৭০ মিলিগ্রাম, আয়রন ১০.৯ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ৬০ মাইক্রোগ্রাম, ভিটামিন বি ২ ০.০৭ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ৩ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ১১৩ মিলিগ্রাম,পটাশিয়াম ৬২৮ মিলিগ্রাম, ভিটামিন ই ০.১ মিলিগ্রাম, বিটা ক্যারোটিন ৬০ মাইক্রোগ্রাম, সেলেনিয়াম ১.৩ মিলিগ্রাম, সোডিয়াম ২৮ মিলিগ্রাম, দস্তা ০.১২ মিলিগ্রাম, ম্যাগনেসিয়াম ৯২ মিলিগ্রাম, তামা ০.৮৬ মিলিগ্রাম।

Loading videos...

তেঁতুলের উপকারিতা –

তেঁতুলগাছের পাতা, ছাল, ফলের শাঁস (কাঁচা ও পাকা), পাকা ফলের খোসা, বীজের খোসা সব কিছুই ব্যবহার হয়ে থাকে।

১।  মুখের লালা তৈরি হয়।

২।  তেঁতুল রক্ত পরিষ্কার করে।  

৩। এটি পরিপাকক্ষমতা বাড়ায়।

৪। খাবারে রুচি বাড়ায়।

৫। তেঁতুলের কচিপাতায় প্রচুর পরিমাণে অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে। 

৬। তেঁতুলের সঙ্গে রসুনবাঁটা মিশিয়ে খেলে রক্তের চর্বি কমে।

৭। এর পাতার রসের শরবত সর্দি-কাশি, পাইলস ও প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া কমায়। 

৮। তেঁতুল রক্তে মেদ বা চর্বি কমানোয় বড়ো ভূমিকা নেয়। কোলস্টেরল ও ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা এবং রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে।

৯। পুরোনো তেঁতুলের কার্যকারিতা বেশি। পেট ফাঁপা, বদহজম হলে পুরোনো তেঁতুল এক কাপ জলে ভিজিয়ে সামান্য নুন, চিনি বা গুড় দিয়ে খেলে অসুবিধা দূর হয়।

১০। আবার হাত-পা জ্বালা করলেও এই শরবতে উপকার পাওয়া যায়।

১১। তেঁতুল হার্ট ভালো রাখে।

১২।  তেঁতুল রক্তে কোলেস্টেরল কমায়। দেহে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

১৩। তেঁতুলের পাতা বেঁটে মরিচ ও সামান্য নুন দিয়ে মেখে বড়া তৈরি করে পান্তাভাতে খেলে অ্যামিনো অ্যাসিড তৈরি হয়। 

১৪। শিশুদের পেটের কৃমি কমায়।   

১৫। পাইলসের জন্য উপকারী।

১৬। গর্ভাবস্থায় বমি ভাব দূর করে। 

১৭। এতে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ সব ফলের চেয়ে প্রায় ৫ থেকে ১৭ গুণ বেশি।

১৮। ভিটামিন সি-এর বড়ো উৎস এটি। 

১৯। বাতের ব্যথা বা জয়েন্টে ব্যথা কমায়।

২০।  পুরোনো তেঁতুল কাশি সারায়।

২১। তেঁতুল ডায়াবেটিস কমায়।

২২। তেঁতুল জন্ডিস রোগে উপকারী।

২৩। অন্য যে কোনো ফলের চেয়ে তেঁতুলে খনিজ পদার্থ অনেক বেশি।

২৪। আয়রনের পরিমাণ নারকেল ছাড়া বাকি সব ফলের চেয়ে ৫ থেকে ২০ গুণ বেশি।

২৫। তেঁতুলপাতার তৈরি চা ম্যালেরিয়া জ্বর কমানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। 

২৬। মুখের ঘা ও ত্বকের প্রদাহ সারাতে সাহায্য করে। 

২৭। তেঁতুল ক্যানসারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে। 

২৮। তেঁতুল খাওয়ার পরে যদি পাতলা পায়খানা হয় তা হলে বোঝা যাবে তেঁতুল শরীরে ভালো কাজ করছে। কারণ পাতলা পায়খানার সঙ্গে ফ্যাট গলে বের হয়ে যায়।

২৯। বিশেষজ্ঞরা বলেন, যদি কেউ প্রতি দিন নিয়মিত এক ঘণ্টা দ্রুত হাঁটে ও কমপক্ষে ২৫ গ্রাম করে তেঁতুল খায়, তা হলে হার্ট ব্লক হতে পারে না।

৩০। তেঁতুল ত্বকের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে ও ত্বক ভাল রাখে।

৩১। তেঁতুল শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয়।

তবে ভরাপেটেই তেঁতুল খাওয়া ভালো।

পড়ুন – ১০টি রোগকে দূরে রাখতে নিয়মিত খান কমলালেবু, জেনে নিন উপকারিতা

আরও পড়ুন – কেন খাবেন শশা? জেনে নিন ১৭টি উপকারিতা

Continue Reading
Advertisement
Uncategorized14 mins ago

‘লভ জিহাদ’ রুখতে অধ্যাদেশ অনুমোদন করল উত্তরপ্রদেশ

দঃ ২৪ পরগনা43 mins ago

কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ‘হরি বোল’, এক গুচ্ছ প্রতিশ্রুতি

virat kohli
ক্রিকেট1 hour ago

দশকের সেরা ক্রিকেটার হওয়ার দৌড়ে বিরাট কোহলি ও আরও এক ভারতীয়

ফুটবল2 hours ago

পিকে-চুণী স্মরণে ডার্বি শুরুর আগে নীরবতা পালন হোক, আইএসএল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাল ইস্টবেঙ্গল

প্রযুক্তি2 hours ago

আরও ৪৩টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করল ভারত

পূর্ব মেদিনীপুর2 hours ago

খেজুরি থেকে ‘এক সঙ্গে ভালো থাকা’র বার্তা দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

দেশ2 hours ago

১৪৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে ‘নীবর’, তামিলনাড়ু-পুদুচেরিতে বুধবার সরকারি ছুটি

শিল্প-বাণিজ্য3 hours ago

৫০০তম ‘ওয়ার্ল্ড অব টাইটান’ স্টোর খুলল কলকাতায়

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা6 days ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 months ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা2 months ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

নজরে