world physiotherapy day 2018

কলকাতা: শুধু শারীরিক অসুস্থতার চিকিৎসার ক্ষেত্রে নয়, মানসিক অসুস্থতার  চিকিৎসাতেও ফিজিওথেরাপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যে কারণে, ২০১৮-র বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবসের মূল স্লোগান হিসাবে বেছে নেওয়া হয়েছে এই বিষয়টিকে। ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিক্যাল থেরাপি বা ডব্লিউসিপিটি মনে করে,  ফিজিওথেরাপিতে এমন কিছু অনুশীলন রয়েছে, যা মানসিক সমস্যার সমাধানেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেমন ফিজিথেরাপিস্ট নির্দেশিত বেশ কিছু থেরাপিউটিক এক্সারসাইজ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বিষণ্নতা ও উদ্বেগজনিত মানসিক সমস্যা সমাধানে কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে।

প্রতিবছরই বিশেষ একটি বিষয়কে থিম হিসাবে বেছে নেওয়া হয় এই নির্দিষ্ট দিনটির জন্য। ৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবসে এ বারের স্লোগান- ‘মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে ফিজিওথেরাপি’। বেশ কয়েক মাস ধরে এই বিষয়টির উপর প্রচারও চালিয়েছে কনফেডারেশন। সারা বিশ্বের সঙ্গে কলকাতাতেও একাধিক ফিজিওথেরাপি কেন্দ্রের উদ্যোগে দিনটিকে বিশেষ গুরুত্ব সহকারে পালন করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে এক বিশিষ্ট ফিজিওথেরাপিস্ট বলেন, শারীরিক সমস্যার থেকে মানসিক সমস্যার জটিলতা অনেক বেশি। ফলে শারীরিক ভাবে অসুস্থ হওয়ার পরে মানসিক অসুস্থতা গ্রাস করে মৃত্যুর সংখ্যাও খুব একটা কম নয়। বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন, প্রতি ৪ জন মানুষের মধ্যে ১ জন সারা জীবনে কোনো না কোনো সময় মানসিক অসুস্থতার শিকার হয়ে থাকেন। আবার, প্রতি ৬ জনের মধ্যে ১ জন শেষ ৭ দিনে মানসিক অসুস্থতা অনুভব করতে পারেন।


আরও পড়ুন: আপনি কি অবসাদগ্রস্ত? জেনে নিন ১৪টি লক্ষণ

শারীরিক অসুস্থতা যে কোনো ব্যক্তিকেই বিষণ্ণ করে তোলে। রোগমুক্তির সহজ বা সঠিক উপায় কী, এই রোগ থেকে আদৌ মুক্তি পাব তো? বা চিকিৎসা করানোর অর্থ জোগাড় করতে পারব তো? ইত্যাদি প্রশ্নগুলিও শারীরিক ভাবে অসুস্থকে মানসিক দিকে থেকেও অসুস্থ করে তুলতে পারে্। এর সমাধানে ফিজিওথেরাপির ভূমিকা ইতিমধ্যেই প্রমাণিত হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন