বিশ্ব স্তন্যপান সপ্তাহ ২০১৯: সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দেওয়া বেশ কয়েকটি ছবি

0
Sameera Reddy

ওয়েবডেস্ক: সদ্য দ্বিতীয় সন্তানের মা হয়েছেন অভিনেত্রী সমীরা রেড্ডি। মাতৃত্বের বিভিন্ন বিষয়গুলি নিয়ে তিনি নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করে চলেছেন। বিশ্ব স্তন্যপান সপ্তাহকে সামনে রেখে তিনি শিশুসন্তানকে স্তন্যপান করানোর একটি ছবি পোস্ট করেছেন। শুধু মা নন, বাবাদেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করে নির্দিষ্ট বার্তা দিতে চেয়েছেন সমীরা।

প্রতি বছরই ১-৭ আগস্ট পালন করা হয় বিশ্ব স্তন্যপান সপ্তাহ বা বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ। সারা বিশ্বের প্রায় ১২০টির বেশি দেশ এই কর্মসূচি পালন করে। শিশুকে স্তন্যপান করাতে মায়েদের আগ্রহী করে তুলতেই এই কর্মসূচির প্রচার। তবে এর বাইরেও শিশুকে স্তন্যপান করানোর আগ্রহ সৃষ্টিতে একাধিক সেলেব্রিটি প্রকাশ্য প্রচারে অংশ নিয়ে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছেন। ফিরে দেখা আলোড়ন সৃষ্টি করা তেমনই পাঁচ ঘটনা।

গিলু জোসেফ

গত বছরের মার্চ মাসে ‘গৃহলক্ষ্মী’ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে উঠে এসেছিল গিলুর ছবি। দেশজোড়া বিতর্ক সৃষ্টি হয় এই মালয়ালম অভিনেত্রীর পদক্ষেপকে ঘিরে।

Grihalakshmi@Grihalakshmi_

“Don’t stare, we are #breastfeeding!”

Grihalakshmi March 1st Issue is out, which speaks about the importance of breastfeeding, and the taboos revolving around it.

View image on Twitter

2,7093:40 PM – Mar 1, 2018Twitter Ads info and privacy1,300 people are talking about this

নিজেকে অতিসচেতন হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে এক ব্যক্তি কেরল হাইকোর্টে এই ছবিকে ‘নৈতিকভাবে অপ্রীতিকর’ আখ্যা দিয়ে আবেদন জানান। তবে আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেয়।

ক্রিস্চিয়ানো সেরাটস

‘দ্য ওয়াকিং ডেড’ ছবির নায়িকা নিজের শিশুকন্যাকে স্তন্যপান করানোর ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন। রে রে করে ওঠে একাংশ। কী হচ্ছে এ সব?

তাঁদের মোক্ষম জবাব দেন সেরাটস। তিনি লেখেন, “এটা আমার ইনস্টাগ্রাম পেজ, আর শরীরটাও আমার। ফলে আমি কী পোস্ট করব, সেটা নিতান্ত ভাবে আমার ব্যাপার। যদি কেউ অসম্মত হন, তা হলে আমার বাঁ দিকের ‘টিট’টা চুষতে পারে”। ছবি দেখলেই বিষয়টা স্পষ্ট হয়ে যায়।

সারা স্টেজ

বিখ্যাত ফিটনেস গাইড সারা নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে শিশুকে স্তন্যপান করানোর ছবি পোস্ট করেন। আর তাতেই ক্ষেপে লাল হয় তথাকথিত রক্ষণশীলদের একাংশ। সারা তাদের উদ্দেশে লেখেন, “যাঁরা আমার এই ছবি দেখে অস্বস্তি বোধ করছেন, তাঁরা নিজের মাথায় একটা কম্বল চাপা দিয়ে দিন”।

এখানেই থেমে না থেকে তিনি ফের একটা ছবি পোস্ট করেন।

তখন লেখেন, “পছন্দ না হলে আমাকে আনফলো করুন”।

ইকুইনিক্স

ইকুইনিক্স জিম অ্যান্ড ফিটনেস সেন্টার তাদের বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করেছিল এই ছবি। অনামী মডেলকে দিয়ে করানো ওই ছবিতে দুই স্তনে দুই শিশুকে দুগ্ধপান করানোর ছবি নিয়ে বিশ্বজোড়া হইচই পড়ে যায়।

ওই ছবিতে দেখানো হয়েছিল, কী ভাবে ভালোবাসাকে সমান ভাগে ভাগ করে দেওয়া যায়। ওই বিজ্ঞাপনী ছবিকে কুরুচিকর এবং বিকৃত মানসিকতার ফসল হিসাবে আখ্যা দেয় কেউ কেউ। ফেসবুকে পোস্ট করা হয়েছিল ওই ব্যতিক্রমী ছবি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here