কী ভাবে পুজোর আগে নিজেকে রোগা করবেন জেনে নিন

ওয়েবডেস্ক: মাত্র দেড়মাস বাকি পুজো আসতে। মাঝেমাঝে বৃষ্টি হলেও রোদে ভরা ঝলমলে আকাশ। হাওয়ার দাপটে কাশ ফুলগুলি তালে তাল মিলিয়ে দুলে চলেছে।

সামনে তো পুজো, কিন্তু তার আগে তো নিজের শরীরের দিকেও নজর রাখতে হবে। যত দিন যাচ্ছে মোটা হয়ে যাচ্ছেন?

বেশিরভাগ সময় স্লিম থাকতে গিয়ে নিজের ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখতে হিমসিম খেতে হয় সবাইকে। বিশেষ করে চাকরিতে ঢোকার পর কিংবা বিয়ের কিছুদিন পরই শুরু হয়ে যায় মোটা হওয়া। আর মেয়েদের ক্ষেত্রে সন্তান হওয়ার পর তো কথাই নেই, ওজন দ্বিগুণ হারে বেড়ে যায়।

তবে মোটা হয়ে যাওয়া কিন্তু খুব ভালো লক্ষণ নয়। কিন্তু কে চায় নিজের ওজন বাড়াতে।

পুজো আসার আগেই যদি মনে করেন, নিজের ওজন কমানো ভীষণ ভাবে দরকার, তা হলে আর দেরি না করে একটু সময় বের করে ঘরে বসেই ব্যায়াম করুন।

জেনে নেওয়া যাক কী কী ব্যায়াম করবেন-

১। মলাসন

সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এই আসনটি করলে শরীরের নিচের অংশের কর্মক্ষমতা তো বৃদ্ধি পাবেই, সেই সঙ্গে হজম ক্ষমতারও উন্নতি ঘটবে। সেই সঙ্গে ক্লান্তিও দূর হবে। শরীরে থাকা বাড়তি মেদ সব ঝরে যাবে।

২। ধনুরাসন

প্রতিদিন অন্তত তিনবার ধনুরাসন করতে হবে। তা হলেই দেখবেন পুজোর আগেই আপনি অনেক রোগা হয়ে গেছেন। এ ছাড়া বদহজমের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাবেন। সেই সঙ্গে ডায়াবেটিস, পিঠে ব্যথা এবং ঘারে যন্ত্রণার মতো রোগকে একশো শতাংশ সারিয়ে তুলতেও এই আসনটি নানাভাবে সাহায্য করে।

৩। ভরদ্বাজসন

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ৩০-৬০ সেকেন্ড এই আসনটি করুন। ওজন তো কমবেই, সেই সঙ্গে এই আসনটি করার সময় শিরদাঁড়ার উপর চাপ পরে, ফলে স্পাইন এবং কাঁধের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে কোমরে কোনও ব্যাথা থাকলে সেই ব্যথাও কমে যাবে।

আরও পড়ুন: এই চারটি যোগাসনে ম্যাজিকের মতো কমবে ভুঁড়ি

৪। চতুরাঙ্গ দণ্ডাসন

প্রথমে উবু হয়ে শুয়ে পড়তে হবে। তারপর কনুইয়ের উপর ভর করে শরীটাকে উপরে তুলতে হবে। প্রতিদিন খালি পেটে ৩০-৬০ সেকেন্ড এই আসনটি করলে বাইসেপ, ট্রাইসেপ এবং কবজির জোর বাড়বে। শুধু তাই নয়, ধীরে ধীরে ওজন কমতে থাকবে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন